ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৩০ জুলাই ২০২১ ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮
ই-পেপার শুক্রবার ৩০ জুলাই ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

সময়ের আলোর মুখোমুখি পরীমণি, এখন আর নিঃসঙ্গ নই
নিপু বড়ুয়া
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১, ১১:৪২ এএম আপডেট: ১৭.০৬.২০২১ ১:৩১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 947

‘গত কয়েকটা দিন আমার যে কীভাবে কেটেছে, তা বলে বোঝাতে পারব না। এখনও আমি ঘোরের মধ্যে আছি। সেই রাতের কথাগুলো কানে বাজছে সারাক্ষণ’ এক নিশ্বাসে কথাগুলো বলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমণি। 

মঙ্গলবার রাতে এই প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি। এখন আর নিঃসঙ্গ নন পরীমণি। বেশ ফুরফুরে মেজাজে আছেন এই অভিনেত্রী। পরীমণি বলেন, ‘ ধীরে ধীরে ট্রমা থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করছি। এজন্য ঘরের টুকিটাকি কাজের ফাঁকে আমার পছন্দের রেসিপি তৈরি করারও চিন্তা করেছি; কিন্তু কোনোভাবেই মন দিতে পারছি না।’ কথা বলতে বলতে হঠাৎ কিছুক্ষণের জন্য স্তব্ধ হয়ে থাকলেও একটু পরই সম্বিৎ ফেরে তার। অভিনেত্রীর কথায়, কয়েকদিন ধরেই তার এ সমস্যা দেখা দিচ্ছে। হঠাৎই সব কিছু এলোমেলো হয়ে যায়।

ঘটনার পর সহকর্মীদের কাছ থেকে কেমন সাপোর্ট পেয়েছেন? জবাবে একটু অভিমানের সুরেই পরীমণি বলেন, ‘আমি যাদের কাছ থেকে সাপোর্ট আশা করেছিলাম। তাদের আমি পাশে পাইনি। কিন্তু আমার অন্য সহকর্মীরা যেভাবে এগিয়ে এসেছেন তা দেখে আমি সত্যিই আপ্লুত। এখন আর আমি নিঃসঙ্গ নই। আমি সবাইকে পাশে পেয়েছি। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।’

‘গত কয়েকদিনে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে থেকে যে সহযোগিতা পেয়েছি, তা আমার জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রশাসন অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেফতার করে ফেলেছে। এটা সত্যিই ম্যাজিক মনে হয়েছে’ বললেন পরীমণি। ডিবি কার্যালয়ের কথা উল্লেখ করে এ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি নিজেই সেখানে গিয়েছি। হারুন স্যারের সঙ্গে দেখা করে কথা বলেছি। সুষ্ঠু বিচার পাব বলে আমাকে আশ্বস্ত করেছেন উনি। মানসিক সাপোর্ট দিয়েছেন। ওনার সঙ্গে কথা বলে নিজেকে নতুনভাবে আবিষ্কার করেছি। আমি স্বস্তি পেয়েছি।’

সেদিন ভয়ঙ্কর রাতের বর্ণনা দিতে গিয়ে পরীমণি বলেন, ‘আমার হাতের মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে ফেলে দেয়। আবার তুলে নিয়ে ৯৯৯ কল সেন্টারে ফোন দিয়েছিলাম। ক্লাবের ভেতরের লাইটগুলো বন্ধ করতে বলেছিলেন নাসির। কিন্তু ওয়েটাররা লাইটের সুইচ চেপে ধরেছিলেন। তারা লাইট বন্ধ করেননি। তাদের সাহসকে স্যালুট জানাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘যেভাবে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছিলেন নাসির তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। জিমিকে একজন গলা চেপে ধরেছিল। আর আমাকে বলছে, ৩০০ টুকরো করে ডোবায় ফেলে দেবে। সত্যিই ভয় পেয়েছিলাম।’

শোবিজে পরীমণিকে একরোখা হিসেবেই সবাই জানেন। মতের অমিল হওয়ায় অনেক কাজের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। আবার মানবিক পরীমণিকেও দেখা গেছে। প্রতিবছর এফডিসিতে সহশিল্পীদের জন্য কোরবানিও দিয়ে থাকেন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবসময় সরব তিনি। 

পরীমণি বলেন, ‘আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন আমার চাওয়া, আসামিরা যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায়। কোনোভাবেই যেন এ ধরনের লোকেরা আর কোনো মেয়েকে এভাবে নির্যাতন-অপমান করার সাহস না পায়। আমি হার মানব না। অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাব।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]