ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ১১ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার সোমবার ২৫ জানুয়ারি ২০২১

ম্যারাডোনা অমর
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০, ১১:৪৬ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 30

চলে গেলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা কিন্তু হারিয়ে যাবেন না। তিনি অমর।
হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৬০ বছর বয়সে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন ম্যারাডোনা। বুধবার রাতে ঈশ^রের কাছে চলে যান ফুটবল ঈশ^র। মৃত্যু কেড়ে নিয়েছে ফুটবল কিংবদন্তিকে কিন্তু কেড়ে নিতে পারবে না তার কীর্তিগুলো, যা তাকে অমর করে রাখবে। কোটি কোটি ভক্তের মনের এই কথা ফুটে উঠল লিওনেল মেসির কণ্ঠে। স্বদেশি কিংবদন্তির প্রয়াণে ব্যথিত আর্জেন্টাইন খুদে জাদুকর ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লেখেন, ‘সকল আর্জেন্টাইন এবং ফুটবলের জন্য খুব কষ্টের একটি দিন। তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন কিন্তু যাচ্ছেন না, কারণ ডিয়েগো অমর।’
ফুটবলে আদর্শের অপর নাম ম্যারাডোনা। তাকে দেখে বেড়ে ওঠা অনেকেই এখন ফুটবল কিংবদন্তিদের তালিকায়। এদেরই একজন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ কোচ ডিয়েগো সিমিওনে। তিনিও বললেন, ম্যারাডোনার আত্মা থেকে যাবে ফুটবলে, ‘যখন আমি বড় হচ্ছিলাম তখন ফুটবল কীভাবে খেলতে হবে তার পথপ্রদর্শক ছিলেন ডিয়েগো। এই বেদনাদায়ক মুহূর্তগুলো সবাইকে ব্যথিত করে, কারণ ফুটবল মানে ম্যারাডোনা, তিনি আর্জেন্টিনা। তিনি আমার দেখাশোনা করতেন যখন সেভিয়ায় আমরা দুজন ছিলাম। ডিয়েগো চলে গেলেন তবে তার আত্মা প্রতিটি ফুটবল মাঠে থাকবে।’
পেপ গার্দিওলার চোখে আধুনিক ফুটবলের কারিগর ম্যারাডোনা। ম্যানচেস্টার সিটির ৪৯ বছর বয়সি স্প্যানিশ এই কোচ বলেন, ‘আর্জেন্টিনায় একটি ব্যানার ছিল যা বলেছিল : ডিয়েগো আপনি আপনার জীবন নিয়ে যা করেছেন বিবেচনাধীন নয়, আমাদের জীবনের জন্য আপনি যা করেছেন তা গুরুত্বপূর্ণ। তিনি প্রচুর আনন্দ দিয়েছেন এবং ফুটবলকে আরও ভালো করেছেন। নাপোলির জন্য যা করেছেন এবং ১৯৮৬ সালে আর্জেন্টিনার জন্য যা করেছেন যা অবিশ^াস্য কিছু ছিল। মাঠে তিনি অনন্য ছিলেন।’
ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো মানছেন, ফুটবল ঈশ^রের শূন্যস্থান অপূরণীয়। শোকাহত পর্তুগিজ যুবরাজের ভাষ্য ছিল ঠিক এমন, ‘আমি এক বন্ধুকে বিদায় জানাচ্ছি এবং বিশ^ গুডবাই বলছে এক অমর প্রতিভাকে। আমাদের সময়ে অন্যতম সেরা একজন। একজন অতুলনীয় জাদুকর। তিনি খুব দ্রæত চলে গেলেন এবং একটি শূন্যস্থান তৈরি করে গেলেন যা কখনই পূরণ হবে না। শান্তিতে থাকুন। আপনাকে কখনই ভোলা যাবে না।’
ম্যারাডোনার প্রয়াণে ব্যথিত রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান বলেন, ‘এটা বিশে^ বড় ক্ষতি তবে ফুটবলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি। ১৯৮৬ বিশ^কাপে তিনি যা করেছিলেন তা আমার হৃদয়ে খোদাই করা হয়েছে। আজ যা ঘটল তা নিয়ে আমরা ভয়াবহ শোকে আছি, আমরা অত্যন্ত ব্যথিত।’ লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ বলেন, ‘আমার বয়স ৫৩ বছর, আমার পুরো জীবনের একটি অংশ ছিলেন তিনি। ডিয়েগো দুর্দান্ত একজন ব্যক্তি ছিলেন। ম্যারাডোনাকে কিছু সংগ্রামও করতে হয়েছে। দুটোই মিস করব।’
শোকের ছায়া ম্যারাডোনার ক্লাব নাপোলিতেও। যেখানে ১৯৮৪ থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত ছিলেন সদ্যপ্রয়াত আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। তার বিদায়ে ক্লাব কর্তৃপক্ষ বলে, ‘প্রত্যেকে আমাদের ভাষ্যের অপেক্ষায় কিন্তু যে ব্যথার মধ্য দিয়ে আমরা যাচ্ছি তা প্রকাশে কোন শব্দ ব্যবহার করতে পারি আমরা? এখন চোখের জল দেওয়ার মুহূর্ত। তারপর শব্দের জন্য মুহূর্তটি থাকবে। আমরা শোক করছি। আমরা হতবাক হয়ে পড়েছি। শহর এবং ক্লাব উভয়েরই জন্য বড় ধাক্কা। সর্বদা আমাদের হৃদয়ে... ডিয়েগো।’






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]