ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

রিংকি-জহিরের দিন
প্রকাশ: রোববার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:০৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 17

ক্রীড়া প্রতিবেদক
জাতীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপের ৪৪তম সংস্করণের দ্বিতীয় দিনটা নিজেদের করে নিয়েছেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর দুই অ্যাথলেট রিংকি বিশ^াস আর জহির রায়হান। শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের ট্র্যাকে তিন হাজার মিটার দৌড়ে জাতীয় রেকর্ড গড়েছেন রিংকি। সময় নিয়েছেন ১০:৪৩:৩০ মিনিট। তাতেই পেছনে পড়ে গেছে ২০০৩ সালে হালিমা খাতুনের ১১:০৫:১৫ মিনিটে তিন হাজার মিটার দৌড় শেষ করার রেকর্ড। অন্যদিকে ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে জহির ছুঁয়েছেন ৩০ বছর আগের রেকর্ড (হ্যান্ড টাইমিংয়ের হিসাবে)।
বছর চারেক ধরেই ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে জহিরের রাজত্ব চলছে। শনিবার তো নিজেকেই ছাড়িয়ে গেলেন। সোনা জিতেছেন ৪৭.২০ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে। তাতেই মেহেদী হাসানের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন তিনি। ১৯৯১ সালে মেহেদীও ৪০০ মিটার সম্পন্ন করেছিলেন ৪৭.২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে। তবে এর থেকেও কম সময়ে দৌড় শেষ করার কীর্তি আছে জহিরের। ২০১৯ সালে তিনি দৌড় শেষ করেছিলেন ৪৬.৮৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে। সেবার ইলেক্ট্রনিক টাইমার ব্যবহার করা হয়েছিল।
রেকর্ড ছোঁয়ার পর জহির বলেছেন, ‘জাতীয় পর্যায়ে হ্যান্ড টাইমিংয়ের ক্ষেত্রে এটাই আমার ক্যারিয়ারসেরা। ইভেন্ট শুরুর আগে টাইমিং ভালো করার চিন্তা ছিল মাথায়। কারণ অলিম্পিক। ছোট থেকেই আমার স্বপ্ন বিশে^র সব থেকে বড় ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া। করোনার কারণে সেভাবে অনুশীলনের সুযোগ-সুবিধা পাইনি। যতটুকু পেরেছি নিজের চেষ্টায় অনুশীলন করেছি।’ জহিরের চোখ এখন এসএ গেমস আর এশিয়ান গেমসে পদক জয়ের দিকে, ‘আগামী এসএ গেমসে স্বর্ণজয়ই আমার লক্ষ্য। এ ছাড়া অলিম্পিকে অংশ নিয়ে দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনতে চাই। করতে চাই ক্যারিয়ারের সেরা টাইমিং।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘এশিয়ান গেমস থেকেও একটি পদক জিততে চাই। এজন্য আমাকে ৪৫ সেকেন্ডের মধ্যে দৌড় শেষ করতে হবে। বিদেশে গিয়ে উন্নত ও দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ পেলে এটা অবশ্যই সম্ভব।’
৪০০ মিটার স্প্রিন্টে মেয়েদের বিভাগে সোনা জিতেছেন নৌবাহিনীর সাবিয়া আল সোহা (৫৮.৬০ সেকেন্ড)। মেয়েদের ১০০ মিটার হার্ডলসে স্বর্ণ জিতেছেন নৌবাহিনীর তামান্না আক্তার (১৪.৬০ সেকেন্ড), ছেলেদের ১১০ মিটারে সেনাবাহিনীর মির্জা হাসান (১৪.৮০ সেকেন্ড)। দিনের প্রথম ইভেন্ট মেয়েদের লংজাম্পে প্রথম হয়েছেন সেনাবাহিনীর সোনিয়া আক্তার (৫.৭৭ মিটার), ছেলেদের বর্শা নিক্ষেপে প্রথম হয়েছেন একই বাহিনীর মনিরুজ্জামান (৬১.২৫ মিটার)। বর্শা নিক্ষেপে মেয়েদের বিভাগের স্বর্ণও গেছে সেনাবাহিনীর ঝুলিতে। পাপিয়া আক্তার প্রথম হয়েছেন ৪০.১৯ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করে। হ্যামার থ্রোতে সেরা হয়েছেন নৌবাহিনীর মাহফুজ হাসান (৫০.৮১ মিটার)। ছেলেদের লংজাম্পে প্রথম হয়েছেন একই বাহিনীর আল আমিন (৭.০৪ মিটার)। ৩ হাজার মিটার স্টেপল চেজে প্রথম হয়েছেন সেনাবাহিনীর সোহেল রানা (১০:১৭:৯০ মিনিট)।
দ্বিতীয় দিন শেষে ১২ স্বর্ণ, ৮ রৌপ্য ও ৯ ব্রোঞ্জ নিয়ে পদক তালিকার শীর্ষে আছে নৌবাহিনী। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সেনাবাহিনীর পদক ৯ স্বর্ণ, ১৪ রৌপ্য ও ৬ ব্রোঞ্জ।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]