ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১ ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১

ছয় বছর আগে মারা যাওয়া ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা!
বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১০:০৭ পিএম আপডেট: ২৩.০২.২০২১ ১০:৫৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 19

দিনাজপুরের বিরামপুরে ৬ বছর আগে মারা যাওয়া দলিলউদ্দিন মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি ও গুরুতর জখম করে ছিনতাইয়ের অভিযোগ এনে মামলা করেছে প্রতিপক্ষ। এ ছাড়া একই ঘটনায় মো. তোফাজ্জল হোসেন নামে এক প্রতিবন্ধীকেও আসামি করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।
গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে উপজেলার কাটলা ইউনিয়নের এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় প্রতিপক্ষ ১২ ব্যক্তিকে আসামি করে নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি থানায় মামলা করেছে। তবে পুলিশ বলছে, মামলার বাদী থানায় এসে লিখিত এজাহার দিয়েছে। বিষয়গুলো তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
জানা গেছে, ওই মামলার এজাহারভুক্ত ৮নং আসামি করা হয় দক্ষিণ দামোদরপুর (বাসুপাড়া) গ্রামের দলিলউদ্দিন মণ্ডলকে। এ ছাড়াও ওই ঘটনায় একই এলাকার মো. তোফাজ্জল হোসেন নামে এক শারীরিক প্রতিবন্ধীকেও আসামি করা হয়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই মামলার ৮নং আসামি দলিলউদ্দিন মণ্ডলের বাড়ি দক্ষিণ দামোদরপুর গ্রামে। তার বাবার নাম সজতুল্ল্যা মণ্ডল। দলিলউদ্দিন মণ্ডল ২০১৫ সালের ৭ অক্টোবর মারা যান। সে সময় ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নাজির হোসেন স্বাক্ষরিত একটি মৃত্যুসনদ দলিলউদ্দিন মণ্ডলের পরিবারকে দেওয়া হয়।
 এদিকে ওই মামলার এজাহারের ৫নং আসামি করা হয় মৃত সজতুল্ল্যা মণ্ডলের ছোট ছেলে প্রতিবন্ধী মো. তোফাজ্জল হোসেন তোফাকে। তবে বাংলাদেশ সরকার ২০১৬ সালের ২৯ মে সমাজসেবা অধিদফতর মো. তোফাজ্জল হোসেন তোফাকে একজন দীর্ঘস্থায়ী মানসিক অসুস্থতাজনিত প্রতিবন্ধী উল্লেখ করে পরিচয়পত্র প্রদান করে। তিনি নিয়মিত প্রতিবন্ধী ভাতাও পেয়ে আসছেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মামলার বাদী নাসির উদ্দিন জানান, আমি এ বিষয়ে কোনো কথা বলব না, পরে সাক্ষাতে কথা বলব। জানতে চাইলে স্থানীয় কাটলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. নাজির হোসেন বলেন, অভিযোগে উল্লিখিত দলিলউদ্দিন মণ্ডল আমার জানামতে মারা গেছেন।
এ ব্যাপারে বিরামপুর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান মনির জানান, বাদীর লিখিত এজাহারের ভিত্তিতে মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তবে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কারও বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মামলা করলে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]