ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ৮ মে ২০২১ ২৪ বৈশাখ ১৪২৮
ই-পেপার শনিবার ৮ মে ২০২১

ক্রেতার সঙ্গে প্রহসন : ক্যাব
৫ টাকা বাড়িয়ে ৩ টাকা কমানো হলো তেলের দাম
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম আপডেট: ০৪.০৫.২০২১ ১:০৬ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 146

মাত্র তিন দিন আগে লিটারে ৫ টাকা করে দাম বাড়ানো হয়েছিল ভোজ্য তেলের। ৫ টাকা বাড়িয়ে তিন দিন পর লিটারে ৩ টাকা কমানো হলো দাম। ভোজ্য তেল ব্যবসায়ীরা বলছেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে ঈদকে সামনে রেখে দেশের মানুষকে স্বস্তি দিতেই দাম কমানোর সিদ্ধান্ত। দাম কমানোয় প্রতি লিটার সয়াবিন ১৪৪ টাকার বদলে বিক্রি হবে ১৪১ টাকায়। চার দিন আগে এর দাম ছিল ১৩৯ টাকা। সোমবার প্রতি লিটারে তিন টাকা কমানোর ঘোষণা দেয় ভোজ্য তেল উৎপাদন ও বিপণনকারীরা।
কিন্তু এ সিদ্ধান্তকে হঠকারিতা বলে মনে করছেন কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)। এ বিষয়ে ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবীর চৌধুরী বলেন, ৫ টাকা দাম বাড়িয়ে তিন দিন পরই ৩ টাকা কমানো দেশের ক্রেতার সঙ্গে হঠকারিতা। কারণ ৫ টাকা বাড়ানোর পর তিন টাকা কমিয়ে ব্যবসায়ীরা বাহবা নিতে চান, তারা দাম কমিয়েছেন। তিন্তু মাঝ খানে যে লিটারে ২ টাকা বেশি রয়ে গেল। এই বাড়তি টাকা তো ঠিকই ক্রেতাকে গুনতে হচ্ছে। তা ছাড়া দুয়েক দিন পরই এভাবে দাম বাড়া-কমার ফলে খুচরা বাজারে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। কেননা এই যে তিন টাকা কমানো হলো এর সুফল ক্রেতারা  পাবে না আগামী এক সপ্তাহেও। খুচরা ব্যবসায়ীরা বলবে, আমাদের বেশি দামে কেনা, কম দামে বিক্রি করব না। সুতরাং বেশিরভাগ দোকানেই বাড়তি দামেই বিক্রি হবে।
সয়াবিন এবং পাম অয়েলে বোতলজাত ও খোলা উভয় ক্ষেত্রে এই হ্রাসকৃত দাম প্রযোজ্য হবে বলে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন থেকে জানানো হয়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে সোমবার নির্ধারিত আগের বাড়তি দাম থেকে সরে আসে সংগঠনটি। সয়াবিন ও পাম অয়েলে প্রতি লিটারে ৩ টাকা কমাতে সম্মত হয়।
লিটারে ৫ টাকা বাড়ানোর কারণে বাজারে বর্তমানে প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন ১৪৪ টাকা, খোলা সয়াবিন ১২২ টাকা, পাম সুপার তেলের প্রতি লিটার ১১৩ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ ছাড়া, পাঁচ লিটারের বোতল বিক্রি হচ্ছে ৬৮৫ টাকায়।
এখন ৩ টাকা কমানোর ঘোষণা দেওয়ায় নতুন নির্ধারিত দাম অনুযায়ী প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন ১৪১ টাকা, খোলা সয়াবিন ১১৯ টাকা, পাম সুপার তেলের প্রতি লিটার ১১০ টাকায় বিক্রি হবে। এ ছাড়া পাঁচ লিটারের বোতল বিক্রি হওয়ার কথা ৬৭০ টাকায়।
এর আগে গত ১৫ মার্চ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য বিপণন ও পরিবেশক বিষয়ক জাতীয় কমিটি ভোক্তাপর্যায়ে এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৩৯ টাকা নির্ধারণ করে। তবে সোমবার দাম পুনর্নির্ধারিত হওয়ায় ব্যবসায়ীরা দাম তিন টাকা কমানো সত্ত্বেও নতুন দাম জাতীয় কমিটির আগের নির্ধারিত দরের চেয়ে ২ টাকা বেশি।
এর আগে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি টন ভোজ্য তেলে ৮০ থেকে ১০০ ডলার দাম বাড়ার কথা বলে স্থানীয় বাজারেও লিটার প্রতি পাঁচ টাকা হারে দাম বাড়ানোর যে ঘোষণা উৎপাদক ও পরিবেশকরা দিয়েছিল সেখানে সরকারের কোনো অনুমোদন ছিল না। উৎপাদকরা তা তোয়াক্কা না করেই নিজেদের মতো করে বাড়িয়ে দেন দাম।
এতে প্রচলিত আইনের ব্যত্যয় হওয়ায় সরকারকে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে, না তাদের নির্ধারিত দাম মেনে নেবে কিংবা প্রত্যাহারের চাপ দেবে এ রকম সঙ্কটে পড়ে সরকার।
ভোজ্য তেলের দাম কমানো প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এবং আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য (আইআইটি) অনুবিভাগের প্রধান এএইচএম সফিকুজ্জামান জানান, এর আগে ব্যবসায়ীরা প্রতি লিটারে ৫ টাকা দাম বাড়ানোর যে ঘোষণা দিয়েছিল সেখানে সরকারের এ সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির কোনো অনুমতি ছিল না। তা সত্ত্বেও দাম বাড়ানোয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত তৎপরবর্তী করণীয় নির্ধারণের উদ্যোগ নেয়।
তারই অংশ হিসেবে আজ বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা ও উৎপাদক কোম্পানিগুলোর সঙ্গে একটি অনানুষ্ঠানিক বৈঠক করে। এ বৈঠকে ভোজ্য তেলের বাড়তি দর দাম নিয়ে আলোচনা করা হয়।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের দাম বাড়ানোর অবস্থানটি যৌক্তিক। তবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এই করোনা, লকডাউন, রমজান এবং ক্রয় ক্ষমতা সার্বিক বিষয়ে ভোক্তার বৃহৎ স্বার্থে উৎপাদক কোম্পানিগুলোর নির্ধারিত দাম মেনে নেয়নি। বৈঠকে নতুন করে ভোজ্য তেলের দাম পুনর্নির্ধারণ করা হয়। সেখানে তারা পাঁচ টাকার বাড়তি দাম থেকে তিন টাকা কমাতে রাজি হয়।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]