ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১ ৩ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১৭ জুন ২০২১

চলন্ত বাসে গণধর্ষণ: চালকের দোষ স্বীকার, ৫ জন রিমান্ডে
সাভার প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ২৯ মে, ২০২১, ৭:৫৬ পিএম আপডেট: ২৯.০৫.২০২১ ৮:০৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 120

আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ ৫ সহযোগীসহ আটক করেছে বাসের চালক ও হেলপারকে। এ ঘটনায় ৪ দিনের রিমান্ড চেয়ে আসামিদের আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, তুরাগ থানার গুলবাগ ইন্দ্রপুর ভাসমান গ্রামের মো. আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনা এলাকার সাজু (২০), বগুড়ার ধুনট উপজেলার খাটিয়ামারি এলাকার সুমন (২৪) ও একই এলাকার সোহাগ (২৫), বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগর গ্রামের সাইফুল ইসলাম (৪০) এবং নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানার ধামঘর এলাকার মনোয়ার (২৪)।

পুলিশ বলছে, আটককৃতরা সবাই আবদুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কের পরিবহন শ্রমিক।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল্লাহিল কাফী জানান, ভুক্তভোগী নারী নারায়ণগঞ্জে স্বামী ও সন্তান নিয়ে থাকেন। তিনি সেখানে একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক। তার স্বামীর বাড়ি লালমনিরহাটে। নারায়ণগঞ্জ থেকে ওই ভুক্তভোগী তরুণী বেড়াতে গিয়েছিলেন মানিকগঞ্জে বোনের বাসায়।

শুক্রবার রাতে সেখান থেকে ফেরার পথে আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের শিকার হন তিনি। তার আর্তচিৎকারে সাভার হাইওয়ে পুলিশ আটক করে বাসটির চালক হেলপারসহ তাদের অপর চার সহযোগীকে।

মামলার এজাহারে ওই তরুণী জানান, তার বোন মানিকগঞ্জে থাকেন। শুক্রবার তিনি বোনের বাসায় যান। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে নারায়ণগঞ্জে নিজের বাসায় ফেরার জন্য তিনি বাসে ওঠেন। রাত আটটার দিকে আশুলিয়ার নবীনগর বাসস্ট্যান্ডে তাকে নামিয়ে দেওয়া হয়। এ সময় বাসের জন্য তিনি অপেক্ষা করতে থাকেন।

পরে তার এক পূর্ব পরিচিত ভাই নাজমুলের সাথে দেখা হলে দুজনে একসাথে আব্দুল্লাহপুর যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা মেট্রো-জ ১১-১৬৪৮ নিউ গ্রাম বাংলা নামে একটি মিনিবাসে উঠে বসেন। পরে মিনিবাসটি আব্দুল্লাহপুর পৌঁছানোর কিছুটা আগে গাড়ি থেকে সব যাত্রী নেমে গেলে বাসে থাকা ওই নারী এবং তার পূর্বপরিচিত ভাইকে নামতে দেয় না গাড়ির হেল্পার ও ড্রাইভার । পরে ওই গাড়িটি ঘুরে আবার নবীনগরের উদ্দেশ্যে রওনা হয় চালক। এ সময় মাঝপথ থেকে তাদের পরিচিত আরও ৪ সহযোগীকে তুলে নেন গাড়িতে।

পরে নবীনগরের ডিসি নার্সারীর সামনে গাড়িটি পৌঁছালে বাসের জানালা ও দরজা আটকে বাসের ওই নারীর সাথে থাকা যুবককে বেঁধে  গাড়িতে থাকা  ড্রাইভার, হেলপার ও তার সহযোগীরা তাকে গণধর্ষণ করেন। এসময় ওই নারী চিৎকার দিলে মহাসড়কে টহলরত সাভার হাইওয়ে পুলিশ গাড়িটি আটক করে। একই সাথে ওই নারীকে উদ্ধার করে ৬ জনকেও আটক করে। আটককৃত ৬ জনকে  সাভার হাইওয়ে থানা পুলিশ আশুলিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।  

পরে ওই নারী শ্রমিক ৬ জনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠান। শনিবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ আসামিদের ৪ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠালে আদালতে চালক সুমন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তা ছাড়া বাকি ৫ জনের ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]