ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ওয়ানডে দলে তিন চমক
প্রকাশ: রোববার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:০৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 22

ক্রীড়া প্রতিবেদক
ওয়ানডে দলে নতুন মুখ দেখা যেতে পারে, এমন আভাস আগেই দিয়ে রেখেছিলেন প্রধান নির্বাচক। তবে একসঙ্গে তিনজন আনকোড়া খেলোয়াড় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজের দলে সুযোগ পাবে, এমনটা ভাবেননি কেউ। তাই হাসান মাহমুদ, শেখ মেহেদী হাসান আর শরিফুল ইসলামের অন্তর্ভুক্তি কিছুটা চমক হয়েই এসেছে। শেখ মেহেদী আর হাসানের তবু দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি খেলার অভিজ্ঞতা আছে, শরিফুলের সেটাও নেই। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ^কাপজয়ী দলের বাঁহাতি এই পেসার অবশ্য প্রতিভার ঝলক দেখিয়েই জাতীয় দলে ঢুকে পড়েছেন।
সবশেষ সিরিজটি বাংলাদেশ খেলেছিল গত বছরের মার্চে, সেই সিরিজটি খেলেই ওয়ানডের নেতৃত্ব ছেড়েছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। ২০২৩ বিশ^কাপ পরিকল্পনায় না থাকায় ডানহাতি এই পেসারকে এবার প্রাথমিক স্কোয়াডেই রাখেননি নির্বাচকরা। তবে আগের সিরিজে খেলা আল আমিন হোসেন, শফিউল ইসলাম, নাইম শেখরা ছিলেন প্রাথমিক দলে, কিন্তু চূড়ান্ত দলে ঠাঁই হয়নি। অন্যদিকে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান, টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার, ডানহাতি পেসার রুবেল হোসেন। কদিন আগে অনুশীলনে আঙুলে চোট পাওয়া তাসকিন আহমেদও ফিরেছেন দলে। শনিবার দ্বিতীয় অনুশীলন ম্যাচেও খেলেছেন তিনি।
২৪ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণার পরই নির্বাচকরা জানিয়ে রেখেছিলেন, চূড়ান্ত দল দেওয়ার আগে দুটো অনুশীলন ম্যাচের পারফরম্যান্স বিবেচনায় নেবেন তারা। হাসান, শরিফুল সেই বিবেচনাতেই দলভুক্ত হয়েছেন। অন্যদিকে শেখ মেহেদী জায়গা পেয়েছেন সম্প্রতি অতীতে ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলোয় ব্যাট এবং বল হাতে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স দেখিয়ে। কিন্তু দুর্ভাগ্য নাইম শেখের। দুটো অনুশীলন ম্যাচেই দারুণ ব্যাটিং করেছেন বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান। আগের ম্যাচে ৪৩ রান করার পর শনিবারও ৫০ রানের ইনিংস খেলেছেন। কিন্তু দলে টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানদের আধিক্যে কপাল পুড়েছে তার।
প্রাথমিক দল থেকে ছয়জনকে ছেঁটে ফেলে ১৮ সদস্যের বড়সড় দলই দিয়েছেন নির্বাচকরা। সাধারণত ১৪ থেকে ১৫ জনেই চূড়ান্ত দল সীমাবদ্ধ থাকে। এবার সেখানে বাড়তি খেলোয়াড় নেওয়ার কারণ ব্যাখ্যায় করোনাকালীন বাস্তবতাকেই সামনে টেনেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, ‘১৮ জনের স্কোয়াড। কোভিড পরিস্থিতি মাথায় রেখেই আমরা স্কোয়াডটা বড় করেছি। দরকার আছে। কারণ কে কখন অসুস্থ হয়, আসলে এই চিন্তা করেই স্কোয়াডটা বড় করেছি।’ বর্ধিত স্কোয়াডে কম্বিনেশনটাও ভালো হয়েছে বলে দাবি করলেন তিনি, ‘এখানে সব ধরনের কম্বিনেশন রাখা হয়েছে। পেস বোলিং, স্পিনÑ যখন যে প্ল্যানটা দরকার হবে, যে ম্যাচটায় দরকার হবে, তখনই রিপ্লেস করা হবে। টিমের কম্বিনেশন যথেষ্ট ভালো। ব্যাটিং-বোলিং, সবদিক দিয়েই একটা ভারসাম্য রাখা হয়েছে।’
তিন তরুণ হাসান, শরিফুল আর শেখ মেহেদীকে দলভুক্ত করার ব্যাখ্যায় ভবিষ্যতের ভাবনাকে সামনে টেনেছেন প্রধান নির্বাচক। তিনি পরিষ্কার করেই জানিয়ে দিয়েছেন, ২০২৩ বিশ^কাপের দল গঠন পরিকল্পনার অংশ এটি, ‘আমরা তিনজন আনক্যাপড দিয়েছি। এটা পরিকল্পনার অংশ। এই সিরিজ থেকেই আমরা শুরু করছি। ওদের তৈরি করা এবং টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে রেখে কাজ করানোর জন্যই এই তিনজন আনক্যাপড রাখা হয়েছে। সবকিছু মিলিয়েই আমি মনে করি, আমাদের পরিকল্পনার প্রথম ধাপ শুরু হলো এই সিরিজ থেকে।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘২০২৩ ওয়ানডে বিশ^কাপ আছে, সেটারই একটা পরিকল্পনা আছে। আমরা আপাতত সিরিজ বাই সিরিজ এগিয়ে যাব। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ দিয়েই তা শুরু হচ্ছে। আশা করি, এই সিরিজে আমরা ভালো ক্রিকেট উপহার দিতে পারব।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]