ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৬ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

অলিম্পিকের পর্দা উঠল আশার বার্তা দিয়ে
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ১:২৪ এএম আপডেট: ২৪.০৭.২০২১ ১০:৫৫ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 53

দর্শকশূন্য গ্যালারি। প্রায় ৭০ হাজার ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামে উপস্থিত মাত্র ৯৫০ জন। প্রাণঘাতী জীবাণু করোনার কারণে জনজীবন স্থবির। এরই মাঝ দিয়ে এক বছরের অপেক্ষা শেষে টোকিও গেমসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করলেন জাপান সম্রাট নারুহিতো।

আইওসি (ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি) প্রধান টমাস বাখ বলেন ‘এবারের আয়োজন একতার, নতুন আশা, নতুন উদ্দীপনার ও অলিম্পিকের আলোয় এই আঁধার কেটে যাওয়ার প্রত্যয়।’

দর্শক বাদ দিলে উদ্বোধন আয়োজনে অন্য কিছুর কমতি ছিল না। আলোর ঝলকানির মধ্য দিয়ে জাপানি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি ফুটিয়ে তোলা হয়। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায় শুরু হয় উদ্বোধন অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানের শুরুতেও ছিল করোনা। বিশ্বব্যাপী করোনায় নিহতদের স্মরণে শুরুতেই নীরবতা পালন করা হয়। তবে মৃত্যু আর হাহাকারের মধ্যেও জীবন জয়ী হবে দেওয়া হয় এমন বার্তাও। এই অতিমারির সময়ে  অলিম্পিকের জন্য অ্যাথলেটরা   নিজেদের কীভাবে প্রস্তুত করেছেন দেখানো হয় সেই ভিডিও। 

অলিম্পিকের উদ্বোধন মানেই বিশ্বের কৃতী ব্যক্তিদের সুসমাগম। ব্যতিক্রম ঘটল এবার। হাতেগোনা আমন্ত্রিতদের মধ্যে ছিলেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। অনেকেই ভার্চুয়ালি যুক্ত হন। অলিম্পিকের ঐতিহ্যবহুল মার্চপাস্ট শুরুর আগে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন বাংলাদেশের শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস। এ সময় তার হাতে ছিল অলিম্পিক লোগো সংবলিত সম্মাননা লরেল। গেমসের শুভকামনা জানান তিনি। 

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ফিরিয়ে আনা হয় ১৯৬৪ সালের টোকিও গেমসের স্মৃতি। এবারের অলিম্পিকের সাতটি রিং তৈরি হয়েছে বিশেষভাবে। ১৯৬৪ সালে অ্যাথলেটরা যে গাছগুলো লাগিয়েছিলেন সেগুলো দিয়েই বানানো হয়েছে এই রিংগুলো। 

টোকিও গেমসে অংশ নিচ্ছে ২০৭ দেশের ১১ সহস্রাধিক প্রতিযোগী। বাংলাদেশ থেকে অংশ নিয়েছেন ৬ জন। বাংলাদেশ দলের হয়ে পতাকা বহন করেন সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। 

এবারের টোকিও গেমস আদৌ আলোর মুখ দেখবে কি না, এ নিয়ে সংশয় ছিল শেষ পর্যন্ত। স্পন্সররা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। সরে গেছে টয়োটার মতো প্রতিষ্ঠান। মিডিয়াতেও আসছিল নেতিবাচক খবর। জাপানি জনগণের বড় অংশই এই দুঃসময়ে অলিম্পিক গেমস চায় না, এমন খবর প্রকাশিত হচ্ছিল নিয়মিতই। তবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। ভেতরে যাওয়ার অনুমতি নেই, তাই অলিম্পিক স্টেডিয়ামের বাইরে ভিড় জমায় হাজারো মানুষ। জাপানের সাধারণ মানুষ যে অলিম্পিক গেমসকে স্বাগত জানাচ্ছে, এটা যেন তারই দৃষ্টান্ত। 

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের দুদিন আগেই অবশ্য শুরু হয়েছে মাঠের অলিম্পিক। বুধবার শুরু হয়েছে মেয়েদের ফুটবল। বৃহস্পতিবার ছেলেদের ফুটবলে খেলতে নামে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, স্পেন ও জার্মানি। 

এবারে ৩৩ খেলায় ৩৩৯ ইভেন্টে লড়বেন ১১ হাজার ৩২৪ জন ক্রীড়াবিদ। 

/টিএম/





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]