ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ১৬ জুন ২০২১ ১ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ১৬ জুন ২০২১

ওয়ানডে বলেই আত্মবিশ্বাসী টাইগাররা
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১, ১১:০৩ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 28

ক্রীড়া প্রতিবেদক
সিরিজ শুরু হতে এখনও ঢের বাকি। তবে অনুশীলনের জন্য হাতে কিন্তু খুব বেশি সময় নেই! কারণটা ঈদের লম্বা ছুটি। আগামী এক সপ্তাহ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ব্যাটে-বলে হাত পাকাতে দেখা যাবে না টাইগারদের। ঈদের আগে সোমবারই ছিল তাদের শেষ অনুশীলন, এদিনও বেশ সিরিয়াস দেখাল মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ, তামিমদের। বেশ ব্যস্ত দেখাল প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে, শিষ্যদের নানা বিষয় বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন অনুশীলনের ফাঁকে ফাঁকে। সব কিছুতেই একটা বিষয় ঠিকরে বেরোচ্ছিলÑ জয়ের আকাক্সক্ষা। নিজেদের মাঠে ২৩ মে থেকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শুরু হতে যাওয়া তিন ওয়ানডের সিরিজে ভালো কিছু করে দেখাতে মুখিয়ে টিম বাংলাদেশ।
এই শ্রীলঙ্কার কাছেই কদিন আগে দুই টেস্টের সিরিজ হেরে এসেছে টাইগাররা। নিউজিল্যান্ড থেকে ধবলধোলাই হয়ে ফেরার পর সেই হার নিয়ে হতাশা আছে। তবে এবার খেলা যেহেতু নিজেদের ডেরায়, তখন হতাশা কাটিয়ে ওঠার বড় উপলক্ষই দেখছে টিম বাংলাদেশ। তা ছাড়া খেলা এবার ওয়ানডে ফরম্যাটে, যে ফরম্যাট টাইগারদের সব থেকে বেশি পছন্দের। ওয়ানডেতে তাদের পারফরম্যান্সও বেশ ভালো। র‌্যাঙ্কিংয়ে চোখ রাখলেও সেটা প্রতীয়মান হয়। বাংলাদেশের অবস্থান সাতে, প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা সেখানে দুই ধাপ পিছিয়ে নবম স্থানে রয়েছে। যে কারণে তাদের বিপক্ষে এবার ভালো কিছু করার বিষয়ে বেশ আত্মবিশ^াসী টাইগার শিবির। সোমবার অনুশীলনের পর সেই আত্মবিশ^াসের কথাই শুনিয়েছেন লিটন দাস।
কিন্তু ওয়ানডেতেও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টাইগারদের পারফরম্যান্স সুখকর নয়। এ পর্যন্ত তাদের বিপক্ষে ৪৮টি ম্যাচ খেলে মাত্র ৭টিতে জিততে পেরেছে বাংলাদেশ। সবশেষ দুটো সিরিজেও তাদের বিপক্ষে হার দেখতে হয়েছে। ২০১৯ বিশ^কাপের পর শ্রীলঙ্কার মাটিতে খেলতে গিয়ে তিন ওয়ানডের সিরিজে ধবলধোলাই হয়ে ফিরেছিল তামিম ইকবালের দল। এর আগে ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত সিরিজটাও হারতে হয়েছিল ২-১ ব্যবধানে। তবে ফল হওয়া সবশেষ ৯ ওয়ানডের তিনটিতে লঙ্কানদের হারানো গেছে, টাইগারদের উন্নতির ছাপ এখানেও স্পষ্ট। তা ছাড়া ঘরের মাঠে সবশেষ ওয়ানডে সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ধবলধোলাই করেছে তারা, সেটাও জোগাচ্ছে বাড়তি আত্মবিশ^াসের রসদ।
সোমবার অনুশীলন শেষে লিটন যেমন বললেন, ‘আমরা সাদা বলের ক্রিকেটে অনেক ভালো। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে আমরা যখন হোম কন্ডিশনে খেলি, তখন আমরা অনেক ভালো একটা দল। (সাকিব আল হাসান আর মোস্তাফিজুর রহমান থাকায়) এবার মনে হয় পূর্ণশক্তির দল পাব, এটা একটা ইতিবাচক দিক। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট। (তরুণদের) সবাই ধীরে ধীরে পরিণত হচ্ছে। অনেকে তো পরিণত হয়েও গেছে। এখন নিজেদের ভূমিকা পালন করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। সবারই ভূমিকা আছে। যার যে ভূমিকা আছে, সেটা যদি পালন করতে পারেÑ আমার মনে হয়, যেকোনো দলকে হারানো সম্ভব। আমার কাছে মনে হয়, শ্রীলঙ্কা আমাদের মানেরই দল, সাদা বলের ক্রিকেটে ভালোই খেলে। সুতরাং আমাদের স্মার্ট ক্রিকেট খেলতে হবে প্রথমত। এরপর দিনটাকে নিজেদের করে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত করতে হবে। তা হলে সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকবে।’
সাদা বলের ক্রিকেটে ব্যাট হাতে ইনিংসের সূচনায় তামিম ইকবালের নিয়মিত সঙ্গী হয়ে ওঠা লিটন নিজের ভূমিকা সম্পর্কে এখন অনেক বেশি সচেতন। নিজের খেলাটা তিনি আগের থেকে অনেক ভালো বোঝেন বলেই দাবি করলেন, ‘নিজের খেলা এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো বুঝি। এখন যে জিনিসটা আমি অনুশীলন করছি, যেহেতু সাদা বলের ক্রিকেটে ওপেন করি, তাই আমার জন্য নতুন বলটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম দশ ওভার যদি আমি খেলে দিতে পারি, তারপর আমার জন্য খুব সহজ হয়ে যায়।’ নিজের খেলা বোঝার পাশাপাশি উন্নতির যে জায়গা আছে, সেটাও দেখতে পাচ্ছেন লিটন। অনুশীলনে নিয়মিত ঘাম ঝরিয়ে উন্নতির চেষ্টাও করে যাচ্ছেন তিনি।
এমনিতে মারকুটে ব্যাটসম্যান হিসেবেই পরিচিত লিটন। এক্ষেত্রে নিজের ধার আরও বাড়াতে চান তিনি। আক্রমণাত্মক থেকেই খেলতে চান লম্বা ইনিংস। এখন সেটা নিয়েই কাজ করছেন ব্যাটিং কোচের সঙ্গে। এ প্রসঙ্গে বললেন, ‘আমি বড় ইনিংস খেলতে পারি, সেটা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অনুভব করেছি। এই জিনিসটা অনেক আত্মবিশ^াস দেয়। দিনশেষে আপনার প্রতিদিন অনুশীলনে একটা জিনিসই থাকে, আমাকে নতুন বল মোকাবিলা করতে হবে। সেটাই আমি নিয়মিত করছি। আমি যদি দশ ওভার সফল হতে পারি তা হলে ১৫-৪০ ওভার পর্যন্ত সহজ হবে। আমি জানি আমার কতটুকু সামর্থ্য আছে। এটা নিয়েই কাজ করছি। শেষ দুদিন ধরে চিন্তা করলাম লম্বা শট কীভাবে করা যায়। এইটা নিয়ে কোচের সঙ্গে কিছু কাজ করলাম।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]