ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৭ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

পুরনো মোড়কে নতুন অলিম্পিক
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ৫:৩২ এএম আপডেট: ২৪.০৭.২০২১ ১০:৫৪ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 71

মাস্ক, কোয়ারেন্টাইন, লালা পরীক্ষা এগুলোও এখন অলিম্পিক গেমসের অবিচ্ছেদ্য অনুষঙ্গ। প্রাণঘাতী জীবাণু কোভিড-১৯ আমূল বদলে দিয়েছে টোকিও গেমসকে। ২০২০ সালের নির্ধারিত গেমস অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২১ সালে।

 এমন ঘটনা অলিম্পিকের সোয়াশো বছরের ইতিহাসে নেই। গতবছর অলিম্পিক আয়োজন স্থগিত হওয়ার সময় গেমস আবার শুরু হতে পারে, এমনটা ভাবেননি অনেকেই। বলা হয়ে থাকে, অলিম্পিকের আলো কখনও নেভে না। অথচ বাস্তবতা ছিল তেমনটাই। অলিম্পিকের আলো বাঁচিয়ে রাখাটা হয়ে উঠল চ্যালেঞ্জিং।

এত অনিশ্চয়তার মধ্যেও অলিম্পিক আয়োজন নিয়ে হাল ছাড়েননি আয়োজকরা। তাদের ভাষ্য ছিল, অলিম্পিক শিখা টানেলের শেষে হয়ে উঠতে পারে আলোর রেখা। আয়োজকদের পাশে ছিল আইওসি (ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি)। সংস্থাটির সভাপতি থমাস বাচের কথাগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যারা শেষ পর্যন্ত থাকতে পারে, কেবল তারাই বিশেষ মুহূর্তগুলো উপভোগ করতে পারে। 

কথায় আছে, ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়, পুরনো এই প্রবাদটির সত্যতা এবারের এই টোকিও গেমস। যদিও পদে পদে এসেছে বাধা, তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। জাপানের জনগণের একটা বড় অংশই এই গেমস আয়োজনের বিপক্ষে অবস্থান নেয়। একদিকে খরচ বাড়তে থাকে, অন্যদিকে স্পন্সররা সরে দাঁড়াতে শুরু করে। শেষ মুহূর্তে এসে টোকিও গেমসের অন্যতম স্পন্সর টয়োটা সরে দাঁড়ায়। এক বছর পিছিয়ে যাওয়ার কারনে খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে ১১.৫ বিলিয়ন ডলার, যা মোট খরচের ২২ শতাংশ।

বাড়তি খরচের এই বোঝার সঙ্গে যোগ হয় করোনার ছোবল। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকে দিনকে দিনই। অলিম্পিক ভিলেজেও হানা দেয় করোনা। শুধু বৃহস্পতিবারেই আক্রান্ত হয়েছেন ১২ জন। ওই দিন পর্যন্ত মোট আক্রন্তের সংখ্যা ৮৭ জন। যার মধ্যে রয়েছেন ৮ জন অ্যাথলেট। কোভিড পজিটিভ হওয়ার কারণে তারকাদের নাম প্রত্যাহারও থেমে নেই। এই তালিকায় রয়েছেন বিশ্বসেরা শুটার আম্বার হিল, টেনিস তারকা কোকো গাউফ। একজন কোভিড পজিটিভ অফিসিয়ালের কাছাকাছি আসার কারণে যুক্তরাজ্যের ছয়জন অ্যাথলেটকে পাঠানো হয় আইসোলেশনে। 

গত কয়েকদিনে এই ধরনের সংবাদে সয়লাব মিডিয়া। অতি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা সত্ত্বেও করোনাকে আটকে রাখা যাচ্ছে না। বাধ্যতামূলক মাস্ক পরা, ঘুম, খাওয়া, প্রশিক্ষণ এ সবকিছুতে যেন কোনোভাবেই একজন আরেকজনের শারীরিক সান্নিধ্যে আসতে না পারে, এর জন্য কঠোর বিধিবিধান চালু করা হয়েছে। প্রতিদিন টেস্ট করা হচ্ছে। এতসব সুরক্ষাব্যবস্থার ফাঁক গলে ঢুকে পড়ছে করোনা।

করোনার সঙ্গে যুদ্ধ তো বটেই, নতুনত্বের দিক থেকেও এবারের টোকিও গেমস বিশেষ একটা জায়গা করে নিয়েছে। অলিম্পিকে এই প্রথমবারের মতো কোনো ব্যক্তিগত ইভেন্টে তৃতীয় লিঙ্গের একজন অংশ নিচ্ছেন। তৃতীয় লিঙ্গের নিউজিল্যান্ডের লরেল হুবার্ড অংশ নেবেন মেয়েদের ভারোত্তোলনে। নারীদের অংশগহণের দিক থেকে এবারের টোকিও গেমস ছাপিয়ে গেছে অতীতের সব গেমসকেই। এবারে মোট প্রতিযোগীর ৪৮.৮ শতাংশ নারী, যা একটা রেকর্ড। ৩৩ ইভেন্টে ১১ সহস্রাধিক প্রতিযোগী এবারের আসরে অংশ নিচ্ছেন। 

নতুনত্ব আনা হয়েছে বেশ কিছু ইভেন্টে। প্রথমবারের মতো মিশ্র (নারী-পুরুষ) ইভেন্ট সংযোজন করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে আছে সাঁতারে ৪ গুনন ১০০ মিটার মিডলে, ট্রাইথলন ইত্যাদি। নতুনভাবে যুক্ত করা হয়েছে ক্যারাটে, স্কেটবোর্ডিং, ক্লাইম্বিং, সফটবল ও সার্ফিং। 
প্রযুক্তিগত দিক থেকেও এবারের অলিম্পিক টেক্কা দিয়েছে অতীতকে। পদক তৈরি হয়েছে পুনর্ব্যবহৃত মোবাইল ফোন থেকে। অলিম্পিক মশাল নির্মিত হয়েছে ২০১১ সালের ভয়াল ভূমিকম্পের পর অ্যালুমিনিয়াম বর্জ্য থেকে। 

তরুণদের আকর্ষণ বাড়াতে এই ধরনের নতুনত্বের সংযোজন করার কথা বলেছেন আয়োজকরা। খেলাধুলায় নগরায়নের প্রবণতা মাথায় রেখেই এমন নতুনত্বের ছোঁয়া দেওয়া হয়েছে। আইওসি সভাপতি বাচ বলেছেন, তরুণরা খেলাধুলায় নিজে থেকেই আসবে, এই ভাবনাটা সবক্ষেত্রে সঠিক নয়। খেলাধুলাকে তাদের কাছে নিয়ে যেতে হবে। তরুণদের হাতে অনেক বিকল্প তুলে দিতে হবে।

শত সীমাবদ্ধতার মাঝেও প্রযুক্তি ও ঐতিহ্যের মিশেলে নতুন অলিম্পিক উপহার দেওয়ার চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেনি টোকিও আয়োজকরা।








সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]