ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০

লিওয়ানদোস্কির হ্যাটট্রিকে বায়ার্নের বড় জয়
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: রোববার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০, ৭:৩০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 30

বুন্দেসলিগা মৌসুমের দ্বিতীয় হ্যাটট্রিকের দেখা পেয়েছেন বায়ার্ন তারকা রবার্ট লিওয়ানদোস্কি। পোলিশ এই তারকার দুর্দান্ত পারফরমেন্সে শনিবার এইনট্রাখট ফ্রাংকফুর্টকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ।

এর মাধ্যমে লিওয়ানদোস্কি পাঁচ ম্যাচে নিজের গোলসংখ্যা ১০’এ উন্নীত করেছেন যা বুন্দেসলিগায় একটি রেকর্ড।

ম্যাচ শেষে স্কাই স্পোর্টসকে লিওয়ানদোস্কি বলেছেন, ‘আমি আশা করি এই ফর্ম আমরা আরো দীর্ঘদিন ধরে রাখতে পারবো। প্রতিপক্ষ কে সেটা কোন বিষয় নয়, আমরা সব সময়ই আমাদের সেরা ফুটবলটা খেলতে চাই, সব সময়ই জিতে বাড়ি ফিরতে চাই।’

গত তিনটি লিগ ম্যাচে এ নিয়ে ৯টি গোল করলেন লিওয়ানদোস্কি। আলিয়াঁজ এরিনাতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে ঘন্টাখানেকের মধ্যেই হ্যাটট্রিক তুলে নিয়েছেন এই পোলিশ তারকা।

এবারের মৌসুমে এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে ২২টি গোল করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ১০জনের হার্থা বার্লিনকে ২-১ গোলে পরাজিত করে টেবিলের শীর্ষে থাকা লিপজিগের চেয়ে ১০টি গোল বেশী করলেও এক পয়েন্টের ব্যবধানে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বেভারিয়ান্সরা। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের সাথে সমান ১২ পয়েন্ট অর্জন করেছে বায়ার্ন। ম্যানুয়েল আকাঞ্জি, আর্লিং ব্রট হালান্ড ও ম্যাটস হামেলসের তিন গোলে শালকেকে কাল ঘরের মাঠ সিগনাল ইডুনা পার্কে ৩-০ গোলে পরাজিত করেছে ডর্টমুন্ড।

মিউনিখে ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফেরা লেরয় সানে বায়ার্নের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেছে। বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে এসে শেষ মিনিটে ইংল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৭ মিডফিল্ডার হামাল মুসিয়ালা পঞ্চম গোলটি করলে বড় জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিকরা। যদিও জয়ের এই ম্যাচটিতে কানাডিয়ান লেফট-ব্যাক আলফোনসে ডেভিস গোঁড়ালির লিগামেন্ট ইনজুরিতে পড়েছেন। ইনজুরির মাত্রা এতটাই গুরুতর যে মাত্র তিন মিনিটেই তাকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে আট সপ্তাহের জন্য আলফোনসো মাঠের বাইরে চলে গেছেন।

গত মৌসুমে ৪৭ ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা ৫৫ গোল করে লিওয়ানদোস্কি নিজের নামের পাশে বিশে^র সেরা স্ট্রাইকারের তকমাটা ভালভাবেই সেঁটে দিয়েছিলেন। এর মধ্যে ছিল ৩৪টি বুন্দেসলিগা গোল। কালও নিজের সেরা ফর্ম ধরে রেখে ম্যাচের ১০ মিনিটেই এগিয়ে দেন স্বাগতিকদের। এরপর ২৬ মিনিটে শক্তিশালী হেডে ফ্রাংকফুর্ট গোলরক্ষক কেভিন ট্রাপকে সহজেই পরাস্ত করে ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ডগলাস কস্তার ক্রস থেকে বক্সের ভিতর ফ্রাংকফুর্টের জাপানীজ ডিফেন্ডার মাকোতো হাসেবের হাতে বল লাগায় বায়ার্ন পেনাল্টির আবেদন করলেও তা শেষ পর্যন্ত নাকচ হয়ে যায়। তবে ৬০ মিনিটে কস্তার আরো একটি নিঁখুত ক্রস থেকে লিওয়ানদোস্কি হ্যাটট্রিক পূরণ করলে বায়ার্নের জয়টা সময়ের ব্যপার হয়ে দাঁড়ায়। ম্যাচ শেষের ১৮ মিনিট আগে সানে প্রতিপক্ষ রক্ষনভাগকে ফাঁকি দিয়ে দলের হয়ে চতুর্থ ও মুসিয়ালা শেষ মিনিটে পঞ্চম গোলটি করলে মৌসুমে প্রথম লিগ ম্যাচে পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ পায় ফ্রাংকফুর্ট।

এদিকে আরেক ম্যাচে শালকেকে রেকর্ড ২১ বুন্দেসলিগা ম্যাচে জয়বীহিন থাকার অস্বস্তিকর রেকর্ড উপহার দিয়েছে ডর্টমুন্ড। ২০ বছর বয়সী নরওয়েজিয়ান তারকা হালান্ড কালকের ম্যাচে আরো একটি গোল পেয়েছে। জানুয়ারিতে ডর্টমুন্ডে যোগ দেবার পর ২৬ ম্যাচে এনিয়ে ২৩ গোল করলেন হালান্ড। এর মাধ্যমে ল্যাজিওর কাছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ম্যাচে ৩-১ গোলের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে বেরিয়ে আসতে সক্ষম হলো ডর্টমুন্ড।

করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হয়ে কাল মাঠে নেমেছিলেন ডর্টমুন্ডের সেন্টার-ব্যাক আকাঞ্জি। প্রথমার্ধ গোলশুন্য থাকার পর ৫৫ মিনিটে তার গোলেই এগিয় গিয়েছিল স্বাগতিকরা। শালকে গোলরক্ষক ফেডেরিক রোনোর মাথার উপর দিয়ে চিপ করে দুর্দান্ত দক্ষতায় বল জালে জড়ান হালান্ড। ফলে ৬১ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করে ডর্টমুন্ড। ম্যাচ শেষের ১২ মিনিট আগে কর্ণার থেকে শক্তিশালী হেডে হামেলস ডর্টমুন্ডের জয় নিশ্চিত করেন।

এর আগে হার্থার সাথে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয় তুলে নিয়েছে লিপজিগ। আট মিনিটে কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার জন করডোবার গোলে এগিয়ে গিয়েছিল হার্থা। ১১ মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে ডিফেন্ডার ডায়োত উপামেকানো লিপজিগের হয়ে সমতা ফেরান। চার মিনিটের মধ্যে দুটি হলুদ কার্ডের কারনে মাঠ ত্যাগে বাধ্য হন বদলী খেলোয়াড় ডেয়োভাসিও জিফুইক। ফলে ৫০ মিনিটের পর থেকে হার্থাকে ১০জন নিয়েই মাঠে খেলতে হয়েছে। এই সুযোগে ম্যাচ শেষের ১৩ মিনিটে আগে স্পট কিক থেকে মার্সেল সাবিটাইজার লিপজিগের জয় নিশ্চিত করেন।

মেইঞ্জের সাথে পিছিয়ে পড়েও শেষ পর্যন্ত ৩-২ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বরুসিয়া মনচেনগ্লাডবাচ। এর মাধ্যমে আগামী সপ্তাহে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়াল মাদ্রিদকে আতিথ্য দেবার আগে নিজেদের প্রস্তুতিটাও সেড়ে নিয়েছে মনচেনগ্লাডবাচ। বাসস




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]