ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ ১৩ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার  বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১

জাবি ছাত্রলীগে বিকলাঙ্গ দশা!
সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ছাড়াই চলছে ছাত্রলীগ
জাকির হোসেন জীবন, জাবি প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২১, ৭:০৯ পিএম আপডেট: ০৮.০১.২০২১ ১১:৪২ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 583

দীর্ঘদিন যাবত অভিভাবকহীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শাখা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ছাত্রলীগ। বাংলাদেশের একমাত্র আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় খ্যাত, এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রলীগ চলছে সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক ছাড়া।

দেড় বছর আগে পদত্যাগ করে ক্যাম্পাস ছেড়েছেন,বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল। মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েও হল কমিটি দিতে ব্যর্থতা,ক্ষমতা কুক্ষিগত করা, নেতৃত্ব না ছাড়া সহ একাধিক অভিযোগে, গত বছরের শুরুতে সভাপতি জুয়েল রানাকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ টি হলের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হল কমিটির পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের তোপের মুখে গত বছরের প্রথম দিকেই রাতের আধারে ক্যাম্পাস ছাড়েন বর্তমান কমিটির সভাপতি জুয়েল রানা। এরপর থেকে জাবি ছাত্রলীগে নেই কোন সুশৃঙ্খল নেতৃত্ব। প্রতিটি হলের নেতাকর্মীরা বিক্ষিপ্তভাবে পালন করছেন কেন্দ্রের কর্মসূচি। প্রতিটি হলে একজন/দুইজন নেতৃত্ব দিলে ও তাদের নেই কোন সাংগঠনিক পরিচয়। বিশ্ববিদ্যায়ে দীর্ঘদিন রাজনীতি করে ও পদ পদবী,সাংগঠনিক পরিচয় ছাড়াই ক্যাম্পাস ছাড়তে হ্েচ্ছ অসংখ্য নেতাকর্র্মী। এ নিয়ে জুয়েল চঞ্চলের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় কমিটির ওপর রয়েছে তাদের  চাপা ক্ষোভ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা বলেন,এত বছর সময় দিলাম, প্রাপ্তির খাতা শূন্যই রয়ে গেলো। কোন পদ পদবী ছাড়াই ক্যাম্পাস ছাড়তে হচ্ছে এর থেকে দুঃখজনক আর কি হতে পারে?

২০১৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর জুয়েল রানাকে সভাপতি ও আবু সুফিয়ান চঞ্চলকে সাধারণ সম্পাদক করে ঘোষিত কমিটি মেয়াদ উর্ত্তীণ হয়েছে প্রায় তিন বছর। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাজনীতির প্রাণকেন্দ্র হল গুলোতে কমিটি না দিতে পারার ব্যর্থতা বর্তমান ছাত্রলীগের এই বিশৃঙ্খল অবস্থা বলে সময়ে আলো কে জানান, জাবি ছাত্রলীগের একাধিক নেতাকর্মী।

এ বিষয়ে বর্তমান কমিটির সভাপতি মোঃ জুয়েল রানা বলেন, জাবি ছাত্রলীগ বর্তমানে যেভাবে চলছে তা দুঃখজনক। ক্যাম্পাসে দীর্ঘ সময় সাধারণ সম্পাদকের অনুপস্থিতি সব হলে সাধারণ সম্পাদকে ম্যান খোজে না পাওয়ার কারনেই হল কমিটি দেওয়া সম্ভব হয়নি। হল কমিটি দিতে নিজের ব্যর্থতার পাশাপাশি জাবি ছাত্রলীগে বর্তমান তার কোন নিয়ন্ত্রণ নেই বলে স্বীকার করেন তিনি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও আসন্ন কমিটিতে সভাপতি পদপ্রার্থী আকলিমা আক্তার এশা বলেন, ক্যাম্পাসে দীর্ঘদিন রাজনীতি করে ও পদ বঞ্চিত বন্ধুদের জন্য খারাপ লাগে। হলে পদ পাবে এ জন্য অনেকেই জাবি ছাত্রলীগে পদ পায়নি। এ সকল ত্যাগী নেতা কর্মীদের পদ বঞ্চিত রাখার সম্পূর্ণ দায়, জাবি ছাত্রলীগের পদত্যাগী সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল ও বিতাড়িত সভাপতি জুয়েল রানার। দ্রুত কমিটি দেওয়ার জন্য আমরা জাবি ছাত্রলীগ সম্মিলিত ভাবে কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ রাখছি ও দাবি জানাচ্ছি।

জাবি ছাত্রলীগের উপ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক ,মীর মশারফ হোসেন হল ছাত্রলীগ নেতা ও আসন্ন কমিটির আরেক সভাপতি পদপ্রার্থী ইসমাইল হোসেন বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ আমাদের আশ্বস্ত করেছেন,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলে দিলে অগ্রধিকার ভিত্তিতে জাবি ছাত্রলীগের কমিটি দেওয়া হবে। বর্তমান কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক না থাকলে ও আমরা আমাদের নেতা কর্মী নিয়ে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির পাশাপাশি, নানা ধরণের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি।

কবে নাগাদ কাটতে পারে জাবি ছাত্রলীগের এই বিকলঙ্গ দশা! জানতে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভূট্টাচার্যকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ও তারা কেউ ফোন ধরেননি। 




এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]