ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১ ৬ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল ২০২১

‘নীল’ বেদনা লাল দলের
প্রকাশ: রোববার, ৭ মার্চ, ২০২১, ১০:০৩ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 34

ক্রীড়া প্রতিবেদক
মাঠের লড়াই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করতে জাতীয় দল, ইমার্জিং দল আর অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারদের তিন ভাগে বিভক্ত করে গড়া হয়েছে ভারসাম্যপূর্ণ দল। কিন্তু নবম বাংলাদেশ গেমসের নারী ক্রিকেট ইভেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকল কই? বাংলাদেশ লাল আর বাংলাদেশ নীল দলের লড়াইটা হলো বড্ড একপেশে। নীল দলের ১০ উইকেটের জয় প্রতিপক্ষ লাল দলের বেদনার্ত পারফরম্যান্সেরই সাক্ষী।
সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শনিবার প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) মহাসচিব সৈয়দ সাহেদ রেজা। কিন্তু উদ্বোধনী ম্যাচটি আনন্দদায়ক ছিল না মোটেও। আগে ব্যাট করে ২৮.১ ওভার খেলে মোটে ৬৩ রানেই অলআউট হয়ে যায় লাল দল। এদিন তাদের ব্যাটারদের মাথা তুলেই দাঁড়াতে দেননি নীল দলের বোলাররা। বিশেষ করে ফারিহা তৃষ্ণা। এই তরুণীর পেস আগুনে সবুজে ঘেরা সিলেট স্টেডিয়ামে পুড়ে ছাই হয় লাল, উজ্জ্বল হয়ে ওঠে নীল। ১০ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ১৪ রান দিয়ে ৬ উইকেট নিয়েছেন তৃষ্ণা।
এদিন অবশ্য লাল দলের ‘নীল বেদনা’পর্ব শুরু হয়েছিল জাহানারা আলমের হাত ধরে। জাতীয় দলের এই তারকা পেসারই ইনিংসের তৃতীয় ওভারে প্রথম ধাক্কাটা দেন শারমিন সুপ্তাকে বোল্ড করে। এরপর তৃষ্ণার গতিঝড় আর অধিনায়ক সালমা খাতুনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে লাল দল। সেই বিপর্যয় আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি দলটি। ১৪ রান খরচায় ২ উইকেট নেন সালমা। ৮ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন অপর বোলার সুবহানা মোস্তারি। তাদের বোলিং তোপ সামলে লাল দলের পুঁজিতে সর্বোচ্চ ২১ রানের জোগান দেন জিন্নাত অর্থি। তিনি ছাড়া দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পেরেছেন কেবল রুবাইয়া হায়দার ঝিলিক (১০)। বাকিরা ব্যস্ত ছিলেন সাজঘরে যাওয়া-আসার মিছিলে।
লাল দলের ব্যাটসম্যানদের অমন ব্যাটিং প্রদর্শনীর পর মনে হচ্ছিলÑ উইকেটে টিকে থেকে রান করার কাজটা খুব কঠিন। কিন্তু ধারণাটা পাল্টে দিলেন নীল দলের দুই ওপেনার শারমিন সুলতানা আর মুর্শিদা খাতুন। মামুলি পুঁজি নিয়ে তাদের ওপর কোনো প্রভাবই বিস্তার করতে পারেনি লাল দলের বোলাররা। ফলে কোনো উইকেট না হারিয়েই ৬৪ রানের জয়ের লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে নীল দল। ৫৪ বল খেলে ৫টি চারের মারে ৩১ রান করে অপরাজিত ছিলেন শারমিন। ৪১ বলে ৩ চারে ২৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন মুর্শিদা। এই যুগলের দারুণ ব্যাটিংয়ে ১৫.৫ ওভারেই জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলে নীল দল। ১০ উইকেটের বড় জয়ে ফাইনালে নাম লেখানোর লড়াইয়ে নিজেদের একধাপ এগিয়ে রাখল দলটি। ৮ মার্চ নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে বাংলাদেশ সবুজ দলের মুখোমুখি হবে তারা।
সিঙ্গেল রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে প্রতিটি দল একবার করে একে অন্যের মুখোমুখি হবে। এরপর পয়েন্টের হিসেবে এগিয়ে থাকা দুই দল মুখোমুখি হবে ১২ মার্চের ফাইনালে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক: হারুন উর রশীদ, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]