ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১

স্কুলের সব শ্রেণিতে ভর্তি হবে লটারিতে
এই উদ্যোগ যৌক্তিক ও প্রশংসাযোগ্য
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০, ১০:৫৩ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 27

 করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে এবার স্কুলের সব শ্রেণিতে পরীক্ষার বদলে লটারির মাধ্যমে ভর্তি করা হবে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বুধবার এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, ভর্তি নিয়ে তাদের সামনে তিনটি বিকল্প ছিল। প্রথম বা প্রচলিত ব্যবস্থা হলোÑ শিক্ষার্থীদের স্কুলে এনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া। কিন্তু সম্প্রতি বিশ^জুড়ে শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ফলে আমাদের দেশেও বাড়তে শুরু করেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। এমন পরিস্থিতিতে পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তির ঝুঁকি তারা নিতে চান না। এর বিপরীতে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার একটি চিন্তাভাবনা তারা করেছিলেন। কিন্তু অনেকেরই অনলাইন ব্যবহারের সুবিধা বা সুযোগ না থাকায় লটারির মাধ্যমে ভর্তিকে যৌক্তিক মনে করছে মন্ত্রণালয়।
প্রতিবছর প্রথম শ্রেণিতে লটারির মাধ্যমে ভর্তি করা হয়ে থাকে। শুধু করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার সব শ্রেণিতেই পরীক্ষার বদলে লটারির মাধ্যমে ভর্তি করা হচ্ছে। জানুয়ারি মাসের ১০ থেকে ১৫ তারিখের মধ্যে এই লটারির আয়োজন সম্পন্ন করা হবে। বাংলা ও ইংরেজিসহ সব মাধ্যমের শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেই এ নিয়ম প্রযোজ্য হবে। আবেদনের পুরো প্রক্রিয়াটি হবে অনলাইনের মাধ্যমে। ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে জানানো হবে এই ভর্তি প্রক্রিয়ার বিস্তারিত
নিয়ম-কানুন।
ঢাকা মহানগরীতে স্থানীয় কোটায় শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ আগের ৪০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫০ শতাংশ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে একেকজন শিক্ষার্থী পছন্দক্রম হিসেবে পাঁচটি স্কুলের তালিকা দিতে পারবে। এতদিন শিক্ষার্থীরা একটি স্কুল পছন্দ করতে পারত। এবার কোনো স্কুল কর্তৃপক্ষ বাড়তি অর্থ আদায় করতে পারবে না। ভর্তির ক্ষেত্রে যেমন বাড়তি ফি নেওয়া যাবে না, তেমনি একই স্কুলের শিক্ষার্থী যারা নতুন ক্লাসে উত্তীর্ণ হবে তাদের কাছ থেকেও নেওয়া যাবে না বাড়তি টাকা। এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে নির্দিষ্ট করে বলেছে, এবার অ্যাসাইনমেন্ট, টিফিন, পুনঃভর্তি, গ্রন্থাগার, বিজ্ঞানাগার, ম্যাগাজিন ও উন্নয়ন বাবদ কোনো ফি গ্রহণ করা যাবে না। কোনো স্কুল কর্তৃপক্ষ এই নিয়ম অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।
মধ্য জানুয়ারিতে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ হলেও আগামী মার্চের আগে স্কুল না খোলার ইঙ্গিত দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, স্কুল খোলার বিষয়টি পুরোপুরি নির্ভর করছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর। শীতের সময় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেশি থাকে। আর আমাদের দেশে মার্চ মাস পর্যন্ত শীত থাকে। শীতের প্রকোপ কমার পর স্কুল খোলা হতে পারে। তবে মার্চের দিকে স্কুল খুললেও পুরোপুরি ক্লাস কার্যক্রম হয়তো শুরু করা যাবে না। তখন স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ক্লাসের কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।
আমরা সরকারের এই দুটি সিদ্ধান্তকেই সময়োচিত বলে মনে করি এবং সংশ্লিষ্ট সবাইকে সাধুবাদ জানাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরই করোনা পরিস্থিতির ওপর সতর্ক দৃষ্টি রাখছেন। পাশাপাশি তিনি দেশ ও জাতির অভিভাবক হিসেবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন। ইতঃপূর্বে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বিষয়ে তিনি একাধিকবার নির্দেশনা দিয়েছেন। দৃঢ়ভাবে জানিয়েছেন, কোনো পরিস্থিতিতেই তিনি ছাত্রছাত্রীদের ঝুঁকির মধ্যে ঠেলে দেবেন না। ছাত্রছাত্রী এবং শিক্ষকদের নিরাপত্তার বিষয়টি তিনি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলের চাপ থাকা সত্তে¡ও স্কুল খোলার ব্যাপারে তিনি তার সিদ্ধান্তে অটল থেকেছেন। প্রধানমন্ত্রীর এমন দৃঢ় অবস্থানের কারণেই কয়েক লাখ ছাত্রছাত্রী এবং শিক্ষকের নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। আমাদের প্রত্যাশা, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টরাও ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়েই যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেবেন এবং শিক্ষা ব্যবস্থাকে সচল রাখবেন।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]