ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৭ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

পর্নোগ্রাফি থেকে রাজ কুন্দ্রার অঢেল সম্পদ!
আনন্দ সময় ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ৪:১৮ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 145

পর্নোগ্রাফি বানানোর অভিযোগে রাজ কুন্দ্রা গ্রেফতার হওয়ার পর তার স্ত্রী অভিনেত্রী শিল্পা শেঠিকে সন্দেহ করছে পুলিশ। তবে এখনও পর্যন্ত শিল্পার বিরুদ্ধে কোনোরকম তথ্য-প্রমাণ পায়নি মুম্বাই পুলিশ। তবে রাজ কুন্দ্রার এই কাণ্ড নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে একটি ছবি শেয়ার করেছেন শিল্পা শেঠি। তাতে রয়েছে জেমস থার্বারের একটি উক্তি।

সেই উক্তির ব্যাখ্যা দিয়ে শিল্পা লিখেছেন, ‘আমি ভাগ্যবান যে আমি বেঁচে আছি। আমি গভীর নিশ্বাস নিই। এর আগেও কঠিন চ্যালেঞ্জ অতিবাহিত করেছি। ভবিষ্যতেও করব। আমার জীবন উপভোগ করতে কোনো কিছুই বাধা হতে পারে না।’

উল্লেখ্য, রাজ কুন্দ্রা প্রথম বিয়ে করেছিলেন কবিতা নামে এক নারীকে। সেই সংসারে একটি মেয়েও আছে। অঢেল অর্থ-সম্পদের সুবাদে তিনি বিনোদন জগতের সঙ্গে যুক্ত হন। শিল্পা শেঠির সঙ্গে পরিচয় হওয়ার পর সেই সম্পর্ক ভালোবাসায় রূপ নেয়। কবিতাকে ডিভোর্স দিয়ে রাজ বিয়ে করেন শিল্পাকে। ২০০৯ সালে ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রাকে বিয়ে করেন শিল্পা। এর আগে তারা ২০০৭ সাল থেকে প্রেম করেছিলেন।

রাজ কুন্দ্রা আমাকেও প্রস্তাব দিয়েছিলেন : পুনীত কৌর
মডেল-অভিনেত্রী পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া জানিয়েছেন যে, তাদেরকে রাজ কুন্দ্রাই সফট পর্ন ভিডিওতে এনেছেন। এবার এই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন ইউটিউবার পুনীত কৌর। তিনি জানান, রাজ তাকেও প্রস্তাব দিয়েছিলেন এসব ভিডিওতে কাজ করার জন্য। ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে দুটি ছবি শেয়ার করে পুনীত বলেন, রাজ আমাকে ‘হটশটস’ অ্যাপের ভিডিওতে কাজ করতে বলেছিলেন। তবে আমি রাজি হইনি।

পুনীত প্রথমে ভেবেছিলেন, কোনো ভুয়া অ্যাকাউন্ট থেকে তার কাছে মেসেজ এসেছে। কিন্তু না, পরক্ষণেই বুঝতে পারেন এটা আসল রাজ কুন্দ্রা। যিনি তাকে সরাসরি এই কাজের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। উল্লেখ্য, পুনীত কৌর একজন ভারতীয়-আমেরিকান মেকআপ আর্টিস্ট। ‘কৌর বিউটি’ নামে তার একটি ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে। সেখানে প্রায় তিন লাখ সাবস্ক্রাইবার। মেকআপ, কসমেটিক্স এবং মেয়েদের জামা বিষয়ক ভিডিও তৈরি করেন এই রমণী।

মডেল সাগরিকার অভিযোগে গ্রেফতার হন রাজ
গত ফেব্রুয়ারিতে এক অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় রাজ কুন্দ্রাকে। কার অভিযোগের ভিত্তিতে শ্রীঘরে গেলেন রাজ কুন্দ্রা? ভারতীয় গণমাধ্যম জি নিউজ এক প্রতিবেদনে জানায়, মডেল সাগরিকা সুমনকে ওয়েব সিরিজে অভিনয়ের লোভ দেখিয়েছিলেন রাজ কুন্দ্রা। প্রতিশ্রুতি দেন অভিনয় জগতে সুযোগ করে দেবেন। কথামতো সাগরিকা অডিশনও দিতে গিয়েছিলেন; সেখানেই ঘটে বিপত্তি। অডিশন নেওয়ার সময় তাকে নগ্ন হতে বলা হয়। যারা অডিশন নিচ্ছিলেন তাদের মধ্যে একজন ছিলেন রাজ। সেই সময়ই অভিযোগ দায়ের করেন সাগরিকা। সাগরিকা প্রায় তিন-চার বছর ইন্ডাস্ট্রিতে মডেলিং করছেন।

তিনি পুলিশকে জানান, গত বছর আগস্ট মাসে রাজের সহকারীর কাছ থেকে ফোন পান অডিশনের জন্য। যে ওয়েব সিরিজের জন্য তিনি অডিশন দেন সেই সিরিজের প্রযোজক ছিলেন রাজ কুন্দ্রা। শুধু এই সিরিজই নয়, অন্য ছবিতেও অভিনয়ের সুযোগ দেওয়ার লোভ দেখানো হয় তাকে। কাজ করতে রাজি হলেই ভিডিও কলে অডিশন নেওয়া হয় তার। সেই সময় পোশাক ছাড়তে বলা হয় সাগরিকাকে, এরপরই তিনি অভিযোগ দায়ের করেন। রাজ ছাড়া তার সহকারীর নামেও অভিযোগ জানান সাগরিকা।

উদ্ধার করা হয়েছে ৭০টি পর্ন ভিডিও
শিল্পা শেঠি ও রাজ কুন্দ্রার বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ৭০টি পর্ন ভিডিও। বৃহস্পতিবার তাদের বাড়িতে রেড করে মুম্বাই পুলিশ এগুলো উদ্ধার করে। জানা যায়, বহু বছর ধরেই তিনি এই কাজ করে আসছেন। ‘হটশটস’ নামের একটি অ্যাপের মাধ্যমে এসব ভিডিও প্রচার করতেন তিনি। রাজের অন্যতম সহযোগী উমেশ কামাতকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার উদ্ধার করা ভিডিওগুলো উমেশের তত্ত্বাবধানেই তৈরি হয়েছে বলে জানা গেছে। গত বছর গুগল প্লে স্টোর থেকে হটশটস অ্যাপটি সরিয়ে দেওয়া হয়। এদিকে রাজ-শিল্পার বাড়ি থেকে একটি সার্ভারও উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্বামী গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে একেবারে আড়ালে রয়েছেন শিল্পা।

দৈনিক আয় ৮ লাখ
পর্ন ভিডিও তৈরি ও তা অ্যাপের মাধ্যমে ছড়িয়ে প্রতিদিন ৬-৮ লাখ টাকা উপার্জন করতেন রাজ কুন্দ্রা। যুক্তরাজ্যের বাসিন্দা আত্মীয় প্রদীপ বক্সির সঙ্গে যোগসাজশ করে এই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। ভারতীয় গণমাধ্যমে ক্রাইম ব্রাঞ্চ জানায়, হাজার হাজার কোটিতে এই ব্যবসার লেনদেন হয়েছে, সেসব আর্থিক লেনদেনের প্রমাণ আমাদের হাতে রয়েছে। আমরা এসব আয় খতিয়ে দেখছি। এগুলো অপরাধের প্রমাণ হিসেবে ধরা হবে, এখন পর্যন্ত আমরা রাজ কুন্দ্রার বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট থেকে ৭.৫ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছি। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে রাজ কুন্দ্রা আর্মস প্রাইম মিডিয়া নামে একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। ছয় মাস পর সেই কোম্পানির আওতায় তৈরি হয় হটশট নামে ভিডিও অ্যাপ। যে অ্যাপটিকে মুম্বাই পুলিশের পক্ষ থেকে পর্ন স্ট্রিমিং অ্যাপ বলে দাবি করা হয়েছে। 

৫৫০ মিলিয়ন ডলারের মালিক রাজ!
টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাজ কুন্দ্রার বর্তমান সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৫৫০ মিলিয়ন ডলার! সাড়ে ৪ হাজার কোটি রুপিরও বেশি। রাজ কুন্দ্রার ছোটবেলা কেটেছিল নিদারুণ অভাব-অনটনে। তার বাবা ছিলেন একজন বাস কন্ডাক্টর। মা কাজ করতেন একটি কারখানায়। কোনোমতে চলত তাদের সংসার। ব্যবসা করার ঝোঁক তার প্রথম থেকেই ছিল। একটা সময় নেপাল থেকে পশমের শাল এনে লন্ডনে রফতানি করতেন রাজ কুন্দ্রা। এই ব্যবসাই তাকে সাফল্য এনে দেয়। তবে অতিরিক্ত অর্থ কামানোর জন্যই তিনি পর্ন ব্যবসায় নামেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

রাজ-শিল্পার অঢেল সম্পদ!
রাজ কুন্দ্রা প্রায় ৪ হাজার কোটি রুপির মালিক! আর শিল্পা শেঠির নামেও রয়েছে অঢেল সম্পদ। ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে রাজ-শিল্পার সম্পদের চিত্র। সেখানে বলা হয়েছে, রাজের সঙ্গে শিল্পার পরিচয় ঘটেছিল ২০০৭ সালে। তখন রাজ ছিলেন বিবাহিত। জানা যায়, শিল্পার সঙ্গে সম্পর্কের কারণেই রাজের ওই সম্পর্ক ভেঙে গিয়েছিল। এরপর তারা বিয়ে করেন। মুম্বাই থেকে কিছুটা দূরে খান্ডালায় শিল্পার এক বন্ধুর ফার্ম হাউসে অনুষ্ঠিত হয়েছিল তাদের বিয়ে। ওইদিন শিল্পাকে ৩ কোটি রুপি দামের একটি আংটি দিয়েছিলেন রাজ। শিল্পা শেঠির শখ ছিল মুম্বাইয়ের সমুদ্র তীরে ভিলার। স্ত্রীর শখ পূরণ করতে রাজ ম্যাক্সিমাম সিটিতে একটি ভিলা কিনেছিলেন। সেখানেই তারা বসবাস করেন।

বিলাসবহুল ওই বাড়ির ছবি মাঝেমধ্যেই শেয়ার করেন তারা। স্ত্রীর জন্য পৃথিবীর সর্বোচ্চ ভবন বুর্জ খলিফাতেও ফ্ল্যাট কিনেছিলেন রাজ। দুবাইয়ের বিস্ময়কর এই ভবনটির ১৯তম ফ্লোরে ছিল সেই ফ্ল্যাটটি। তবে পরিবারের তুলনায় সেটি ছোট হওয়ায় পরবর্তী সময়ে তা বিক্রি করে দেন তারা। ইংল্যান্ডেও রয়েছে শিল্পা-রাজের সম্পত্তি। সারে ওয়েইব্রিজ এলাকায় তাদের সাত বেডরুমের একটি বিলাসবহুল বাংলো রয়েছে। সেটার নাম ‘রাজমহল’। বছরের বিভিন্ন সময়ে তারা সেখানে অবকাশ যাপনে যান। শিল্পা ও রাজের রয়েছে প্রাইভেট জেটও! বিভিন্ন সময় তারা সেই বাহনের ছবি-ভিডিও ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করেন।

ব্যবসা চালানোর জন্য বিকল্প পথ
রাজ কুন্দ্রা সম্পর্কে পুলিশি তদন্ত থেকে জানা গেছে, গুগল এবং অ্যাপল স্টোর থেকে রাজের ‘হটশটস’ অ্যাপ সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ব্যবসা চালানোর জন্য বিকল্প পথ ভেবে রেখেছিলেন শিল্পা শেঠির স্বামী। ‘হটশটস’ অ্যাপ বাতিল হয়ে যাওয়ার কারণে ‘বলিফেম’ নামে অন্য একটি অ্যাপ তৈরির পরিকল্পনা করেছিলেন রাজ। এমন তথ্য উঠে এসেছে তার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে। রাজ এবং উমেশ ছাড়াও এই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে ছিলেন তার বোনের স্বামী প্রদীপ বক্সি। রাজ গ্রেফতার হওয়ার পর ইতোমধ্যেই সাতটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। 

রাজের আইনজীবী অবোদ পণ্ডার দাবি, তার মক্কেলের ‘হটশটস’ অ্যাপে যে ধরনের ছবি দেখানো হয়েছে, সেগুলোকে পর্ন বলা যায় না। কারণ সেই ছবিগুলোর মধ্যে কোনোটিতেই ‘প্রকৃত যৌন সঙ্গম’ দেখানো হয়নি। অবোদের মতে, অন্যান্য প্লাটফর্মের মতো রাজের অ্যাপের ছবিগুলোকে ‘অশ্লীল’ বলা গেলেও ‘পর্ন’ তকমা দেওয়া যায় না।

বেটিং চক্রের সঙ্গে জড়িত রাজ কুন্দ্রা
রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ উঠে আসছে। মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চের সন্দেহ পর্নোগ্রাফি থেকে উপার্জনের বিপুল পরিমাণ টাকা রাজ অনলাইন বেটিংয়ে ব্যবহার করতেন। রাজ কুন্দ্রার দুটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের লেনদেন সন্দেহজনক বলে জানাচ্ছে পুলিশ। তার মধ্যে একটি আফ্রিকার অ্যাকাউন্ট। পুলিশ জানিয়েছে, রাজ কুন্দ্রার অফিসে তল্লাশি চালিয়ে যে ল্যাপটপ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, তাতে ৫১টি অ্যাডাল্ট মুভি রয়েছে। 

জানা যাচ্ছে, এই ব্যবসায় প্রতি মাসে ৪-১০ হাজার পাউন্ড ব্যয় হতো। প্রতিটি বিল, ভাউচার রাজ কুন্দ্রার কাছে পৌঁছে দেওয়া হতো। ইতোমধ্যেই এই মামলায় আইটি ডেভেলপারের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। জানা গেছে, রাজ কুন্দ্রার গ্রেফতারির ঠিক আগের দিন তার হিসাবরক্ষক বহু তথ্য মুছে দিয়েছিলেন, যা পুলিশ পুনরায় উদ্ধার করেছে।

শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা কারাগারে
পর্নোগ্রাফি ফিল্ম তৈরির অভিযোগে বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। সোমবার কুন্দ্রাকে ডেকে পাঠায় মুম্বাই পুলিশের প্রপার্টি সেল। রাত ৮টা নাগাদ তিনি হাজিরা দেন। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভারতের সিএমএম আদালতে হাজির করা হয় রাজকে। জামিন হয়নি। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

/টিএম/




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]