ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১ ২ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ১৭ জানুয়ারি ২০২১

জাকিরের ব্যাটে জিতল খুলনা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০, ১১:০৭ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 19

একাদশে উপেক্ষিত ছিলেন আগের চার ম্যাচে, অবশেষে শুক্রবার যখন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে খেলার সুযোগ পেলেন জাকির হাসান, সুযোগটা দারুণভাবেই কাজে লাগালেন জেমকন খুলনার এই ব্যাটসম্যান। ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে ইনিংসের সূচনায় নেমে হাঁকিয়েছেন হাফসেঞ্চুরি, দারুণ ব্যাটিংয়ে তিনিই গড়ে দিয়েছেন দলের ৪৮ রানের বড় জয়ের ভিত।
মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে দুপুর ১২টায় শুরু হওয়া ম্যাচে জাকিরের হাফসেঞ্চুরিতে ১৭৩ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি গড়ে মাহমুদউল্লাহ-সাকিবদের খুলনা। জবাব দিতে নেমে তামিম ইকবালের বরিশাল ১২৫ রানেই গুটিয়ে যায়। ফলে আসরে পঞ্চম ম্যাচ খেলতে নামা দলটি চতুর্থ পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। অন্যদিকে সমসংখ্যক ম্যাচে তৃতীয় জয়ের দেখা পায় খুলনা। আসরে দুই দলের প্রথম সাক্ষাতেও জয় পেয়েছিল তারা, তবে সেই ম্যাচটা ছিল প্রতিদ্ব›িদ্বতায় ঠাসা। ফিরতি ম্যাচে তার ছিটেফোঁটাও দেখা গেল না।
ম্যাচের শুরু থেকে শেষতক দাপট দেখিয়েই খেলেছে খুলনা। দলীয় ১৯ রানের মাথায় জহুরুল ইসলাম বিদায় নিলেও মাহমুদউল্লাহর দলের ব্যাটিংয়ের শুরুটা ছিল দারুণ। প্রথমবার খেলার সুযোগ পাওয়া জাকির ছিলেন দুর্দান্ত, তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়েছেন ইমরুল কায়েস। তাদের ৯০ রানের জুটিতেই মূলত ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ হাতে পেয়ে যায় খুলনা। দারুণ খেলতে থাকা ইমরুলকে ৩৭ রানে থামান বরিশাল শিবিরের সফল বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বি। এরপর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ আর শামীম হোসেনকেও নিজের শিকার বানান তিনি।
মারকাটারি ব্যাটিংয়ে অভ্যস্ত তরুণ শামীম এদিন ৭ বলে ৬ রানের বেশি করতে পারেননি। তবে ৪টি চারের মারে ১৪ বলে মাহমুদউল্লাহর ২৪ রানের ইনিংসটা ছিল বেশ কার্যকর। তবে এদিনও ব্যাট হাতে নিজের কার্যকারিতার প্রমাণ রাখতে পারেননি সাকিব আল হাসান। ১৪ রান করে তানভির ইসলামের বলে আউট হন এই বাঁহাতি। এই ত্রয়ী ফেরার আগেই ম্যাচে তাসকিন আহমেদের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন জাকির। এর আগ পর্যন্ত তিনি ছিলেন দুর্দান্ত।
জাকির ৬৩ রান করেছেন ৪২ বল খেলে। নান্দনিক ইনিংসটি এই বাঁহাতি সাজিয়েছিলেন ১০টি চারের মারে। কোনো ছক্কা ছিল না। এদিন খুলনার ইনিংসে যে দুটো ছক্কা দেখা গেছে, এর একটি শুরুতেই হাঁকান ইমরুল। শেষদিকে মাত্র একটি বল খেলার সুযোগ পেয়ে অপর ছক্কাটি হাঁকান আরিফুল হক। ২ বল খেলে ৫ রানে অপরাজিত থাকেন শুভাগত হোম। বরিশালের সফল বোলার কামরুল ৩ উইকেট নেন ৩৩ রানে, ২ উইকেট নিতে তাসকিন খরচ করেছেন ৪৪ রান। একটি উইকেট পেয়েছেন তানভির।
জয়ের জন্য ১৭৪ রানের বড় লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নামা বরিশাল দারুণ শুরু পায় অধিনায়ক তামিম আর পারভেজ হোসেন ইমনের ব্যাটে। ৫৭ রানের জুটি ভাঙে ১৯ রান করা ইমনের বিদায়ে। এই তরুণকে বোল্ড করেন শুভাগত। একই ওভারে তিনি ফেরান ৪টি চার আর ১টি ছক্কায় ২১ বলে ৩২ রান করা তামিমকেও। এরপর দ্রæত বিদায় নেন আফিফ হোসেন (৩)। ম্যাচ জয়ের ক্ষেত্রে খুলনা শিবিরে যে সামান্য শঙ্কা ছিল, সেটা দূর হয়ে যায় তখনই।
দলের ঝুলিতে সর্বোচ্চ ৩৩ রানের জোগানদাতা তৌহিদ হৃদয় এরপর কিছুটা চেষ্টা চালিয়েছেন, কিন্তু ইরফান শুক্কুর (১৬), মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনরা (১০) ফের ব্যর্থ হওয়ায় তার সেই চেষ্টা বৃথা গেছে। বরিশাল তাদের শেষ ৬ উইকেট হারায় মাত্র ৪ রানের ব্যবধানে! তাতেই বড় হার নিশ্চিত হয়, অবশ্য ম্যাচে তাদের হার লেখা হয়ে গিয়েছিল অনেক আগেই।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]