ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১ ৬ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১

তানভিরের ঘূর্ণিতে নাকাল আইরিশরা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৯:৪৯ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 21

স্পিন খেলায় দক্ষতা না থাকলে উপমহাদেশের মাটিতে ভালো পারফর্ম করা যেকোনো ব্যাটসম্যানের জন্যই কঠিন। এই সত্যটা শুক্রবার আরও একবার টের পেয়েছে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের ব্যাটসম্যানরা। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এদিন শুরু হওয়া চার দিনের একমাত্র ম্যাচে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৫১ রানেই গুটিয়ে গেছে অতিথিরা। তারা রীতিমতো নাকাল হয়েছে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের বাঁহাতি স্পিনার তানভির ইসলামের বলে।
উলভস নামে পরিচিত আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলকে স্পিন-মায়ায় নাচিয়ে ছেড়েছেন তানভির। ৫৫ রান খরচায় ৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটিই তার ক্যারিয়ারসেরা। বাঁহাতি স্পিনারের আগের সেরা ছিল ২৯ রানে ৪ উইকেট। বল হাতে ভালো করেছেন পেসার ইবাদত হোসেন আর অধিনায়ক সাইফ হাসানও। দুটো করে উইকেট নিয়েছেন তারা। ভালো বোলিং করেছেন আরেক পেসার খালেদ আহমেদও। ১৫ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ২০ রান দিয়েছেন তিনি, নিয়েছেন এক উইকেট। তাদের এমন সাঁড়াশি বোলিংয়েই ৬৭ ওভারে গুটিয়ে গেছে আয়ারল্যান্ড উলভস।
টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা অতিথিদের শুরুটা খারাপ ছিল না। প্রায় ১৫ ওভার স্থায়ী হয়েছিল তাদের উদ্বোধনী জুটি। কিন্তু জুটি ভাঙার পর থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় তারা। ১৯ রান করা জেমস ম্যাককালামকে লেগবিফোরের ফাঁদে ফেলে জুটিটা ভাঙেন তানভির। এরপর টপাটপ উইকেট তুলতে থাকেন এই স্পিনার। পঞ্চম উইকেটে ৪৯ রানের জুটি গড়ে কার্টিস ক্যাম্পার আর লর্কান টাকার কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা চালিয়েছিলেন। তাদের সেই চেষ্টায় বাদ সাধেন সাইফ। ২০ রান করা টাকারকে ফেরান তিনি। এরপর ক্যাম্পারকেও নিজের শিকার বানান স্বাগতিক দলপতি।
আয়ারল্যান্ড উলভসের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৮ রানের ইনিংসটি খেলেন এই ক্যাম্পারই। পরবর্তী ব্যাটসম্যানরা ব্যস্ত ছিলেন আসা-যাওয়ার মিছিলে। উল্লেখ করার মতো স্কোর করতে পারেননি কেউ। অতিথি শিবিরের কাউকে সেই সুযোগটাই দেননি তানভির। দেড়শ পেরোনোর পরপরই আইরিশদের ইনিংসের ইতি টেনে দেন এই বাঁহাতি স্পিনার, পূর্ণ করেন প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারের প্রথম পাঁচ উইকেট। এরপর ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল। তানজিদ হাসান তামিমকে নিয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করেন সাইফ। স্বাগতিক অধিনায়ক স্বভাবসুলভ ধীরস্থির ব্যাটিং করলেও শুরু থেকেই তানজিদ ছিলেন আগ্রাসী।
স্বাগতিকদের উদ্বোধনী জুটিটা জমে ওঠে বেশ। দ্রæতই ৫০ রান জমা হয়ে যায় স্কোর বোর্ডে। সিংহভাগ রানের জোগান তানজিদই দিয়েছেন। ইনিংসের চতুর্থ ওভারেই চারটি বাউন্ডারি হাঁকান এই বাঁহাতি। সব মিলে ৮টি চারের মারে ৩৯ বলে ৪১ রান করে দলীয় ৫০ রানের মাথায় টেক্টরের বলে আউট হন তিনি। এরপর অবশ্য আর কোনো বিপদ হয়নি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষিক্ত মাহমুদুল হাসান জয়কে নিয়ে দিনটা ভালোভাবেই কাটিয়ে দেন সাইফ। ২২ রানে অপরাজিত আছেন স্বাগতিক দলপতি, মাহমুদুল অপরাজিত ১৮ রানে। দিন শেষে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৮১। অতিথিদের থেকে ৭০ পিছিয়ে থেকে আজ দ্বিতীয় দিন শুরু করবে তারা।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক: হারুন উর রশীদ, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]