ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ২৮ নভেম্বর ২০২০ ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ২৮ নভেম্বর ২০২০

অভিন্ন লক্ষ্য সৌম্য-বিজয়ের
প্রকাশ: সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৪৫ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 13

ষ ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট ফিরেছে বাংলাদেশে, কিন্তু আলোয় ফেরা হয়নি তাদের। দেশের মাটিতে ক্রিকেট ফিরিয়ে আনা প্রেসিডেন্টস কাপে সৌম্য সরকার আর এনামুল হক বিজয়ের পারফরম্যান্স ভুলে যাওয়ার মতোই। ৫০ ওভারের ম্যাচের ওই টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হওয়া শান্ত একাদশের হয়ে পাঁচ ম্যাচে সৌম্যর রান সাকল্যে ৫০। তামিম একাদশের বিজয় চার ম্যাচে করতে পেরেছেন ৪৫। সেই বিস্মৃতি ভুলে এই দুই ব্যাটসম্যান এখন পাখির চোখ করেছেন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপকে। দুজনের লক্ষ্য অভিন্নÑ ধুন্ধুমার ব্যাটিংয়ে রানের বন্যা বইয়ে দেওয়া।
বাংলাদেশের ক্রিকেটে দুজনের আবির্ভাব আলোর বিচ্ছুরণ ঘটিয়ে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দুজনেই এখন ম্রিয়মান! বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য তবু টিকে আছেন জাতীয় দলে, কিপার-ব্যাটসম্যান বিজয় সেটাও পারেননি। চার টেস্টের ক্যারিয়ারের সবশেষটি এই ডানহাতি খেলেছেন ২০১৪ সালে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। পরের বছর টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার থমকে গেছে ১৩ ম্যাচে। ওয়ানডেতে পথচলাও থমকে গিয়েছিল সে বছর। তবে ২০১৮ সালে ক্যারিয়ারটাকে পুনরুজ্জীবিত করার সুযোগ পেয়েছিলেন, সাত ম্যাচ খেলেও সেটা কাজে লাগাতে পারেননি। সবশেষ সুযোগ পেয়েছিলেন গত বছরের জুলাইয়ে, কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেই ম্যাচটাতেও বিজয় ছিলেন ব্যর্থ।
চলতি বছরের শুরুর দিকে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক প্রথম শ্রেণির আসর বিসিএলে বিজয় ছিলেন দুর্দান্ত। প্রতিটি ম্যাচেই দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে রানের ফোয়ারা ছুটিয়েছে তার ব্যাট। জেমকন খুলনার জার্সিতে এবার বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে একইভাবে রানের ফোয়ারা ছোটাতে চান তিনি। রোববার অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বললেন, ‘লক্ষ্য মন খুলে খেলা। যেভাবে খেলতে পছন্দ করি, সেভাবেই খেলতে চাই আমার মতো করে, যাতে দলকে কিছু দিতে পারি। আমি রোমাঞ্চিত, নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য। অনেকদিন ধরেই ওভাবে নিজেকে মেলে ধরতে পারছি না। চেষ্টা করব এই টুর্নামেন্টে বিজয়কে ফিরিয়ে আনার।’
অনুশীলনের ফাঁকে নিজেকে নতুন করে চেনানোর অভিন্ন লক্ষ্যের কথা বললেন সৌম্যও। ব্যাটিংয়ে সাম্প্রতিক অতীতের ব্যর্থতা এই বাঁহাতি ভুলতে চান বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে, ‘হ্যাঁ, অবশ্যই। নতুন টুর্নামেন্ট, ভালো করার চেষ্টা তো করবই। আমার মনে হয়, আমাদের যে দলটা হয়েছে, সেটা অবশ্যই অনেক ভালো হয়েছে। সবদিক দিয়েই ভালো। আশা করি ভালো একটা টুর্নামেন্ট যাবে। প্রেসিডেন্টস কাপের পারফরম্যান্স ভালো ছিল না। তো অবশ্যই এবার চেষ্টা করব যে ওইটাকে পেছনে ফেলে যেন এই টুর্নামেন্টটা অনেক ভালো কাটাতে পারি।’
বাম হাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে পেস বোলিংটাও একেবারে মন্দ করেন না সৌম্য। ঘরোয়া ক্রিকেট তো বটেই, জাতীয় দলের জার্সিতেও বল করতে দেখা যায় তাকে। পার্টটাইমার হিসেবে যথেষ্টই কার্যকর তিনি। সুযোগ পেলে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের হয়ে আসন্ন আসরেও নিজের কার্যকারিতা প্রমাণ করতে চান সৌম্য, ‘অবশ্যই বোলিং করব ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি। যেকোনো টুর্নামেন্টেই তো একটা লক্ষ্য থাকে, এবারও আছে। চেষ্টা করব লক্ষ্যটা পূরণ করার। আমাদের দলটাও ভালো হয়েছে। বোলিং যখনই করব, চেষ্টা করব পারফরম্যান্স যেন ওমনই (লক্ষ্য পূরণ করার মতো) হয়।’
মঙ্গলবার শুরু হবে পাঁচ দলের বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। সৌম্যদের গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের মিশন শুরু হবে দুদিন পর। ২৬ নভেম্বর দিনের প্রথম ম্যাচে বেক্সিমকো ঢাকার মুখোমুখি হবে তারা। এদিকে উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে ফরচুন বরিশালের মুখোমুখি হবে বিজয়দের জেমকন খুলনা। ওই দলটিতে আছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, ইমরুল কায়েসদের মতো দেশসেরা ক্রিকেটাররা। এবার তাদের থেকে শেখার সুযোগ দেখছেন বিজয়, ‘আশা করি তাদের সঙ্গে খেলে দারুণ কিছু শিখব এবং সেগুলো কাজে লাগিয়ে ভালো কিছু করতে পারব। তাদের সঙ্গে থাকাটা বাড়তি একটা আনন্দ ও অনুপ্রেরণা দেয়।’










সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]