ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

অলিম্পিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান বরখাস্ত
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১, ১১:৩৮ পিএম আপডেট: ২৩.০৭.২০২১ ৭:৩৯ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 71

অলিম্পিকের মাত্র একদিন আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরিচালককে বরখাস্ত করা হয়েছে। কেন্তারো কোবায়াশির নব্বইয়ের দশকের কিছু ফুটেজ সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে যাতে দেখা যাচ্ছে যে, তিনি হলোকাস্ট নিয়ে রসিকতা করছেন।

জাপানের অলিম্পিক প্রধান সিকো হাশিমোতো বলেছেন, ভিডিওটি "ইতিহাসের বেদনাদায়ক তথ্য" নিয়ে উপহাস করেছে।  

কয়েক দিন আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের এক সঙ্গীত কম্পোজারের পদত্যাগের পর এই ঘটনা ঘটলো। ওই কম্পোজার স্কুলে থাকার সময় এক প্রতিবন্ধী সহপাঠীকে হয়রানি করেছিল বলে অভিযোগ সামনে আসার পর তিনি পদত্যাগ করেন।

গত মার্চ মাসে ক্রিয়েটিভ চিফ হিরোশি সাসাকি স্থূল দেহের অধিকারী কৌতুক অভিনেতা নাওমি ওয়াতানাবে ‌'অলিম্পিগ' হিসাবে উপস্থিত হতে পারেন বলে উপহাস করেন। পরে তিনি ক্ষমা চেয়েছিলেন।

ফেব্রুয়ারিতে, ইয়োশিরো মরিকে জোর করে আয়োজক কমিটির প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয় নারীদের নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করার কারণে। এসব মন্তব্যকে 'অগ্রহণযোগ্য' বলে উল্লেখ করা হয়।

মরির উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছিল যে, তিনি বলেছেন নারীরা খুব বেশি কথা বলে এবং সেজন্যই নারী বোর্ড পরিচালকের সাথে বৈঠকে 'অনেক সময়' লাগে।

সর্বশেষ এই কেলেঙ্কারিটির জন্য সাবেক কৌতুক অভিনেতা কোবায়াশি কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েন। ২৩ বছর আগে তিনি আরেক জন কৌতুক অভিনেতার সাথে মিলে একটি দৃশ্যে অভিনয়ের সময় ওই কৌতুকটি করেছিলেন। তারা দু'জনই শিশুদের বিনোদন দেয়ার অভিনয় করছিলেন।

সংবাদ সংস্থা এএফপি জানায়, কোবায়াশি তার কিছু সহকর্মীর দিকে ফিরে কিছু কাগজের পুতুলকে উল্লেখ করে বলেছিলেন যে "এরা হচ্ছে সেই সময়ের যখন আপনি বলেছিলেন 'চলেন হলোকাস্ট নিয়ে খেলি'।

সাইমন উইসেন্থাল সেন্টারের (এসডাব্লিউসি) এর সহযোগী ডিন এবং গ্লোবাল সোশ্যাল অ্যাকশন ডিরেক্টর র‍্যাবাই এব্রাহাম কুপার বলেছেন, "কেউ যতই সৃজনশীল হোক না কেন, নাৎসি গণহত্যার শিকারদের নিয়ে উপহাস করার অধিকার তার নেই।"

কোবায়াশি তাঁর বরখাস্তের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে একটি বিবৃতিও জারি করেছিলেন। এতে বলা হয়, "বিনোদনের কারণে মানুষের অস্বস্তি অনুভব করা উচিত নয়। আমি বুঝতে পেরেছি যে, সে সময় আমার বোকার মতো শব্দ চয়ন ভুল ছিল এবং আমি তার জন্য অনুতপ্ত।"

এসব কেলেঙ্কারি গেমস নিয়ে যে অস্বস্তি তৈরি হচ্ছে তা বিন্দু মাত্রও কমাতে সহায়তা করেনি। মহামারীর কারণে গত বছর গেমস স্থগিত করা হয়েছিল।

সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা গেছে যে জাপানের প্রায় ৫৫% মানুষ গেমস আয়োজনের বিরোধিতা করেছিল। তাদের আশঙ্কা, এই একটি ইভেন্ট থেকে কোভিড মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে বা এটি একটি সুপার-স্প্রেডার ইভেন্টে পরিণত হতে পারে, বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে।

এরিমধ্যে, আয়োজকরা অ্যাথলেট এবং কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্রমবর্ধমান কোভিড শনাক্তের ঘটনা মোকাবেলা করছেন। বৃহস্পতিবার তারা বলেছিল যে, গেমসের জন্য অনুমোদিত ৯১ জন এখন করোনাভাইরাস পজিটিভ বলে পাওয়া গেছে।

জাপানের জনসংখ্যার মধ্যেও সংক্রমণ বাড়ছে। দেশটির মোট জনসংখ্যার কেবলমাত্র এক তৃতীয়াংশকে টিকা দেওয়া হয়েছে-সব মিলিয়ে গেমসের সময়ে দেশটিতে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

তবে টোকিও ২০২০ চলছে, বুধবার স্বাগতিক জাপান তাদের সফটবল ম্যাচটি জিতেছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই সপ্তাহের এই প্রতিযোগিতা শুরু হবে।

কোবায়াশিকে অপসারণের পরে, আয়োজকরা এখন শুক্রবারের অনুষ্ঠানটি কীভাবে করবেন তা বিবেচনা করছেন- ঝুঁকি হ্রাস করার জন্য, যেখানে মাত্র ৯৫০ জন অংশ নেবেন।

এক বিবৃতিতে হাশিমোতো বলেন, "উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি আসন্ন হওয়ার পরও, অনাকাঙ্ক্ষিত উদ্বেগ তৈরির জন্য আমরা অলিম্পিকের সাথে জড়িত সবাই, টোকিওর নাগরিক এবং জাপানি জনগণের কাছে ক্ষমা চাইছি।"

/এমএইচ/




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]