ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১ ৬ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১

তারুণ্যের ভাবনা
২১’হোক দৃষ্টিভঙ্গি বদলানোর
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০, ৭:৩৯ পিএম আপডেট: ৩১.১২.২০২০ ৮:৩৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 294

‘২০২০’ কে বিদায় জানিয়ে এসেছে নতুন বছর। নতুন বছরে তারুণ্যের চোখে ভাসছে নতুন নতুন পরিকল্পনা। গত বছরের পাওয়া না-পাওয়ার স্মৃতিকে ঝেড়ে ফেলে নতুন আশায় বুক বেঁধেছে বিশ্ববাসী। সেই ভাবনায় পিছিয়ে নেই আমাদের তরুণেরাও। মাদক ও দুর্নীতিমুক্ত সমাজ, তরুণবান্ধব পরিবেশ, যথেষ্ট কর্মসংস্থান, শিক্ষার মানের উন্নয়ন তথা দেশকে উন্নতির পথে এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সব বিষয়ই আছে তাদের চাহিদার তালিকায়। নতুন বছরে তাই সড়কে নিরাপত্তা, যোগ্যতা অনুযায়ী কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি কিংবা সমাজের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন, তথা তরুণবান্ধব সমাজ বা দেশ চায় এই তরুণেরা। আর তাদের এই সকল চাওয়ার পেছনে কাজ করছে একটাই ভাবনা, দেশের মাটিতে নিরাপদ ভবিষ্যৎ। নতুন বছর ২০২১ নিয়ে তরুণদের ভাবনা তুলে ধরা হলো এই লেখায়।

বেকারমুক্ত দেশ গড়ার স্বপ্ন 
মোঃ ফয়সাল ইসলাম মানিক (শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় )
একটি দেশের উন্নয়নের পেছনে যদি পাঁচটি নির্দিষ্ট খাত থাকে তাহলে ওই পাঁচটি খাতের মধ্যে সেই দেশের মানুষের কর্মসংস্থান একটি। কারণ, একটি দেশের অর্থনীতি তখনই শক্তিশালী হয় যখন সেই দেশের ৮০ শতাংশ মানুষের নির্দিষ্ট কর্মসংস্থান থাকে।করোনাভাইরাস সারা দুনিয়ার অর্থনীতিতে যে ধস নামিয়েছে তা দু’টি মহাযুদ্ধের সময়ও অনুভূত হয়নি। বাংলাদেশের প্রায় ১০ কোটি ২২ লাখ মানুষের আয় কমে গেছে৷ আর পরিবার হিসেবে আয় কমেছে শতকরা প্রায় ৭৪ ভাগ পরিবারের। বর্তমান বিশ্বে শিক্ষিত গ্র্যাজুয়েটদের চাহিদার তুলনায় কর্মসংস্থানের সুযোগ খুবই অপ্রতুল। যা অর্থনৈতিক ও সামাজিক অবক্ষয়ের চালক। বেকারমুক্ত বাংলাদেশই হতে পারে ২০২১ সালের চালিকাশক্তি, যা দেশকে অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাবে।


ক্ষুধামুক্ত দেশ গড়ার স্বপ্ন 
নিফাত সুলতানা মৃধা (শিক্ষার্থী, সরকারি তিতুমীর কলেজ,ঢাকা)
ক্ষুধার্তকে খাবার দেওয়া পুণ্যের কাজ-সহানুভূতি ও মানবিকতার পরিচয়। বিবেকবান মানুষমাত্রই এটি  উপলব্ধি করেন। তবে ইচ্ছা ও সংকল্পের অভাবে এ আমল অনেক সময় অবহেলিত রয়ে যায়। ভয়াল করোনার থাবা অসংখ্য মানুষের দুবেলার মুখের অন্ন কেড়ে নিয়েছে। বাদ যায়নি রাস্তায় চলাফেরা করা অবলা প্রাণীগুলো-ও। তবে বিশ্বকে ক্ষুধামুক্ত করে দারিদ্র্যের অভিশাপ থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলো প্রতিবছর ১৬-ই অক্টোবর তারিখে “বিশ্ব খাদ্য দিবস” আন্তরিকতা ও গুরুত্বের সাথে পালন করে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও ক্ষুধামুক্ত বিশ্ব গড়তে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই আমি স্বপ্ন দেখি ২০২১ হোক ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলা । তাই আমি স্বপ্ন দেখি ২০২১ হোক ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলা । 


নিরক্ষর মুক্ত দেশ গড়ার স্বপ্ন
মোঃ মেহেদী হাসান সম্রাট (শিক্ষার্থী, প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় )
দারিদ্র্যের সঙ্গে শিক্ষার সম্পর্ক বিপরীতধর্মী ও দ্বান্দ্বিক। সাধারণভাবে চারদিকে তাকালেই এর সত্যতা চোখে পড়ে। আমরা দেখতে পাই, যে মানুষেরা দরিদ্র তারা অধিকাংশই হয় নিরক্ষর না হয় স্বল্পশিক্ষিত। শিক্ষা যত কম দারিদ্র্য তত বেশি। তবে ব্যতিক্রম হিসেবে আমরা স্বল্পশিক্ষিত কিছু ধনী লোককেও দেখতে পাব, যারা দরিদ্র নয়। কিন্তু তাদের এই প্রাচুর্যের পেছনেও তাদের কোনো না কোনো মানসিক শিক্ষা সক্রিয় ছিল। জ্ঞান বিজ্ঞানে বিশ্বব্যাপী যে প্রতিযোগিতা চলছে,সেখানে শিক্ষাহীন কোন জাতির স্থান নেই। ব্যাক্তিজীবন,পারিবারিক জীবন, সামাজিক জীবনসহ জাতীয় জীবনে শিক্ষা মানুষকে সত্য-মিথ্যা, ন্যায়-অন্যায়, বিচার-বিশ্লেষণ করতে শেখায়। এক কথায় মনের পরিপূর্ণ বিকাশ ঘটায়। শিক্ষার আলো ছাড়া কোন জাতির পক্ষে বেশিদিন টিকে থাকা সম্ভব না। কারণ শিক্ষাই জাতির উন্নতির নির্ভরযোগ্য পথ।


২০২১-এ মানবতাবোধ জাগ্রত হোক সবার মাঝে
ফারিয়া আক্তার (শিক্ষার্থী, কিশোরগঞ্জ নার্সিং ইনস্টিটিউট, কিশোরগঞ্জ )
নতুন বছরে মনুষ্যত্ববোধ এর সূচনা হোক সকল মানুষের মধ্যে। যাতে করে দেশ ও জাতির সকলে একে অপরের দুঃখে-কষ্টে পাশে থাকতে পারে। যেন আর কেউ বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু বরন না করে।যেন আর কেউ টাকার অভাবে স্কুলের ব্যাগ ফেলে রাস্তায় ইট না ভাঙ্গে।যেন কোনো বাবা-মার কোল অবেলায় খালি না হয়। প্রতিটি মানুষ যেন অনাহারে দিন পার না করে। আমাদের মানবতাই পারে তাদের মুখে একটুখানি হাসি ফোটাতে। আমার স্বপ্ন ২০২১-এ হোক সকলের হৃদয়ে "মানবতার উৎপত্তি"।


২০২১ হোক মাদকমুক্ত দেশ
মোঃ আরমান মিয়া (শিক্ষার্থী,ঢাকা কলেজ)
বর্তমান তরুণরাই ভবিষ্যৎ দেশ পরিচালনাকারী। তাই মাদক দ্বারা তরুণ প্রজন্ম প্রভাবিত হলে সমাজও সমান ভাবে প্রভাবিত হয়। প্রথমত মাদকাসক্ত তরুণের পরিবার সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হয়। মাদকাসক্ত ব্যক্তির স্বাভাবিক জৈবিক কার্যকলাপ ব্যাহত হওয়ার দরুন পরিবারে অশান্তির মেঘ নেমে আসে। অনেক সময় আসক্ত বেকার তরুণ মাদকের অর্থ জোগাড় করার জন্য চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতির মতো অসাধু কাজেও প্রবৃত্ত হয়। মাদকের আগ্রাসন থেকে যদি তরুণ সমাজকে না বাঁচনো যায়, তাহলে সবই শেষ হয়ে যাবে। সেজন্য সরকার তরুণদের কথা মাথায় রেখে মাদকবিরোধী অভিযান আরো জোরদার করবে, এই আমার ২০২১ এর চাওয়া।


২০২১ হোক দুর্নীতি নির্মলের অংশীদার
সুমাইয়া আক্তার (শিক্ষার্থী, ইডেন মহিলা কলেজ )
দুর্নীতি জাতীয় জীবনের এক বিড়াট অভিশাপ।একটি জাতির আশা-আকাঙ্ক্ষার বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে দুর্নীতি মারাত্মক প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। সত্য ও ন্যায়ের পথই হচ্ছে আসল পথ।কিন্তু সেই পথকে পরিহার করে কোনো মানুষ যদি মিথ্যাকে আঁকড়ে ধরে ,যদি দুর্নীতি গভীরে নিমজ্জিত হয় তাহলে জাতীয় উন্নয়নের আর কোনো সম্ভাবনা থাকে না। কোনো জাতির জীবনে যদি দুর্নীতি প্রবেশ করে তবে সেখানে যে স্বার্থের লীলা চলে তাতে জাতীয় উন্নতির সকল দুয়ার রুদ্ধ হয়ে যায়। তাই ২০২১ যেন দুর্নীতিমুক্ত দেশ হয় সেই আশাই আমি ব্যক্ত করি।

লেখা : মামুনূর রহমান হৃদয় 
শিক্ষার্থী : সরকারি তিতুমীর কলেজে, ঢাকা




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]