ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ২২ জানুয়ারি ২০২১ ৮ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ২২ জানুয়ারি ২০২১

আমল কবুলের পূর্বশর্ত
শাহ মাহমুদ হাসান
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০, ১০:৪৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 64

 মানুষের বড় সম্পদ নেক আমল। পৃথিবীতে যার যত নেক আমল, পরকালে তার তত আনন্দ ও প্রশান্তি। মৃত্যুর পরে একমাত্র নেক আমলই মানুষের কাজে আসবে। তাই মুমিনের কর্তব্য হচ্ছে, পার্থিব জীবনে থাকা অবস্থায়ই সাধ্যমতো নেক আমলের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে থাকা। তবে আমল কবুল হচ্ছে কি নাÑ সেদিকেও খেয়াল রাখা জরুরি। অনেকের আমলের পরিমাণ অনেক বেশি, কিন্তু আমল হেফাজত ও কবুলের শর্ত না জানার কারণে তার ভান্ডারে তেমন কিছু সঞ্চিত হচ্ছে না। খালি থেকে যাচ্ছে আমলের খাতা। তাই নেক আমল কবুল হওয়ার শর্ত সম্পর্কে অবগত হওয়া চাই। নিচে আমল কবুলের পূর্বশর্তগুলো তুলে ধরা হলো।
শিরকমুক্ত ঈমান
ঈমান ছাড়া কোনো আমলই আল্লাহ কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। ঈমানে যদি শিরকের মিশ্রণ থাকে, তা হলে ভালো আমলগুলোকেও ধ্বংস করা হবে। আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, ‘তাদের সমস্ত আমল নিয়ে আমি ধূলোর মতো উড়িয়ে দেব।’ (সুরা ফুরকান : ২৩)। অবিশ^াসীদের আমল যত ভালোই হোক, তা আল্লাহ তায়ালা কাছে মূল্যহীন। এ কথাই উচ্চারিত হয়েছে নিম্নোক্ত আয়াতের মাঝে। ‘যারা স্বীয় পালনকর্তার সত্তার অবিশ^াসী তাদের অবস্থা এই যে, তাদের কর্মসমূহ ছাইভস্মের মতো, যার ওপর দিয়ে প্রবল বাতাস বয়ে যায় ধূলিঝড়ের দিন। তাদের উপার্জনের কোনো অংশই তাদের করতলগত হবে না। এটাই দূরবর্তী পথভ্রষ্টতা।’ (সুরা ইবরাহিম : ১৮)
নিয়তের পরিশুদ্ধি
যেকোনো নেক আমলের পূর্বেই নিয়তকে বিশুদ্ধ করে নিতে হবে। কারণ, ‘সব কাজের প্রতিফল কেবল নিয়তের ওপর নির্ভরশীল। প্রত্যেক ব্যক্তিই নিয়ত অনুসারে তার কাজের প্রতিফল পাবে।’ (বুখারি : ১)
বিদয়াতমুক্ত আমল
বিদয়াতের ব্যাপারে রাসুলুল্লাহ (সা.) উম্মতকে সতর্ক করে বলেছেন, ‘কোনো ব্যক্তি যদি আমাদের এই দ্বীনের ভেতর এমন কিছু সৃষ্টি করে, যা তার অন্তর্ভুক্ত নয়, তবে তা প্রত্যাখ্যাত।’ (বুখারি : ২৫৫০)। রাসুল (সা.) আরও বলেছেন, ‘সবচেয়ে ভালো বাণী হচ্ছে আল্লøাহর কিতাব। আর সবচেয়ে ভালো নিয়ম হলো মোহাম্মদ (সা.)-এর নিয়ম। আর সবচেয়ে নিকৃষ্ট কাজ হলো (দ্বীনের ব্যাপারে) বিদয়াত, তথা নতুন কিছু সৃষ্টি করা। আর প্রতিটি বিদয়াত হলো ভ্রষ্টতা।’ (মুসলিম : ২০৪০)
ইখলাসপূর্ণ আমল
আমলের মধ্যে ইখলাস বা একনিষ্ঠতা থাকা চাই। অর্থাৎ আমলটি যেন কেবল আল্লাহকে রাজি-খুশি করার জন্যই হয়। অন্য কোনো উদ্দেশ্য যেন না হয়। এ ব্যাপারে আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, ‘তাদেরকে এ ছাড়া কোনো নির্দেশ করা হয়নি যে, তারা খাঁটি মনে একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর ইবাদত করবে, নামাজ কায়েম করবে এবং জাকাত দেবে। এটাই সঠিক ধর্ম।’ (সুরা বাইয়েনা : ৫)






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]