ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ঘন কুয়াশায় ফেরি চলাচল ব্যাহত, মহাসড়কেও যানজট
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ১০:৪৩ পিএম আপডেট: ১৯.০১.২০২১ ১১:৩০ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 36

ঘন কুয়াশার কারণে মঙ্গলবার দেশের বিভিন্ন স্থানে ফেরি চলাচল ব্যাহত হয়েছে। সড়ক পথেও সৃষ্টি হয়েছে দীর্ঘ যানজট। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় যাত্রী ও চালকদের। দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পদ্মায় কুয়াশার ঘনত্ব কমে গেলে পুনরায় এ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়। এর আগে ঘন কুয়াশার কারণে সোমবার রাত আড়াইটা থেকে নৌদুর্ঘটনা এড়াতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে, ঘন কুয়াশায় পদ্মা নদীর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ৯ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার সকাল ৯টায় ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। এ ছাড়া ঘন কুয়াশা ও মহাসড়কের কাজ চলমান থাকায় সিরাজগঞ্জের ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে দীর্ঘ ৪০ কিমি যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ
দৌলতদিয়া-পাটুরিযা নৌরুট : দীর্ঘ সময় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া প্রান্তের সড়কে নদী পারের অপেক্ষায় সিরিয়ালে আটকা পড়ে অ্যাম্বুলেন্স, যাত্রীবাহী বাস, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, পণ্যবাহী ট্রাকসহ কয়েকশ যানবাহন। এ ছাড়া সিরিয়াল আটকে ও শীতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন যানবাহনের চালক ও যাত্রীরা। বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. খোরশেদ আলম জানান, সোমবার সন্ধ্যার পর থেকে পদ্মায় কুয়াশার ঘনত্ব বাড়তে থাকে। রাত আড়াইটার দিকে কুয়াশার ঘনত্বের কারণে নদী পথ অস্পষ্ট হয়ে ওঠায় নৌদুর্ঘটনা এড়াতে এ রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেন। কুয়াশার ঘনত্ব কমে আসায় মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পুনরায় ফেরি চলাচল শুরু হয়। বর্তমানে এ রুটে ছোট-বড় ১৬টি ফেরি চলাচল করছে। এখন সিরিয়ালে থাকা যানবাহনের চাপও দ্রুত কমে যাবে।
শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুট : ঘন কুয়াশায় পদ্মা নদীর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ৯ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার সকাল ৯টায় ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। নৌরুটে বর্তমানে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। ফেরি চলাচল শুরু হওয়ায় যাত্রী ও যানবাহন পারাপার স্বাভাবিক হয়েছে। বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) বিষয়টি সাফায়েত আহমেদ নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, কুয়াশা কেটে যাওয়ায় রাতে যানবাহন লোড করে রাখা ফেরিগুলো সকাল ৯টার দিকে ছেড়ে গেছে। মাঝ নদীতে আটকা পরা ফেরিগুলোও নিজ নিজ গন্তব্যে রওনা হয়েছে। এখন ফেরি চলাচল স্বাভাবিক। এর আগে নদীতে হঠাৎ সোমবার রাত ১২টার দিকে কুয়াশা পড়ায় দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় ঘাট কর্তৃপক্ষ। এ সময় পারাপাররত ৭টি ফেরি মাঝ পদ্মায় আটকা পরে। আর ঘাট এলাকায় আটকা পরে কয়েক শতাধিক পণ্য ও যাত্রীবাহী যানবাহন।
সিরাজগঞ্জ : ঘন কুয়াশা ও ফোরলেন মহাসড়কের কাজ চলমান থাকায় ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে অন্তত ৪০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। মহাসড়কের দুটি লেনেই হাজার হাজার গাড়ি দাঁড়িয়ে রয়েছে। তবে বিকল্প রাস্তা হিসেবে সিরাজগঞ্জ শহর হয়ে রায়গঞ্জ এবং সিরাজগঞ্জ শহর হয়ে কাজিপুর-ধুনট আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে কিছু কিছু যানবাহন চলাচল করছে। মঙ্গলবার সকাল থেকেই এ মহাসড়কে কখনও যানজট আবার কখনও ধীরগতিতে গাড়ি চলাচল করছিল। দুপুরের পর থেকে এর তীব্রতা বাড়তে থাকে ধীরে ধীরে যানজটের বিস্তৃতি বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম গোলচত্বর থেকে শুরু করে নলকা মোড়, হাটিকুমরুল গোলচত্বর হয়ে চান্দাইকোনা পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে।
মঙ্গলবার বিকালে সরেজমিনে ঝাঐল ওভারব্রিজ ও বাগবাড়ী, কোনাবাড়ী, নলকা এলাকায় গিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার দিনভরই এ মহাসড়কে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে যাত্রী সাধারণকে। হাজার হাজার যানবাহন ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। মাঝেমধ্যে কিছুটা ধীরগতিতে চলাচল করলেও বেশিরভাগ সময়ই যানজট লেগে ছিল। বিকাল থেকে যানজট আরও বেড়ে চলেছে। ঢাকা থেকে আসা বেসরকারি ওষুধ কোম্পানির গাড়ির চালক আব্দুল আলিম বলেন, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পার হয়েছি। সেখান থেকে ১৪ কিলোমিটার পথ আসতে ৪টা বেজে গেছে। শাহ ফতেহ আলী পরিবহনের যাত্রী জাহিদ ও সুমাইয়া বলেন, ঢাকা থেকে সিরাজগঞ্জে আসতে সর্বোচ্চ তিন ঘণ্টা সময় লাগত। সেখানে বঙ্গবন্ধু সেতু গোলচত্বর থেকে নলকা আসতেই সাড়ে তিন ঘণ্টা লেগেছে।
বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ওসি মোসাদ্দেক আলী বলেন, কুয়াশার কারণে ভোর থেকেই যানবাহন চলাচল ধীরগতি ছিল। তারপরেও মঙ্গলবার সকালে পাঁচলিয়া এলাকায় ও তারপর চান্দাইকোনায় দুটি দুর্ঘটনা ঘটে। এ কারণে যান চলাচলে বেশ কিছু সময় বিঘ্ন ঘটে। এ কারণে প্রচুর গাড়ি আটকে পরে ধীরে ধীরে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়াও ফোরলেন মহাসড়কের কাজ চলমান থাকায় কড্ডার মোড় এলাকায় সিঙ্গেল লেনে যান চলাচল করছে। এ কারণেও যানজটের তীব্রতা আরও বেড়ে গেছে। দিনভরই এমন সমস্যা ছিল। তবে যানজট নিরসনে পুলিশ নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]