ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ৪ মাঘ ১৪২৭
ই-পেপার সোমবার ১৮ জানুয়ারি ২০২১

আদালতে আসেননি সাবেক  এমপি বদি, হয়নি শুনানি
উখিয়া (কক্সবাজার)
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১০:৫৬ পিএম আপডেট: ১৪.০১.২০২১ ১১:১৮ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 12

উখিয়া-টেকনাফ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে নিজের বাবা দাবি করে এক যুবকের করা মামলার দিন ধার্য্য থাকলেও শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি। মামলায় জারি করা সমনের চিঠি আদালতে ফেরত না আসায় শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি বলে দাবি করেছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী।
মামলার মূল আসামি বদিও আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। বৃহস্পতিবার এ মামলার শুনানির দিন ছিল। মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী জানান, মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে আদালত কর্তৃক ইস্যু করা সমনপত্র এখনও ফেরত আসেনি। তাই মামলার নির্ধারিত দিনে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি। যেহেতু সমনপত্র ফেরত আসেনি সেহেতু আসামি সময় পেয়েছেন। জারি করা সমনপত্র ফেরত আসার পর আদালতের পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানা যাবে বলে মন্তব্য করেন বাদীপক্ষের এ আইনজীবী।
অপরদিকে মামলার বাদী মোহাম্মদ ইসহাক জানান, মামলা করার পর তিনি নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন। উল্লেখ্য, গত ১৩ ডিসেম্বর টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালী পাড়ার ২৭ বছর বয়সি যুবক মোহাম্মদ ইসহাক কক্সবাজার-০৪ আসনের (উখিয়া-টেকনাফ) সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদিকে নিজের বাবা দাবি করে টেকনাফের সহকারী জজ আদালতে মামলা করেন। মামলায় বদি ছাড়াও মূল বিবাদী করা হয়েছে বদির চাচা টেকনাফের 
পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলামকে। ওইদিন মামলাটি আমলে নিয়ে মূল বিবাদী আব্দুর রহমান বদিসহ বিবাদীদের ১৪ জানুয়ারি সশরীরে উপস্থিত হয়ে জবানবন্দি দেওয়ার আদেশ দিয়েছিলেন।
মোহাম্মদ ইসহাক তার মামলায় দাবি করেন, গত ৩০ বছর আগে টেকনাফ পৌরসভার ইসলামাবাদ ধুমপাড়ার বাসিন্দা আবুল বশরের মেয়ে সুফিয়া খাতুনকে সাবেক সংসদ সদস্য বদি গোপনে বিয়ে করেন। বাদী তার মায়ের পেটে আসার খবর জানতে পেরে তাকে পেটে থাকতে হত্যার চেষ্টা চালান বদি। তাতে সফল না হয়ে সুফিয়াকে স্থানীয় এক রাজ মিস্ত্রির সঙ্গে বিয়ে দেওয়া হয়। এ সময় সুফিয়ার পেটে বাচ্চা থাকার কথা গোপন রাখা হয়। পরে জানতে পেরে সেই স্বামী সব মেনে নিয়ে সংসার করেন। এরপরও বাচ্চাসহ সুফিয়াকে হত্যার চেষ্টা করত বদির পরিবার। এ জন্য তারা প্রায় সময় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পালিয়ে জীবন ধারণ করেন। এসব বিষয় উল্লেখ করে সুফিয়া সাংবাদিকদের সাক্ষাৎকারও দিয়েছেন। তাদের দাবি ইসহাক বদির সন্তান, তাকে যেন মেনে নিয়ে সন্তানের মর্যাদা দেওয়া হয়। বাদী ও তার মায়ের দাবি অনুসারে আব্দুর রহমান বদির প্রথম সন্তান ইসহাক। তার অবয়ব, আচরণ সবকিছু বদির অবিকল কপি বলে উল্লেখ করেছেন ওয়াকিবহাল মহল।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]