ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১ ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১

বিশ^বিদ্যালয় খোলার ঘোষণা
সরকারের সুচিন্তিত সিদ্ধান্তকে স্বাগত
প্রকাশ: বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১০:২৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 22

বিশ^বিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামী ২৪ মে খুলে দেওয়া হবে দেশের সব সরকারি-বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয়। এদিন থেকেই শুরু হবে ক্লাসরুমে পাঠদান। এর আগে ১৭ মে আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হবে। হল খোলার আগে বিশ^বিদ্যালয়ের সব শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং আবাসিক শিক্ষার্থীকে দেওয়া হবে করোনার টিকা। পাশাপাশি এ সময় বিশ^বিদ্যালয় খোলার সব প্রস্তুতি নেবে কর্তৃপক্ষ। শেষ করা হবে হলগুলোর প্রয়োজনীয় সংস্কার ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ।
সোমবার দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এসব সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায় কি না, সেজন্য আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক ডাকার নির্দেশ দিয়েছেন। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় তিনি এ নির্দেশ দেন। বিশে^র বিভিন্ন দেশে ভার্চুয়ালি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রয়েছে। সেটি বিবেচনায় নিয়ে দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায় কি না, সেজন্য প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে পর্যালোচনা করার নির্দেশ দিয়েছেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাধ্যতামূলক করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। দেশে এখন মাধ্যমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত ৫ লাখ ৭৫ হাজার ৪৩০ জন শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার আগে তাদের অন্তত এক ডোজ টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।
এদিকে বিভিন্ন বিশ^বিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা হলে ওঠার দাবিতে অনড় রয়েছে। এ দাবিতে সোমবার সাতটি বিশ^বিদ্যালয়ে মিছিল-সমাবেশসহ পালিত হয়েছে বিভিন্ন কর্মসূচি। শিক্ষার্থীরা সরকারের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার অনুরোধ জানিয়েছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্ররা রোববার ফটকের তালা ভেঙে হলে ঢুকেছে। বিক্ষুব্ধ ছাত্রীরা তালা ভেঙে অবস্থান নিয়েছে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও এদিন হলে ওঠার চেষ্টা করেছে। তারা ১ মার্চের মধ্যে হল খুলে দেওয়ার দাবি তুলেছে। হলে ওঠার দাবিতে সরব হয়ে উঠেছে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও। একই দাবিতে কর্মসূচি পালন করেছে কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া কয়েকটি ছাত্র সংগঠনও আবাসিক হল খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে।
গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী পাওয়ার কথা ঘোষণা করে সরকার। এরপর ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলছে। প্রায় ১৫ মাস পর শুধু বিশ^বিদ্যালয় খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানানো হলো। আগামী ১৩ মে ঈদুল ফিতর উদযাপন হওয়ার কথা। সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী, ঈদের ছুটি শেষে ১৭ মে হলগুলো খুলবে। বর্তমানে দেশের ৪৬টি পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালু আছে। এ ছাড়া অনুমোদিত বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় আছে ১০৭টি। পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়গুলোয় মোট ২২০টি আবাসিক হল আছে। এর মধ্যে আবাসিক শিক্ষার্থী প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার। তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনার টিকা দেওয়া হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ^বিদ্যালয়গুলো খোলার আগে কোনো পরীক্ষা হবে না। তবে অনলাইনে ক্লাস চলবে। এ সিদ্ধান্তের সঙ্গে মিল রেখে পেছানো হবে বিসিএস পরীক্ষার আবেদন ও পরীক্ষার তারিখ। করোনার কারণে বয়স অতিক্রম হয়ে যাওয়া কোনো পরীক্ষার্থী যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ের মতো বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রেও এ সিদ্ধান্ত প্রযোজ্য।
বৈশি^ক এবং আমাদের দেশের পরিবেশ-পরিস্থিতি বিবেচনায় সরকারের এ সিদ্ধান্তকে আমরা স্বাগত জানাই। আমরা মনে করি, করোনা সংক্রমণ কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে সরকারের যে সাফল্য তা নষ্ট করা ঠিক হবে না। শিক্ষার্থীদের হলে ফিরিয়ে আনার আগে বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের অন্তত এক ডোজ টিকা দেওয়া জরুরি। অন্যথায় পরিস্থিতি তাদের সবার জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। করোনাকালে সেই ঝুঁকি নেওয়া কোনোভাবেই ঠিক হবে না।








সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]