ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১ ১ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১

সহকর্মীদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার
মাদকসেবীদের কোনো জায়গা হবে না পুলিশে
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:৩৭ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 14

নিজস্ব প্রতিবেদক
মাদকসেবীদের কোনো জায়গা পুলিশ বাহিনীতে হবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। বুধবার রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ডিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।
পুলিশ কমিশনার বলেন, মাদক নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি তৎপর হতে হবে। মাদক শুধু উদ্ধার করলে হবে না, এর ‍রুট পর্যন্ত যেতে হবে। প্রযুক্তিগত পদ্ধতি প্রয়োগের পাশাপাশি ম্যানুয়েল সোর্স নিয়োগের মাধ্যমে বস্তিগুলো মাদকমুক্ত করতে হবে। মাদকসেবীদের চিহ্নিত করে তাদের মা-বাবা, অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলতে হবে। তারা যেন সুপথে ফিরে আসতে পারে, তার জন্যও কাজ করতে হবে। সভায় উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, শুধু পাহারা দিয়ে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের গ্রেফতার করতে হবে। আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে আরও বেগবান করতে হবে। এর মাধ্যমে প্রচুর তথ্য পাওয়া যায়, যা সমাজে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
বুধবার গত ডিসেম্বর মাসের অপরাধ পর্যালোচনা সভায় উত্তম কর্মসম্পাদনের পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা বা সদস্যদের পুরস্কৃত করা হয়। ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (সিটিটিসি) মো. মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (লজিস্টিকস, ফিন্যান্স অ্যান্ড প্রকিউরমেন্ট) ড. এএফএম মাসুম রব্বানী, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন্স) কৃষ্ণপদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) একেএম হাফিজ আক্তার, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার ও উপপুলিশ কমিশনারসহ অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।
এই মাসিক সভায় গত ডিসেম্বর মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপির আটটি ক্রাইম বিভাগের মধ্যে প্রথম হয়েছে মিরপুর বিভাগ। ডিএমপির ক্রাইম বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনারদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন মিরপুর বিভাগের মিরপুর জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার এমএম মঈনুল ইসলাম। অফিসার ইনচার্জদের (ওসি) মধ্যে প্রথম হয়েছেন কদমতলী থানার ওসি জামাল উদ্দিন মীর। পুলিশ পরিদর্শকের (তদন্ত) মধ্যে প্রথম হয়েছেন যাত্রাবাড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. শাহীনুর রহমান। পুলিশ পরিদর্শকের (অপারেশন্স) মধ্যে প্রথম হয়েছেন আদাবর থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. ফারুক মোল্লা। যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ এসআই নির্বাচিত হয়েছেন পল্লবী থানার এসআই মো. শরীফুল ইসলাম ও কোতোয়ালি থানার এসআই পাভেল মিয়া। যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ এএসআই নির্বাচিত হয়েছেন ওয়ারী থানার এএসআই মো. নুর ইসলাম ও মতিঝিল থানার এএসআই হেলালউদ্দিন।
এ ছাড়া ৯টি গোয়েন্দা বিভাগের মধ্যে প্রথম হয়েছে গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগ। সার্বিকভাবে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার এবং মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার নির্বাচিত হন ডিএমপির ডিবি গুলশান বিভাগের এডিসি মো. গোলাম সাকলায়েন, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার, গুলশান জোনাল টিম, ডিবি গুলশান। ডিবি লালবাগ বিভাগের এসি মধুসূদন দাস চোরাই গাড়ি উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার, অজ্ঞান ও মলমপার্টি গ্রেফতারে শ্রেষ্ঠ টিম লিডার নির্বাচিত হন ডিবি রমনার এডিসি তরিকুর রহমান। আটটি ট্রাফিক বিভাগের মধ্যে প্রথম হয়েছে ট্রাফিক লালবাগ বিভাগ। এর মধ্যে শ্রেষ্ঠ এসি (কোতোয়ালি ট্রাফিক জোন) বিমানকুমার দাস, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (কোতোয়ালি জোন) কাজী আমিনুল ইসলাম, শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট যৌথভাবে সার্জেন্ট মো. রোকনুজ্জামান (শাহবাগ ট্রাফিক জোন) ও সার্জেন্ট আব্দুল কাদের (মোহাম্মদপুর ট্রাফিক জোন)। এ ছাড়াও ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ডিএমপির বিভিন্ন পদমর্যাদার ৫৮ কর্মকর্তাকে ও বিট পুলিশিং কার্যক্রম সংক্রান্তে পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত করেন ডিএমপি কমিশনার।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]