ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১ ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১

চট্টগ্রাম ক্যাবের বিবৃতি
ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা কমিটির জবাবদিহি নিশ্চিতের দাবি
প্রকাশ: রোববার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:২০ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 27

নিজস্ব প্রতিবেদক
বৈশি^ক মহামারি করোনার ভ্যাকসিন বিতরণে স্বচ্ছতা নিশ্চিতে দেশব্যাপী ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন ও এর কার্যক্রমে জবাবদিহি নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব)। এ ছাড়া সংস্থাটি ভ্যাকসিনের স্থানীয় চাহিদা ভিত্তিতে করণীয় নির্ধারণ, বিতরণের তালিকা প্রণয়নে স্বচ্ছতা এবং কমিটিতে ভোক্তাদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করারও দাবি জানিয়েছে সংস্থাটি। শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ক্যাবের কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এসএম নাজের হোসাইন, ক্যাব চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, ক্যাব মহানগরের সভাপতি জেসমিন সুলতানা পারু, সাধারণ সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, যুগ্ম সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম ও ক্যাব চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সভাপতি আলহাজ আবদুল মান্নান ওই দাবি জানান।
বিবৃতিতে ক্যাব নেতারা বলেন, করোনায় লকডাউন চলাকালে সরকার জেলা-উপজেলা পর্যায়েও কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের নির্দেশ দিলে স্থানীয় প্রশাসন তাদের নিজেদের অনুগত, পোষ্য ও সমর্থকদের নাম দিয়ে কমিটির তালিকা তৈরি করে সরকারের ঊর্ধŸতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠায়। কার্যত এ কমিটি কাগজ-কলমেই সীমাবদ্ধ ছিল। লকডাউন চলাকালে ত্রাণ, স্বাস্থ্য সুরক্ষা, চিকিৎসা, প্রণোদনাসহ করোনা মহামারি প্রতিরোধ কার্যক্রমে এই কমিটির কোনো তৎপরতা, কার্যক্রম গ্রহণ বা কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল কি না জানা যায়নি। আর কমিটির সভাপতি নিজে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোক দেখিয়ে সদস্য নিয়োগের উদ্দেশ্য হলো সভাপতির নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করা। সে কারণে অনেকে নিজের সন্তান, স্ত্রী ও আত্মীয়-স্বজনকে এসব কমিটিতে বিভিন্ন পেশার প্রতিনিধি বানিয়ে কমিটি গঠন করেন। এর চূড়ান্ত পরিণতি কমিটি কাগজেই সীমিত থাকে।
বিবৃতিতে নেতারা অভিযোগ করে বলেন, করোনার ভ্যাকসিন বিতরণে ফ্রন্টলাইনারের তালিকা প্রণয়ন ও প্রকৃতদের হাতে টিকা পৌঁছানো সম্ভব কি না তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। তাই সব ধরনের স্বজনপ্রীতি, প্রভাবমুক্ত হয়ে প্রকৃত যোগ্যদের প্রাপ্তি নিশ্চিতে যেকোনো মূল্যে অনিয়ম ও দুর্নীতি রোধে প্রযোজ্য আইন ও বিধি অনুসরণ এবং স্বচ্ছতা নিশ্চিতের দাবি জানান।
নেতারা আরও বলেন, করোনা একটি স্বাস্থ্য সমস্যা হলেও জেলা-উপজেলা পর্যায়ে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা বিগত এক বছরে কোনো সভা অনুষ্ঠান বা এ ব্যাপারে কোনো কার্যক্রম গ্রহণের প্রমাণ নেই। সে কারণে জেলা-উপজেলা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটি কার্যত মৃত। অথচ জেলা-উপজেলা পর্যায়ে জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যা চিহ্নিত করে সমস্যাগুলো সমাধানে স্থানীয় উদ্যোগে করণীয় নির্ধারণ এবং প্রয়োজনীয় বিষয়ে সরকারকে পরামর্শ দেওয়ার জন্য এই কমিটি গঠিত হলেও ফলাফল শূন্য। এখন সব বিষয়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ ও হস্তক্ষেপ ছাড়া কোনো সমস্যার সমাধান হচ্ছে না।
বিবৃতিতে ক্যাব নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভোক্তা সংরক্ষণ আইন-২০০৯ অনুসারে ক্যাব দেশের ভোক্তাদের প্রতিনিধিত্ব করছে এবং এফবিসিসিআই ও ওষুধ শিল্প সমিতি দেশের ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিত্ব করছে। জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সরকারি কমিটি গঠনের সময় ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধি হিসেবে বিভিন্ন চেম্বার ও এফবিসিসিআইয়ের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা হয়। অথচ ভোক্তাদের প্রতিনিধি হিসেবে সংশ্লিষ্ট কমিটির সভাপতির অনুগত ও পোষ্য একজনকে মনোনীত করা হয়। এ কারণে ভোক্তাদের সত্যিকারের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত হয় না। অনেক সময় কমিটিগুলো সরকারের বিভিন্ন বিভাগের দায়িত্বশীল লোকজন ও ব্যবসায়ীদের দেন-দরবারের আসরে পরিণত হয়।
ফলে সাধারণ ভোক্তাদের স্বার্থগুলো এখানে চরমভাবে উপেক্ষিত হয়। তাই জনস্বার্থ সংশ্লিষ্ট কমিটিগুলোয় ভোক্তাদের সত্যিকারের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা না হলে তৃণমূলে জবাবদিহি, সুশাসন ও ভোক্তা অধিকার সুরক্ষায় সরকারের উদ্যোগের সুফল পাবে না সাধারণ জনগণ।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]