ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ১৬ মে ২০২১ ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
ই-পেপার রোববার ১৬ মে ২০২১

তবু অনন্ত জাগে
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 22

ষ আবীর শ্রেষ্ঠ
কবরী আপা আমাদের বাবা-চাচাদের স্বপ্নের নায়িকা ছিলেন। চুয়াডাঙ্গায় ‘কখগঘঙ’ সিনেমার শুটিং দেখেছিলেন আমার বাবা। সেটা নিয়ে উচ্ছ্বসিত হতে দেখেছি বহুবার। এই উচ্ছ্বাস আরও বেড়ে যেত টিভিপর্দায় ‘শালুক শালুক ঝিলের জলে’ গানের তালে তালে। কী দারুণ তার অভিব্যক্তি, কী মায়াবী মিষ্টিমুখ! মন নেচে উঠত আমারও। সেই মিষ্টি মুখ খুব কাছ থেকে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল। বসার ঘরে তার ছেলে শাকেরের সঙ্গে সিনেমা নিয়ে বিভিন্ন আলাপে মেতে উঠেছিলাম। দুজনেরই পড়াশোনা সিনেমা বিষয়ে বলে আমাদের সেই আড্ডা তিনি মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করেছিলেন। সেদিন তার সঙ্গে কবরী রোড নিয়েও আলাপ হয়।  কখগঘঙ সিনেমার শুটিং পরবর্তী সময়ে চুয়াডাঙ্গার মানুষ তাকে ভালোবেসে তার নামে একটি রোডের নামকরণ করেছে। তাকে কবরী রোডে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করি। তিনি সম্মত হন। নিজে গিয়ে কবরী রোড ও কবরী মেস দেখে এসে ‘ভিজিট টু কবরী রোড’ শিরোনামে এক ভ্রমণ আয়োজনের উদ্যোগ নিই। তার ব্যস্ততা এবং পরবর্তীতে করোনা পরিস্থিতিতে আটকে যায় আমাদের স্বপ্নের ভ্রমণ আয়োজন।
অবশেষে করোনাই কেড়ে নিল তাকে। পড়ে রইল কবরী রোড, পড়ে রইল কবরী মেস। লকডাউনের প্রথম দিকে দীর্ঘক্ষণ কথা হতো ফোনে। কথার মাঝখানে নামাজের বিরতি নিয়ে নামাজ পড়ে এসে আবার কথা বলতেন। অধিকাংশ কথাই সিনেমা প্রসঙ্গে। শেষ দিনের কথায় হঠাৎ রবীন্দ্রনাথের প্রসঙ্গ তুলে বললেন, ‘মাঝেমধ্যে রবীন্দ্রনাথের মতো জীবনযাপনের ইচ্ছে হয়। মানুষটা মনের মতো জীবনটাকে উপভোগ করে গেছেন।’ সব শিল্পীই কি ভেতরে ভেতরে রবীন্দ্রনাথ? তার সুরেই গেয়ে ওঠেন, ‘আছে দুঃখ...তবুও শান্তি, তবু আনন্দ, তবু অনন্ত জাগে।’লেখক : চলচ্চিত্র নির্মাতা




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]