ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১ ৬ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১

দুই দিনেই শেষ ‘গোলাপি’ রোমাঞ্চ!
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৯:৫৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 24

পাঁচ দিনের খেলা টিকল না দুই দিনও! ১৪০ ওভার খেলা হওয়ার আগেই শেষ ভারত-ইংল্যান্ডের ‘গোলাপি’ রোমাঞ্চ! আহমেদাবাদে সর্দার প্যাটেল স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় দিনেই দিবা-রাত্রির টেস্ট ১০ উইকেটে জিতে নিয়ে চার ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বিরাট কোহলির দল। আর এই পরাজয়ে ধূলিসাৎ হয়েছে ইংলিশদের ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলার স্বপ্ন, যা নিশ্চিত হবে এশিয়ার পরাশক্তিদের যদি জিতে সিরিজ।
তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিনে মাত্র ১১২ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ডের ইনিংস। পরে ৩ উইকেটে ৯৯ রানের সংগ্রহ নিয়ে ওই দিনের খেলা শেষ করে ভারত। বৃহস্পতিবার তাদের খাতায় আরও মাত্র ৪৬ রান যোগ হতেই স্বাগতিকরা হারায় শেষ ৭ উইকেট। এরপর ব্যাটিংয়ে নামা সফরকারীদের দ্বিতীয় ইনিংস থামে মাত্র ৮১ রানে এবং জয়ের জন্য ভারতের লক্ষ্য দাঁড়ায় মোটে ৪৯। অল্প রান তাড়ায় ১০ উইকেট হাতে রেখেই দুই দিনে টেস্ট জিতে নেয় এশিয়ার দলটি। দুই দিনে টেস্ট ঘটনা এটাই প্রথম নয়।
ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় বৃথা গেছে জো রুটের কীর্তি। এদিন অফ স্পিনে ইংলিশ অধিনায়ক মাত্র ৮ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট। টেস্ট ইতিহাসে কোনো স্পিনারের সবচেয়ে কম রান দিয়ে ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড এটি। আহমেদাবাদের স্পিনরাজ্যে রেকর্ড গড়েছেন রবিচন্দ্রন অশি^নও। টেস্টে দ্বিতীয় দ্রæততম বোলার হিসেবে স্পর্শ করলেন ৪০০ উইকেটের মাইলফলক। সাদা পোশাকে দ্রæততম ৪০০ উইকেটের রেকর্ড মুত্তিয়া মুরালিধরনের।
শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তির লেগেছিল ৭২ টেস্ট। অশি^ন মাইলফলকটি স্পর্শ করলেন ৭৭তম ম্যাচে। তারই সতীর্থ অক্ষর প্যাটেল রেকর্ড বইয়ে নাম লেখান প্রথম দিনে। ক্যারিয়ারের প্রথম দুই টেস্টে ৫ উইকেটের স্বাদ পাওয়া দ্বিতীয় বাঁহাতি স্পিনার এখন তিনি। ভারতীয় এই ঘূর্ণি জাদুকরের ঘূর্ণিতেই দ্বিতীয় ইনিংসে বিপাকে পড়ে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট শিকার করা অক্ষর দ্বিতীয় ইনিংসেও পেয়েছেন পাঁচটি এবং হয়েছেন ম্যাচসেরা।
এদিকে মাত্র দুই দিনেই টেস্টের ফল নিজেদের পক্ষে পেয়ে অবাক কোহলি নিজেও। ভারতীয় দলপতির মতে, ব্যাটসম্যানের ব্যর্থতায় এত দ্রæত শেষ খেলা। তিনি বলেন, ‘সত্য বলতে আমি মনে করি না যে ব্যাটিংয়ের মানদÐ বিবেচনায় দুই দল সঠিকভাবে খেলেছে। বল ভালোভাবেই ব্যাটে আসছিল। এটা অদ্ভুত যে পতন ঘটা ৩০ উইকেটের মধ্যে ২১টি বলই সোজা ছিল। এটি ব্যাটসম্যানদের তাদের সেরাটা প্রয়োগ না করার উদাহরণ মাত্র।’
রুটের কাঠগড়ায়ও ব্যাটসম্যানরা। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে ইংলিশ দলপতি বলেন, ‘টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করি আমরা, কিন্তু সিদ্ধান্ত কাজে লাগাতে পারিনি। আমাদের ২৫০ করতে হতো, যা ভালো একটি সংগ্রহ হতো। ম্যাচজুড়ে উভয় দলের খেলোয়াড়রা ভুগেছে। আমাদের এমন পারফরম্যান্সকে আমি কীভাবে ব্যাখ্যা করব তা জানা নেই। আমাদের দারুণ কিছু খেলোয়াড় এবং ব্যাটসম্যান রয়েছে যারা বড় স্কোর করতে সক্ষম। কিন্তু পারেনি।’
দুই অধিনায়ক যতই নিজেদের ব্যাটসম্যানদের কাঠগড়ায় দাঁড় করাক না কেন, এটা নিশ্চিত যে আইসিসির চোখ পড়বে সর্দার প্যাটেল স্টেডিয়ামে। দ্বিতীয় দিনে কিছু অদ্ভুত আচরণ ছিল উইকেটে। এই যেমন হঠাৎ বাড়তি বাউন্স পেয়েছেন স্পিনাররা, যা সামলে নিতে পারেননি ব্যাটসম্যানরা। তাতেই এদিন পতন হওয়া ১৭ উইকেটের প্রত্যেকটি গেছে ঘূর্ণি জাদুকরদের পকেটে। তাই এখন দেখার অপেক্ষা, পিচ প্রতিবেদনে কী রিপোর্ট দেয় ম্যাচ রেফারি।
যদি উইকেটের মান খারাপ বলে বিবেচ্য হয়, তবে মহাবিপদে পড়বে ভারত। ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শর্তসমূহে স্পষ্ট বলা রয়েছে, ‘যদি আইসিসি পিচ ও আউটফিল্ড মনিটরিং প্রক্রিয়ার অধীনে পিচ অথবা আউটফিল্ডকে শেষ পর্যন্ত ‘অযোগ্য’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়, তবে সেই ম্যাচে সফরকারীদের জয়ী এবং স্বাগতিকদের পরাজিত দল বিবেচনা করে ম্যাচের পয়েন্ট ভাগ করে দেওয়া হবে।’






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক: হারুন উর রশীদ, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]