ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ ৩ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১

বজ্রপাতে নেত্রকোনায় ৮ জনসহ সারা দেশে ১২ জনের মৃত্যু
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১, ৬:০০ পিএম আপডেট: ১৮.০৫.২০২১ ৮:৫৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 127

নেত্রকোনায় পৃথক স্থানে বজ্রপাতে ৮ জন নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে আরও ৭ জন। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার বিকালে এ সব নিহতের ঘটনা ঘটেছে। নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক কাজী আব্দুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হচ্ছে, মদন উপজেলার ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে হাফেজ মো. শরীফ (১৮), মুছা মিয়ার ছেলে হাফেজ রবিন (১৭)।

খালিয়াজুরী উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের ওসেফ মিয়া (৬৫), বিপুল মিয়া (৩২) এবং বাতুয়াইল গ্রামে একজনের পরিচয় জানা যায়নি।

কেন্দুয়া উপজেলার কুন্ডুলী গ্রামের মৃত তৈয়ব আলীর ছেলে কৃষক ফজলু মিয়া (৫৫) ও পাইকুড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের আহসান খানের ছেলে বাচ্ছু খান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুর অনুমান ২টার দিকে কেন্দুয়া উপজেলার ফজলু মিয়া বাড়ির পাশেই সব্জি ক্ষেতে কাজ করছিলেন। এসময় বজ্রসহ বৃষ্টি নামে। হঠাৎ বজ্রপাতে মরাত্মকভাবে আহত হন তিনি। খবর পেয়ে স্বজনরা ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। অপরদিকে একই উপজেলার পাইকুড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের আহসান খানের ছেলে বাচ্ছু খান (৪৫) বৈরাটী আশ্রমের পাশের মাঠে কাজ করছিলেন। হঠাৎ বজ্রসহ বৃষ্টি নামলে বজ্রপাতে তিনিও আহত হন। তাকেও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। 

এদিকে মদন উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের দুপুরে বাড়ীর অদুরে একটি মাঠে ফুটবল খেলার সময় দুইজন নিহত হয়। এ সময় তিনজন আহত হয়েছে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এছাড়াও খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুরের একটি হাওরে মাছ ধরার সময় দুইজন নিহত হয়। এ সময় আরো তিনজন আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শিবিরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার বিকালে বৃষ্টিপাত চলাকালে পূর্বধলা উপজেলার ধলামূলগাঁও ইউনিয়নের পালগী গ্রামে হঠাৎ বজ্রপাতে ইছাক ফকিরের পুত্র স্কুল ছাত্র জুনায়েদ (১১) ঘটনাস্থলেই মারা যায়। 

জেলা প্রশাসক কাজী আব্দুর রহমান আরো জানান, বজ্রপাতে ৮ জন নিহত হওয়ার খবর পেয়েছি। প্রত্যেকের পরিবারকে ১০ হাজার করে টাকা প্রদান করার জন্য স্ব স্ব উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাদর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]