ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৭ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

ব্যাটিং ব্যর্থতায় টাইগারদের হার
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ৬:০৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 56

টি-টোয়েন্টি বলেই বুঝি পথ হারাল বাংলাদেশ! টেস্টের পর ওয়ানডেতেও যে দলটিকে পাত্তা দেয়নি টাইগাররা, দাপুটে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছিল সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও, সেই জিম্বাবুয়ের কাছেই সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ২৩ রানের হার দেখল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল।

স্বাগতিকরা ১৬৬ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি গড়েছিল ঠিকই, কিন্তু হারারের ব্যাটিংবান্ধব উইকেটে ওই রান টপকে জয় তুলে নেওয়ার সামর্থ্য অবশ্যই এই বাংলাদেশের ছিল। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের নিদারুণ ব্যর্থতা সেই সামর্থ্য প্রমাণের পথে হয়ে উঠল বড় অন্তরায়। অতিথিরা তাই অলআউট ১৪৩ রানে।

শুরুর ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার যে গল্পকথা জিম্বাবুয়ে সফরজুড়েই চর্চিত হচ্ছিল, সৌম্য সরকার-নাইম শেখদের ব্যাট কিছু সময়ের জন্য হলেও থামিয়ে দিয়েছিল সেই চর্চা। কিন্তু এদিন সৌম্য-নাইমদের পারফরম্যান্স চোখ রাঙিয়ে বলে গেল টিম বাংলাদেশে শ্রীহীন শুরুর রোগটা এখন চিরন্তন হওয়ার পথে! মিডলঅর্ডারও এদিন যোগ দিল ব্যর্থতার মিছিলে, তাতে ৬৮ রান তুলতেই ৬ উইকেট নেই বাংলাদেশের, ম্যাচের বয়স তখন ১১.২ ওভার। 

তখনই মূলত এই ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর দলের পরাজয় লেখা হয়ে যায়। আফিফ হোসেন (২৪) আর অভিষিক্ত শামীম হোসেন পাটোয়ারি (২৯) কিছুটা প্রতিঘাত হানার চেষ্টা চালিয়েছিলেন পরে, তাতে কেবল পরাজয়ের ব্যবধানই কমেছে।

তামিম-মুশফিকের মতো সিনিয়রদের না থাকা, চোট নিয়ে লিটন দাসের ছিটকে যাওয়া ব্যাটিং লাইনআপে যে বড় শূন্যতা তৈরি করেছে, সেটা প্রমাণ করে গেছে এই ম্যাচ। চওড়া ব্যাটে সৌম্য-নাইমদের আগের ম্যাচ জিতিয়ে দেওয়া, সেটা যে কেবলই ফ্লুক ছিল, তাও আর বুঝতে বাকি রইল না। ধুমধারাক্কা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে আত্মাহুতি দিলেন ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু প্রান্ত আগলে রেখে, ছোট ছোট পুঁজি গড়ে দলকে নেওয়াও যে এই সংস্করণে অতি কার্যকর এক কৌশল, সেই কৌশলের কথা যে টাইগারদের কোনো ব্যাটসম্যানেরই মনে থাকবে না, এ বড় পরিতাপেরই বিষয়।

অথচ বোলিং করার সময়ও বিষয়টা খুব কাছ থেকে দেখেছে মাহমুদউল্লাহ ব্রিগেড। দেখিয়েছেন ওয়েসলি মাধভেরে। ইনিংসের সূচনায় নেমে কি দারুণভাবেই না জিম্বাবুয়ের ইনিংসটাকে টেনে নিয়ে গেলেন এই ডানহাতি। ৫৭ বলে ৭৩ রানের ইনিংস উপহার দিলেন তিনি। 

ডিওন মেয়ার্স আর রায়ান বার্লের থেকে কিছুটা সহচর্য পেয়ে দলকে সামনে টেনে নিলেন দারুণভাবে। শরিফুল ইসলাম ৩৩ রান খরচায় ৩ উইকেট নিলেন, শেখ মেহেদী আর সাকিবও একটি করে উইকেট যোগ করলেন ঝুলিতে। কিন্তু জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপকে তারা চাপে ফেলতে পারেননি ওই মাধভেরের অনিন্দ্যসুন্দর ইনিংসটির কারণেই।

ব্যাটিংয়ে তো নয়ই, বোলিং এবং ফিল্ডিংয়েও এদিন জিম্বাবুয়ের সঙ্গে লড়াইয়ে হার মেনেছে বাংলাদেশ। সিরিজে এখন তাই ১-১ সমতা। আগামী রোববার শেষ ম্যাচটি তাই এখন অলিখিত ফাইনাল।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]