ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১ ৬ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১

নিউজিল্যান্ডে ‘কঠিন অভিজ্ঞতা’ টাইগারদের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৯:৪৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 17

করোনাকালে প্রথম সফর, সব কিছুতেই তাই মানিয়ে নিতে হচ্ছে টিম বাংলাদেশকে। করোনাকালীন বাস্তবতায় এবারই প্রথম কোয়ারেন্টাইনে থাকার অভিজ্ঞতা হচ্ছে টাইগারদের। কিন্তু তাদের কাছে এই অভিজ্ঞতা বড় কঠিনই। কোয়ারেন্টাইনের প্রথম সাতটা দিন যে নিজ নিজ রুমেই বন্দি থাকতে হচ্ছে।
এই সফরে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সমান তিনটি করে ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। অন্য কোনো সময় হলে নিশ্চিত করেই সফরটি ১৫ দিনেই শেষ হয়ে যেত। কিন্তু করোনাকালীন বাস্তবতায় সেটির পরিধি বেড়ে গেছে তিনগুণ। সব মিলে ছয়টি সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলার জন্যই লেগে যাচ্ছে প্রায় দেড় মাস! তিনভাগের একভাগ সময় চলে যাবে কোয়ারেন্টাইনে। তিন দফায় দেশ থেকে করোনা নেগেটিভ হয়ে বিমান ধরার পরও নিউজিল্যান্ডে গিয়ে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন পালন করতে হচ্ছে টাইগারদের।
কোয়ারেন্টাইনের প্রথম সাত দিন টাইগারদের একেবারে রুমবন্দি থাকতে হবে, শর্তটা এমনই ছিল। তবে শুক্রবার কিছুটা ভিন্নতা লক্ষ্য করা গেছে। নিউজিল্যান্ডে গিয়ে দেওয়া প্রথম করোনা পরীক্ষায় দলের সবাই উত্তীর্ণ হওয়ায় বন্দিদশা থেকে ক্ষণিকের জন্য মুক্তি পেয়েছিলেন টাইগাররা। পুরো দুটো দিন রুমবন্দি থাকার পর কিছু সময়ের জন্য (৪০ মিনিট) বাইরে বের হতে পেরেছেন ক্রিকেটাররা। দেখা-সাক্ষাৎ করতে পেরেছেন দলের অন্যদের সঙ্গে। তবে কেউ কারও সংস্পর্শে যেতে পারেননি। কথা বলা কিংবা হাঁটা-চলায় কমপক্ষে দুই মিটার দূরত্ব বজায় রাখতে হয়েছে।
করোনাকালে দেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছে টাইগাররা, তবে নিয়ম-কানুনে অত কঠোরতা ছিল না। অভিজ্ঞতাটা তাদের জন্য একেবারেই নতুন। দেশের বাইরে গিয়ে কারও সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ করতে না পারা, ৪৮ ঘণ্টা রুমবন্দি থাকা, সব মিলে হাঁপিয়ে উঠেছিলেন টাইগাররা। সেখানে মিনিট চল্লিশেকের ‘মুক্তি’ বড় স্বস্তিই দিয়েছে অতিথিদের। দলের তারকা পেসার তাসকিন আহমেদের কণ্ঠেও ধরা পড়ল সেই স্বস্তি, ‘আসলে এ রকম পরিস্থিতি আগে কখনও আসেনি। এভাবে সময় কাটানো হয়নি। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর আমরা ৩০-৪০ মিনিট দূরত্ব বজায় রেখে হাঁটার সুযোগ পেয়েছি। তাও ভালো লাগছে, প্রায় দুদিনের মতো রুমে বন্দি থাকার পর বাইরে বের হতে পেরেছি।’
আরও পাঁচ দিন এভাবে রুমবন্দি হয়েই কাটাতে হবে টাইগারদের। মাঝেমধ্যে নিউজিল্যান্ডের আতিথেয়তায় এমন ক্ষণিকের মুক্তি মিলতে পারে। তবে মিলবেই, এমন নিশ্চয়তা নেই। দলের আর সবার মতো তাসকিনও তাই মনে-প্রাণে চাইছেন, দ্রæত কঠিন সময়টা শেষ হয়ে যাক, ‘প্রথম করোনা পরীক্ষায় সবার নেগেটিভ আসার পরে আমাদের হাঁটতে দিয়েছে। আরও কিছু টেস্ট বাকি আছে। এরপর আল্লাহ চাইলে আমরা অনুশীলন শুরু করতে পারব। তো সব মিলিয়ে আলাদা অনুভ‚তি। চাইব যত দ্রæত অভিজ্ঞতাটা শেষ হোক, ততই ভালো।’
রুমবন্দি কঠিন সময়টা কীভাবে কাটছে টাইগার ক্রিকেটারদের? তাসকিন জানিয়েছেন, ‘সময় কাটছে আসলে পরিবারের সঙ্গে কথা বলে (ফোনে), সিনেমা দেখে। বিসিবি থেকে আমাদের কিছু শরীরচর্চারও ব্যবস্থা করে দিয়েছে। কিছু ব্যান্ডস আর সাইকেলিংয়ের জন্য দেওয়া হয়েছে। কিছু কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে রুমে যেসব শরীরচর্চা করা সম্ভব সেগুলো করার জন্য। তো সব মিলিয়ে এভাবেই সময় কেটে যাচ্ছে। কিছুটা শরীরচর্চা, সিনেমা দেখা আর পরিবারকে সময় দেওয়া, এভাবেই কেটে যাচ্ছে।’
কোয়ারেন্টাইনের অষ্টম দিন থেকে সীমিত পরিসরে খোলা আকাশের নিচে অনুশীলনের সুযোগ পাবেন টাইগাররা। নিউজিল্যান্ডে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় সেখানে জৈব সুরক্ষা বলয় নামক বিলাসী বন্দিশালায় থেকে খেলতে হবে না টাইগারদের। কোয়ারেন্টাইনে ১৪ দিন কাটিয়ে দেওয়ার পর তারা পুরোপুরি মুক্ত হয়ে যাবেন। এরপরই পাঁচ দিনের একটি অনুশীলন ক্যাম্প করবে টাইগাররা। সেখানেই ময়দানি লড়াইয়ের প্রস্তুতি নেবেন তারা, প্রথম ওয়ানডে দিয়ে যে লড়াই শুরু হবে ২০ মার্চ।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক: হারুন উর রশীদ, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]