ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ৭ মার্চ ২০২১ ২২ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ৭ মার্চ ২০২১

পিএস আমিনুরের বিরুদ্ধে অবৈধ পদোন্নতির অভিযোগ
প্রকাশ: রোববার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:০৬ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 191

নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
সরকারি আইন ও বিশ^বিদ্যালয়ের নিয়মনীতি উপেক্ষা করে শুধু ক্ষমতা প্রয়োগে পদোন্নতি নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে বেগম রোকেয়া বিশ^বিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্যের একান্ত সচিব রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি আমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে। পদোন্নতির জন্য ইতোমধ্যে গত ৩১ ডিসেম্বর বিশ^বিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত এক পত্রে তাকে অভিজ্ঞতা সনদ ও তার আবেদন অগ্রায়ন করা হয়েছে। এদিকে সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় পতাকা বিকৃতির দায়ে একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছে। রাষ্ট্রদ্রোহ এসব মামলার এজাহারভুক্ত আসামি হলেন আমিনুর রহমান।
তার আবেদন অনুযায়ী তিনি ৮ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে এই বিশ^বিদ্যালয়ে সহকারী রেজিস্ট্রার পদে যোগদান করেন ও ১৬ জুলাই ২০১৭ তারিখে তিনি পদোন্নতি পেয়ে উপরেজিস্ট্রার (একাডেমিক) পদে পদোন্নতি পান। সরকারি আইন ও বিশ^বিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের পদোন্নতি নীতিমালা অনুযায়ী চার বছর পর পদোন্নতির যোগ্যতা অর্জিত হবে তার। কিন্তু তিনি আইন ও নিয়মনীতি উপেক্ষা করেই এক বছর আগেই পদোন্নতি নিচ্ছেন।
তার চাকরি জীবনে কখনই একাডেমিক শাখায় কাজের অভিজ্ঞতা নেই। শুধু প্রভাব খাটিয়ে ও উপাচার্যকে জিম্মি করে ১৬/০৭/২০১৭ তারিখে উপরেজিস্ট্রার একাডেমিকের স্থায়ী পদে পদোন্নতি নিয়েছেন। বর্তমান সংস্থাপন শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার খন্দকার গোলাম মোস্তফা ও উপরেজিস্ট্রার মো. জাহেদুর রহমান যথাক্রমে বিশ^বিদ্যালয়ের শুরু থেকে ০৬/১০/২০১৯ তারিখ পর্যন্ত একাডেমিক শাখার শাখা প্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে জিয়াউল হক দায়িত্ব পালন করছেন। অথচ তিনি ডেপুটি রেজিস্ট্রার হতে একাডেমিক শাখার অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার পদে পদোন্নতির জন্য অভিজ্ঞতা সনদ নিয়েছেন।  অত্র বিশ^বিদ্যালয়ের অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী এই বিশ^বিদ্যালয়ে রেজিস্ট্রার দফতরের সব শাখা মিলে প্রশাসন শাখায় শুধু একটি অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার পদ আছে। এই দফতরের অন্য কোনো শাখায় আর কোনো অতিরিক্ত রেজিস্ট্রারের পদ নেই। ইতোমধ্যে রেজিস্ট্রার দফতরের একজন কর্মকর্তা খন্দকার গোলাম মোস্তফা অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার হিসেবে রয়েছেন। সুতরাং একই দফতরে অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার পদে পদোন্নতির আর কোনো সুযোগ নেই। কর্মকর্তা পদোন্নতি নীতিমালা অনুযায়ী পদোন্নতি হবে চার বছর পর। কিন্তু উপরেজিস্ট্রার পদে চাকরির সময় হয়েছে তিন বছর। বর্তমান উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হবে আগামী জুন মাসে। আর তার পদোন্নতির সময় হবে পরবর্তী আগস্ট মাসে। তাই যোগ্যতা অর্জনেই এক বছর আগে তথা বর্তমান উপাচার্যের সময়ই নয়ছয় করে পদোন্নতি নেওয়ার জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। বেগম রোকেয়া বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্যের একান্ত সচিব আমিনুর রহমান বলেন, অভিযোগটি সত্য নয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]