ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ১৬ জুন ২০২১ ১ আষাঢ় ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ১৬ জুন ২০২১

বন্দিদশায় হাঁসফাঁস ফুটবলারদের
প্রকাশ: শনিবার, ১২ জুন, ২০২১, ১১:২৪ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 14

ষ ক্রীড়া প্রতিবেদক
মাঠের পারফরম্যান্সে নেই প্রত্যাশার প্রতিফলন। বিশ^কাপ আর এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ে অংশ নিতে কাতারে গিয়ে তাই কঠিন সময়ই পার করছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। করোনাকালীন বাস্তবতা দলের সদস্যদের দৈনন্দিন জীবনও কঠিন করে তুলেছে। জৈব-সুরক্ষা বলয়ে থাকায় হোটেল আর মাঠ ছাড়া বাইরে যেতে পারছেন না কেউ। হাঁসফাঁস করছেন সবাই। পাঁচতারকা হোটেলকেও তাই ‘জেলখানা’ মনে হচ্ছে গোলরক্ষক শহীদুল আলম সোহেলের। তারপরও পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে ওমান ম্যাচের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন তারা। নিজেদের পজিশন থেকে সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু করতে আশাবাদী মিডফিল্ডার আবদুল্লাহও।
বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপে বাকি থাকা তিন ম্যাচ খেলতে ২৮ মে কাতারে পাড়ি জমায় বাংলাদেশ দল। ইতোমধ্যে দুই ম্যাচ খেলা হয়ে গেছে তাদের। আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ড্রয়ের পর ভারতের কাছে ২-০ গোলে হার দেখার পর জেমি ডের দল এখন ১৫ জুন ওমান ম্যাচের অপেক্ষায়। নিয়মিত অনুশীলনে নিজেদের প্রস্তুত করছেন তপু-ইব্রাহিমরা। কিন্তু বন্দিদশায় মানসিকভাবে হাঁপিয়ে উঠেছেন তারা। গোলরক্ষক সোহেল বলেছেন, ‘আমরা এখানে এসেছি গত মাসের ২৮ তারিখ। আসার পর এখানে হোটেলে অবস্থান করেছি। এসে দেখি যে হোটেল আর মাঠ ছাড়া কোথাও বের হতে দিচ্ছে না। কোয়ারেন্টাইনের মধ্যে ছিলাম। বের হতে পারছি না।’
ভারত ম্যাচের আগে পর্যন্ত সকালে সুইমিং আর জিমে ঘাম ঝরাতেন ফুটবলাররা। সোহেল জানালেন, এখন সেটাও নাকি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, ‘কিছুদিন আগে সুইমিং করতাম। গত ৫ দিন ধরে সেটাও করতে পারছি না। মন প্রফুল্ল করার জন্য কোথাও যেতে পারছি না। ম্যাচ খেলতে যাচ্ছি, অনুশীলনে যাচ্ছি, হোটেলে ফিরে আসছি। বলতে গেলে আমরা এক ধরনের পাঁচতারকা হোটেলের জেলে আছি। আমার ক্যারিয়ারে গত দশ বছরে কোথাও এরকম পরিস্থিতি দেখিনি। আমরা এই পরিস্থিতির মধ্যেও পরের ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে খেলতে প্রস্তুতি নিচ্ছি, এর সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে ওমানের ম্যাচে মনোযোগ দিতে চেষ্টা করছি।’
ওমান শক্তিধর প্রতিপক্ষ। কিন্তু কার্ড আর ইনজুরির কারণে অধিনায়ক জামালসহ গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন ফুটবলারকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। ওমান ম্যাচে তাই আরও বেশি চ্যালেঞ্জ দেখছেন মিডফিল্ডার আবদুল্লাহ, ‘ইনজুরি এবং কার্ডের জন্য ওমান ম্যাচে আমাদের বেশ কজন মিডফিল্ডার খেলতে পারবেন না। এখন আমরা যারা মিডফিল্ডে আছি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ এবং বড় দায়িত্ব বলে মনে করি। আমাদের আশা আমরা যারা মধ্যমাঠে খেলি তারা যদি পজিটিভ ফুটবল খেলি আমাদের জন্য সহজ হবে। ভারত ম্যাচে যা ঘটেছে ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করছি। সামনের ম্যাচ নিয়ে কোচ চেষ্টা করছেন। ওমানের ম্যাচে কীভাবে খেললে ফলাফল ভালো হবে। আমাদের কোন কোন পজিশনে দুর্বলতা আছে কোচ সেটা নিয়ে কাজ করছেন।’
আবদুল্লাহ মনে করছেন নিজেদের জায়গা থেকে সেরাটা দিতে পারলে ওমান ম্যাচেও ভালো কিছু করা সম্ভব, ‘আমরা যদি যার যার জায়গা থেকে নিজেদের দায়িত্বটা পালন করি এবং শতভাগ যদি পজিটিভ ফুটবল খেলি আমাদের জন্য সহজ হবে। ওমান সম্পর্কে আমরা সবাই জানি। শেষ ম্যাচটায়ও তারা কাতারের সঙ্গে অনেক ভালো ফুটবল খেলেছে। আমাদের জায়গা থেকে আমরা যদি ভালো ফুটবল খেলি, আশা করি কঠিন লড়াই হবে।’









সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]