ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০ ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০

সুনামগঞ্জ বিজিবি ও এলাকাবাসীর মাঝে সংঘর্ষ : এলাকায় চরম উত্তেজনা
হাওরাঞ্চল (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০, ৩:১৬ পিএম আপডেট: ২২.১০.২০২০ ৩:১৮ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 131

সুনামগঞ্জের লাউড়গড় সীমান্তে বিজিবি ও এলাকাবাসীর মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষের সময় ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষন করেছে বিজিবি। প্রায় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষের ঘটনায় বিজিবি সদস্যসহ স্থানীয় কয়েক জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

এ ঘটনার পর থেকে আজও (২২ অক্টোবর) এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনার খবর পেয়ে সুনামগঞ্জ-২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন এর উপ পরিচালক মাহবুব আলম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। এবং সীমান্তে অতিরিক্ত বিজিবি মোতায়েন করা হয়।

এলাকাবাসী জানায়, গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় জেলার তাহিরপুর উপজেলার লাউড়গড় সীমান্তের যাদুকাটা নদী ,শাহ-আরেফিন মোকাম ও সাহিদাবাদ ইকরগড়া এলাকা দিয়ে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে কয়লা পাচাঁর করে লাউড়গড় বাজার সংলগ্ন যাদুকাটা নদীর তীরে নিয়ে মজুত করে বিজিবি সোর্স পরিচয়ধারী নুরু মিয়া,আমিনুল,নাজিম উদ্দিন,জসিম মিয়া,নবীকুল ও জজ মিয়ার সংঘবদ্ধ লোকজন। এসময় লাউড়গড় ক্যাম্পের এফএস নাঈম কয়েকজন বিজিবি সদস্যদেরকে নিয়ে সবাইকে ধাওয়া করলে সোর্স পরিচয়ধারীরা সবাই দৌড়ে পালিয়ে যায়। এসময় তাদের সাথে থাকা সুমন মিয়া (১৪) নামের কিশোরকে ঘটনাস্থলে পেলে তাকে মারধর করে। 

তথ্য মতে, সুমন মিয়াকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসী বিজিবির উপর চড়াও হয়। এ সময় সোর্স পরিচয়ধারী চোরা কারবারিরা এলাকাবাসীকে ফুসলায় বিজিবির উপর চড়াও হতে। এ সময় বিজিবি ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষন করলে আক্রমনকারীরা পালিয়ে যায়। 

প্রায় ঘন্টাব্যাপী এই সংঘর্ষের ঘটনায় বিজিবির ৫ সদস্যসহ দুলাল মিয়া, আফাজ উদ্দিন,শফিকুল ইসলাম,আব্দুল জলিল,আল-আমিন,হনুফা বেগম ও জমিলা বেগমসহ ১৫ জনের মতো আহত হয়। 

এ সময় তাদেরকে বিশ্বম্বরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানাগেছে। আহতরা সীমান্তের লাউড়গড়, মনাইপাড় ও সাহিদাবাদ এলাকার বাসিন্দা। 

এদিকে বিজিবির সোর্স পরিচয়ধারীরা দীর্ঘদিন যাবত লাউড়গড় সীমান্ত দিয়ে অবৈধ ভাবে কয়লা,কাঠ,পাথর,নাসিরউদ্দিন বিড়ি,মদ,গাঁজা,হেরুইন,ইয়াবা ও অস্ত্রসহ গরু পাচাঁর করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় রয়েছে একাধিক মাদক ও কয়লা চোরাচালান মামলা।

এব্যাপারে জানতে লাউড়গড় বিজিবি ক্যাম্প ও সুনামগঞ্জ ২৮ ব্যাটালিয়নের বিজিবি অধিনায়ক মাকসুদুল আলমের সরকারী মোবাইল নাম্বারে বারবার কল হলে কেউ ফোন রিসিভ করেনি। 

এই সংঘর্ষের ঘটনার প্রেক্ষিতে থানায় এখনও পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি বলে তাহিরপুর থানা সূত্র জানায়।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]