ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৬ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

ওরাল টিকার পরীক্ষায় ইসরাইল
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ৭:৫০ এএম আপডেট: ২৪.০৭.২০২১ ৯:৪৫ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 43

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ইসরাইল ওরাল করোনাভাইরাস টিকা পরীক্ষা করতে যাচ্ছে। জেরুজালেমভিত্তিক ওরামেড ফার্মাসিউটিক্যালসের সিইও নাদাভ কিদরন জেরুজালেম পোস্টকে এমনটি জানিয়েছেন। ওরামেডের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ওরাভ্যাক্স মেডিকেল তেল আবিবের সৌরাস্কি মেডিকেল সেন্টারের ইনস্টিটিউশনাল রিভিউ বোর্ডের অনুমোদন পাওয়ার পর হাসপাতালটিতে তাদের ওরাল টিকা পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এখন তারা ইসরাইলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে, যা আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

ইতোমধ্যেই ওরাভ্যাক্স ইউরোপে কয়েক হাজার ক্যাপসুলের জিএমপি উৎপাদন সম্পন্ন করেছে আর এগুলো ইসরাইলের ট্রায়ালে ব্যবহার করার পর অন্যান্য দেশেও ব্যবহার করা যাবে। ওরামেড হাদাসা-বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারের উদ্ভাবিত প্রযুক্তির ওপর নির্ভরকারী একটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালভিত্তিক ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি।

মার্চে ভারতের প্রিমাস বায়োটেকের সঙ্গে যৌথভাবে নভেল ওরাল টিকা উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছিল তারা। এই দুই কোম্পানি একসঙ্গে ওরাভ্যাক্স গঠন করেছে। তাদের বানানো টিকাটি ওরামেডের ‘পিওডি’ ওরাল ডেলিভারি প্রযুক্তি ও প্রিমাসের টিকা প্রযুক্তির ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।
ওরামেডের প্রযুক্তি প্রোটিনভিত্তিক অন্যান্য চিকিৎসায়ও মৌখিকভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে আবার ইনজেকশন হিসেবেও নেওয়া যাবে। প্রিমাস মার্চ থেকে নতুন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর একটি টিকা উৎপাদনের জন্য কাজ করে চলছে।

ওরাভ্যাক্সের নতুন পরীক্ষামূলক টিকাটি নতুন করোনাভাইরাসের তিনটি গঠনগত প্রোটিনকে লক্ষ্যবস্তু বানাবে বলে কিদরন জানিয়েছেন। বাজারে থাকা মডার্না ও ফাইজারের টিকা করোনাভাইরাসের শুধু স্পাইক প্রোটিনকে লক্ষ্যবস্তু বানায়।

কিদরন বলেন, ‘এভাবে এই টিকাটি কোভিড-১৯-এর ভ্যারিয়েন্টগুলোর বিরুদ্ধেও অনেক বেশি কার্যকর হবে। ভাইরাসটি একটি লাইনকে পাশ কাটিয়ে গেলেও সেখানে দ্বিতীয় আরেকটি লাইন থাকবে, সেটিকেও পাশ কাটালে তৃতীয় আরেকটি থাকছে।’ এই টিকাটি প্রি-ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় ডেল্টাসহ করোনাভাইরাসের অন্য ভ্যারিয়েন্টগুলোর বিরুদ্ধেও পরীক্ষা করা হচ্ছে। কিদরন জানান, ওরাল টিকাগুলোর সুবিধা হচ্ছে এগুলোর সুরক্ষা ও কার্যকারিতা অনেক বেশি। এগুলোর পাশ্বর্^প্রতিক্রিয়াও তুলনামূলকভাবে কম। এসব টিকা ফ্রিজের তাপমাত্রাতেই পরিবহন করা সম্ভব আর এমনকি ঘরের তাপমাত্রায়ও সংরক্ষণ করা সম্ভব। ওরাল টিকায় পেশাদার প্রশাসনের কোনো প্রয়োজন হবে না।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]