ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১

বাদল রায়কে শেষবিদায়
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০, ১০:৫২ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 24

ষ ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাদল রায় ছিলেন মোহামেডানের প্রাণ, ছিলেন দেশের ফুটবলে একজন পথপ্রদর্শক। তার জীবনের সবটাই জুড়ে ছিল কেবল ফুটবল। সেই বাদলকে লাল-সবুজ দেশ জানাল শেষবিদায়।
এই ফুটবল যোদ্ধা হার মেনেছেন লিভার ক্যানসারের কাছে। রোববার সন্ধ্যায় নিভে যায় তার জীবন প্রদীপ যার বিদায়ে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে এখন শোকের ছায়া। শোকে আচ্ছন্ন কাতার সফরে থাকা জাতীয় ফুটবল দলও। সোমবার বাদলের শেষকৃত্যের আগে মোহামেডান ক্লাব প্রাঙ্গণে, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এবং শহীদ মিনারে তাকে শেষবারের মতো দেখতে প্রিয়জন আর ভক্তদের ছিল উপচে পড়া ভিড়। অন্যদিকে কাতারে অনুশীলন শুরুর আগে জাতীয় দল পালন করেছে ১ মিনিট নীরবতা এবং দলের পক্ষ থেকে ভিডিও বার্তায় শোক জানিয়েছেন মামুনুল ইসলাম।
সোমবার সকালে হিমশীতল অ্যাম্বুলেন্সে করে মোহামেডান ক্লাবে পৌঁছায় বাদলের নিথর দেহ। যেখানে কিছুদিন আগেও সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি এবং কাটিয়ে দিয়েছেন এক যুগেরও লম্বা সময়ের পেশাদার ক্যারিয়ার। এরপর সাবেক এই ফুটবলারকে নিয়ে যাওয়া হয় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। সেখানে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হয়েছিলেন ক্রীড়াব্যক্তিত্ব-রাজনীতিবিদসহ অনেকেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পক্ষে বাহাউদ্দিন নাসিম ও অসীম কুমার উকিলসহ অন্যরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ও আবাহনী লিমিটেডের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ্য জানিয়েছেন কাজী নাবিল আহমেদ। ফেডারেশনে ১২ বছরের সহকর্মীর প্রশংসায় কাজী নাবিল বলেন, ‘ভালো সংগঠক ছিলেন। চমৎকার মানুষ। বাংলাদেশের ফুটবলের অতীতের অংশ ছিলেন। সবসময় ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখতেন। স্টাইলিশ ও অনন্য এক খেলোয়াড় ছিলেন। সংগঠক হিসেবে অনেক ভালো ভূমিকা রেখেছেন। ফুটবলের প্রতি তার অবদান বলে বোঝানো যাবে না। ফেডারেশন, জেলা কিংবা জেলার ক্লাবগুলোর উচিত হবে তার স্বপ্নগুলো এগিয়ে নেওয়া।’
কাতার থেকে ভিডিওতে পাঠানো শোকবার্তায় মামুনুল বলেন, ‘কাল (রোববার) এই খবর শোনার পর থেকে আমাদের সব খেলোয়াড় শোকাহত। আমরা এমন একজনকে হারিয়েছি যিনি আমাদের বড় ভাইয়ের মতো, আমাদের অভিভাবক। আমরা সবাই শোকাহত। আমরা দেশের বাইরে এসেছি, এখানে তাকে আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি। তিনি ছিলেন আমাদের অভিভাবক। দাদা একজন কিংবদন্তি ফুটবলার, আমরা একজন কিংবদন্তিকে হারিয়েছি। আমরা বাংলাদেশ ফুটবলের একজন অভিভাবককে হারিয়েছি। আমাদের সবার চাওয়া, ওপারে ভালো থাকুক দাদা।’
জাতীয় দলের সাবেক তারকা ডিফেন্ডার কায়সার হামিদের দৃষ্টিতে বাদল রায় অসাধারণ এক মানুষ, ‘আমি শোকাহত। তার স্মৃতি ভুলবার মতো নয়। তিনি ফুটবলকে ভালোবাসতেন। ফুটবল নিয়েই সারাক্ষণ চিন্তা করতেন। আমার দেখা অন্যতম সেরা খেলোয়াড় তিনি। তার খেলা এখনও চোখে ভাসে।’
দুপুর পৌনে ১টার দিকে সবাইকে চিরবিদায় জানিয়ে শহীদ মিনার হয়ে বাদল রায়ের শেষকৃত্য হয়েছে সবুজবাগের রাজারবাগ মন্দিরে। সেখানে চন্দন কাঠের স্পর্শে চিরপ্রয়াণে প্রিয় বাদল রায়।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]