ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ১৬ জুন ২০২১ ১ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ১৬ জুন ২০২১

শেখ জামালের প্রথম, আরামবাগেরও
প্রকাশ: বুধবার, ১২ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 28

ক্রীড়া প্রতিবেদক
শক্তি আর সামর্থ্যে দুই দলের ব্যবধান বিস্তর। প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলের দিকে তাকালেও ব্যবধানটা পরিষ্কার বোঝা যায়। শেখ জামাল ধানমন্ডি সেখানে সেরা তিন দলের একটি, ১৩ দলের প্রতিযোগিতায় সবার নিচে আরামবাগ। ম্যাচের পর ম্যাচ শুধু হারই দেখেছে দলটি। প্রথম ১৫ ম্যাচে তাদের প্রাপ্তি কেবল দুটো ড্র, যার শেষটি তারা পেয়েছিল গত শনিবার মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বিপক্ষে। সেই দলটিই কি না মঙ্গলবার হারিয়ে দিয়েছে শেখ জামালকে, লিগে নিজেদের ১৫তম ম্যাচে এসে প্রথম হার দেখল শফিকুল ইসলাম মানিকের দল। অন্যদিকে ১৬তম ম্যাচ খেলতে নেমে প্রথম জয়ের স্বাদ নিল অবনমনের শঙ্কায় থাকা আরামবাগ।
চলতি লিগে প্রথম দেখায় যে দলটিকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল শেখ জামাল, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার সেই দলটির কাছেই তারা হেরেছে ৩-১ ব্যবধানে। সব থেকে বড় অঘটনের জন্মই দিয়েছে আরামবাগ। তাদের কাছে হার তিনবারের লিগ চ্যাম্পিয়ন জামালের জন্য চরম অপ্রত্যাশিতই। এই হারে শিরোপার দৌড়ে পিছিয়ে পড়ল তারা। ১৫ ম্যাচে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে তারা এখন পয়েন্ট টেবিলের তিনে। সমান খেলায় সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। সমান খেলায় ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে যথারীতি শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস। অন্যদিকে অঘটন ঘটিয়ে প্রথম জয় পাওয়ার পরও ৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতেই আরামবাগ।
দ্বিতীয় পর্ব শুরু হওয়ার পর খেলা তিন ম্যাচই জয়রথে পার হয়েছে শেখ জামাল। তবে মানিকের শিষ্যদের প্রথম পর্বের মতো অতটা ধারালো দেখায়নি। প্রতিটি ম্যাচই তারা জিতেছে ঘাম ঝরিয়ে। সে কারণেই কি না কে জানে, এদিন দলটির খেলোয়াড়রা ছিল গা ছাড়া দিয়ে। ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যাওয়ার পর জয়ের বিষয়ে মানিকের শিষ্যরা হয়ে উঠে অতি আত্মবিশ^াসী। সেটারই খেসারত তাদের দিতে হয়েছে। ১৫ মিনিটে এদিন শেখ জামালকে এগিয়ে নেন ওমর জোবে। মনির হোসেনের লং পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অসাধারণ এক সাইড ভলিতে আরামবাগের জাল কাঁপান গাম্বিয়ান এই ফরোয়ার্ড।
প্রথমার্ধের শেষদিকে এসে লিড হারায় শেখ জামাল। প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে দৃষ্টিনন্দন ফ্রি কিকে জাল খুঁজে নেন আরামবাগের উজবেক ফরোয়ার্ড ইসলমজন আব্দুকাদিরভ। বলের লাইনে থাকা গোলরক্ষক জিয়াউর রহমান লাফিয়ে উঠলেও দলকে গোল হজমের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেননি। এরপর দ্বিতীয়ার্ধে দুই মিনিটের ব্যবধানে আরও দুই গোল হজম করে শেখ জামাল। মোহাম্মদ ওমর ফারুকের গোলে ৫৪তম মিনিটে এগিয়ে যায় আরামবাগ। ৫৬ মিনিটে দুই ডিফেন্ডার পাহারায় থাকলেও আব্দুকাদিরভকে আটকাতে পোস্ট ছেড়ে বেরিয়ে আসেন জিয়া। তাকে কাটিয়ে কাটব্যাক করেন উজবেক ফরোয়ার্ড, বল পেয়ে অনায়াসেই তা ফাঁকা পোস্টে ঠেলে দেন নিহাদ জামান উচ্ছ্বাস।
৩-১ ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে শেখ জামাল। কিন্তু আরামবাগের রক্ষণে বারবার খেই হারায় তাদের আক্রমণগুলো। তবে ৮৬তম মিনিটে দারুণ এক সুযোগ মানিকের শিষ্যরা তৈরি করেছিল, কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ান আবুল কাশেম মিল্টন। জাহিদ হোসেনের নেওয়া ফ্রি কিকে জোরালো হেড নিয়েছিলেন রেজাউল করিম। কিন্তু আরামবাগ গোলরক্ষক মিল্টনকে ফাঁকি দিতে পারেননি। ঝাঁপিয়ে পড়ে কর্নারের বিনিময়ে বল আটকান তিনি। এর পরের সময়টা নির্বিঘ্নেই কাটিয়ে দেয় আরামবাগ, মাঠ ছাড়ে প্রথম জয় দেখার আনন্দ নিয়ে। দিনের আরেক ম্যাচে জয়ের আনন্দে মাঠ ছেড়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বন্দর নগরীর দলটি।
দুটো গোলই চট্টগ্রাম আবাহনী আদায় করে নেয় প্রথমার্ধে। ৩৪ মিনিটে গুইলের্মের গোলে এগিয়ে যাওয়া দলটি ইনজুরি সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করে চালর্স দিদিয়েরের বাড়ানো পাস ধরে রাকিব হোসেনের করা গোলে। দ্বিতীয়ার্ধে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি শেখ রাসেল। টানা দ্বিতীয় হারে পয়েন্ট টেবিলের ছয়ে নেমে গেছে তারা। অন্যদিকে টানা তিন জয়ে ১৬ খেলায় ২৮ পয়েন্ট নিয়ে চারে উঠে গেছে চট্টগ্রাম আবাহনী।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]