ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১ ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১

দেশকেই প্রাধান্য মোস্তাফিজের
প্রকাশ: বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১০:৩৩ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 15

ষ ক্রীড়া প্রতিবেদক
‘শ্রীলঙ্কা সফরে জাতীয় দলের সঙ্গে যেতে চাই না, কারণ আমি আইপিএলে খেলতে চাই’Ñ এভাবেই নিজের ইচ্ছার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিষয়টা মনঃপূত না হলেও ‘হ্যাঁ’ বলে দিয়েছে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এরপর থেকেই সমালোচনার ঝড় বইছে ক্রিকেট পাড়ায়। উঠেছে প্রশ্নÑ দেশের হয়ে খেলার থেকে আইপিএলে খেলাটাই এখন বড় হয়ে গেল সাকিবের কাছে? আসন্ন আইপিএলে সাকিবের মতোই দল পাওয়া বাংলাদেশের আরেক তারকা মোস্তাফিজুর রহমানের কাছেও কি বিষয়টা একই? না, বাঁহাতি পেসার সাফ জানিয়ে দিয়েছেনÑ দেশই তার কাছে বড়। তাই আইপিএল নয়, দেশের হয়ে খেলাটাকেই প্রাধান্য দেবেন তিনি।
মঙ্গলবার দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড গেছে টিম বাংলাদেশ, তিনটি করে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি খেলে তারা ফিরে আসবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে। এরপর সপ্তাহখানেক বিশ্রাম নিয়েই শ্রীলঙ্কার পথ ধরবে টাইগাররা, সেখানে স্বাগতিকদের বিপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজ খেলবে তারা। ওই সময় ভারতে হবে ১৪তম আইপিএল। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টটিতে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলবেন সাকিব। এক কোটি রুপিতে মোস্তাফিজকে দলে নিয়েছে প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালস। দলটিতে যোগ দেবেন কিনা, সেটা জানতে টাইগার পেসার শরণাপন্ন হয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নামজুল হাসান পাপনের। তিনি তখন জানিয়ে দিয়েছেনÑ যেহেতু সাকিবকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে, তোমাকেও দেওয়া হবে। এখন আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমতি তুমি চাইবে কিনা, সেই সিদ্ধান্ত তোমাকেই নিতে হবে।
বোর্ডপ্রধানের কাছ থেকে এমন বার্তা পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নিতে খুব বেশি সময় নেননি মোস্তাফিজ। জানিয়ে দিলেনÑ আইপিএল নয়, দেশকেই প্রাধান্য দেবেন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট দলে জায়গা পেলে বাঁহাতি পেসার খেলবেন না আইপিএলে। দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডগামী বিমান ধরার আগে মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কাটার-মাস্টার বলেছেন, ‘যদি টেস্টে আমাকে রাখে, আমি টেস্ট খেলব। যদি না রাখে, তা হলে বিসিবি জানে ... বিসিবি যেটা বলবে আমি সেটাই করব। বিসিবি চাইলে রাজি না হওয়ার তো কিছু নেই।’ মোস্তাফিজ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘সবার আগে আমার দেশের হয়ে খেলা। যদি টেস্ট দলে না থাকি, (তখন আইপিএলে খেলার বিষয়ে) আমি বিসিবিকে বলব।’
সাকিবকে ছুটি দেওয়ার পর বিসিবি জানিয়ে দেয়, চাইলে যে কাউকে ছুটি দেওয়া হবে। সোমবার সংস্থার প্রধান কর্তা নাজমুল হাসান তো এও বলে দিয়েছেন, ‘আমরা কাউকে জোর করে কোথাও পাঠাব না। যারা খেলতে চায় না, তারা খেলবে না। আমরা চাই সবাই খেলুক। তবে কারও যদি জাতীয় দলের চাইতে অন্য কোথাও খেলতে ভালো লাগে, তা হলে তারা যেতে পারে। কোনো বাধা নেই।’ বিসিবি সভাপতির এমন সরল বার্তার মধ্যেও যে অভিমান মিশে আছে, তা আর সবার মতো মোস্তাফিজেরও জানা থাকার কথা। বিষয়টা অনুধাবন করতে পেরেই কি, নাকি কোনো চাপের কারণে আইপিএলকে উপেক্ষা করছেন মোস্তাফিজ? বাঁহাতি পেসার বললেন, ‘যদি বিসিবি আমাকে ছাড়ে, তা হলে আমি আইপিএলে খেলব। দেশই আগে। দেশের হয়ে বা আইপিএলে খেলার বিষয়ে অন্য কোনো চাপ নেই।’
জাতীয় দলকে উপেক্ষা করে বিদেশি লিগে খেলাটাকে ক্রিকেটারদের প্রাধান্য দেওয়াÑ ভবিষ্যতে এ ধরনের পরিস্থিতি এড়াতে ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে কিছু শর্ত জুড়ে দেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন নাজমুল হাসান। চুক্তিতে সই করলে ওই ক্রিকেটার তা মানতে বাধ্য থাকবে। যে ক্রিকেটার যে সংস্করণে খেলতে চান, তাকে সেই সংস্করণের চুক্তিতেই রাখা হবে। আগেই আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করা হবে সব। সবশেষ কেন্দ্রীয় চুক্তিতে মোস্তাফিজ ছিলেন কেবল সাদা বলে, লাল বলের চুক্তিতে তিনি ছিলেন না। গত বছর তাকে কোনো টেস্টও খেলায়নি বাংলাদেশ। তবে নতুন বছরের প্রথম টেস্টেই তাকে খেলানো হয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজেও তাকে খেলানোর জোর সম্ভাবনা আছে। আইপিএলকে প্রাধান্য না দিলে এবার হয়তো লাল আর সাদাÑ উভয় বলের চুক্তিতেই ঠাঁই পাবেন মোস্তাফিজ।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]