ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মশা মারতে কামান!
কচুরিপানা পরিষ্কারে বরাদ্দ ৫০ কোটি টাকা
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১০:১৮ পিএম আপডেট: ২৪.০১.২০২১ ১১:৩১ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 37

রাজধানীর কচুরিপানা পরিষ্কার করার মেশিন কিনতে এবার ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। মশার উপদ্রব কমাতে জলাশয়গুলোয় এ মেশিন ব্যবহার করা হবে। এর মধ্যেই একনেকে প্রকল্পটির অনুমোদন মিলেছে। রোববার সচিবালয়ে ঢাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে দুই সিটি করপোরেশনের কর্মপরিকল্পনা পর্যালোচনা সভায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম জানান, যুক্তরাষ্ট্র থেকে এ মেশিন কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
এ সময় তিনি জানান, এ বছর অন্য সময়ের তুলনায় মশা কম, তবে মানুষ বিরক্ত। বাসাবাড়িতে এডিস মশা বেশি হয়। কিন্তু বাড়ির মালিকরা এবার সতর্ক। নিজেদের কাজের মূল্যায়ন করতে গিয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ভুল হতে পারে, কিন্তু কারও উদ্দেশ্য খারাপ নয়। তিনি বলেন, ঢাকায় মশা যে অসহ্য যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, তা অস্বীকার করার উপায় নেই।
তাজুল ইসলাম বলেন, ইতোমধ্যে আপনারা মশা নিয়ে কিছু কিছু কথাবার্তা বলছেন। আমি মনে করি, অতীতের যেকোনো বছরের তুলনায় এখনও কিউলেক্স মশার পরিমাণ কম। তবু মশা মানুষের কাছে অসহ্য যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই।
স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, এডিস মশা হয় ঘরবাড়িতে। বাড়ির মালিকসহ সবাই এ মশা মারতে যোগ দিয়েছে। গত সেপ্টেম্বর থেকে কর্মপরিকল্পনা নিয়ে কাজ করেছিলাম বলে আমরা একটা সন্তোষজনক জায়গায় পৌঁছাতে পেরেছি। কিন্তু কিউলেক্স মশা হয় ঝোপ জঙ্গল, আবর্জনা এবং ময়লা পানিতে। সেজন্য কচুরিপানাসহ আবর্জনা পরিষ্কার করতে ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে বিদেশ থেকে মেশিন কেনা হচ্ছে।
তিনি বলেন, ১৯৮৭ সালে ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা ও খালগুলো ওয়াসার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিল। জনমানুষের মধ্যে একটা ধারণা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে যে, এটা জনপ্রতিনিধিত্বমূলক প্রতিষ্ঠানের কাছে থাকলে ‘ভালো’ হবে। সেজন্য খালগুলোর দায়িত্ব ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তরের প্রসঙ্গ তুলে ধরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, আমরা স্টর্ম ওয়াটার ও খালগুলো নিয়ে আজকে বসেছি। শুধু বৃষ্টির পানি যাওয়ার জন্য, খালগুলোকে পরিষ্কার করার জন্য সিটি করপোরেশনের কাছে এটা হস্তান্তর করা হয়নি, তারাও এ জন্য এটা নেয়নি। উদ্দেশ্যটা হলোÑ যেসব খালের জায়গা অবৈধভাবে দখল হয়েছে তা দখলমুক্ত করা। দখলমুক্ত করে খালগুলোকে সংস্কার করা। মন্ত্রীর প্রত্যাশা, ঢাকা শহর শুধু লিভেবল সিটি হবে না, এটা এনজয়েবল সিটি হবে। ঢাকা শহরকে উদাহরণ দেওয়া শহরগুলোর মাত্রায় নিয়ে যেতে কাজ করার তাগিদ দেন তিনি।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]