ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ৭ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

ভারতে কৃষক আন্দোলনে ২২০ কৃষকের মৃত্যু: পাঞ্জাব সরকার
মুকুল বসু, কলকাতা
প্রকাশ: শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১, ৭:০৫ পিএম আপডেট: ২৪.০৭.২০২১ ৭:১০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 96

ভারতজুড়ে চলা কৃষক আন্দোলন নিয়ে এবার চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলো দেশটির পাঞ্জাব রাজ্য সরকার। যে তথ্য রীতিমতো অস্বস্তি বাড়ানোর জন্য যথেষ্ট কেন্দ্রীয় সরকারের।

পাঞ্জাব সরকারের রিপোর্ট বলছে, কৃষক আন্দোলনে দেশে ২২০ জন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এমনকি মৃতের পরিবারকে ১০৮৬ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণও দেওয়া হয়েছে। যদিও মোদি সরকার দাবি করেছে, কৃষক বিক্ষোভে এক জন কৃষকেরও মৃত্যু ঘটেনি।

তবে পাঞ্জাবের অমরিন্দর সরকারের রিপোর্ট বলছে অন্যকথা। সেখানে চলতি জুলাই মাস পর্যন্ত পরিসংখ্যান দিয়ে দাবি করা হয়েছে, কৃষক আন্দোলন চলার সময়ে ২২০ জন কৃষক ও কৃষি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। আর এই ২২০ জন মৃত কৃষকের মধ্যে ২০৩ জন হলেন পাঞ্জাবের মালওয়া প্রদেশের। বাকি ১৭ জনের মধ্যে ১১ জন মাঝার এবং ৬ জন দেওয়া অঞ্চলের। এখনও তথ্য সংগ্রহ চলছে বলে জানিয়েছে পাঞ্জাবের অমরিন্দর সরকার।

পাঞ্জাব সরকার দাবি করেছে, কৃষক আন্দোলন চলার  সময়ে সব থেকে বেশি মৃত্যু ঘটেছে পাঞ্জাবের সঙ্গরুর জেলায়। সেখানে গত ৮ মাসে ৪৩ জন কৃষকের মৃত্যু ঘটেছে। মৃত প্রতিটি কৃষক পরিবারকে দেওয়া হয়েছে ৫ লক্ষ করে টাকা। এরপরেই রয়েছে পাঞ্জাবের ভাতিন্ডা জেলা। সেখানে কৃষক আন্দোলন চলাকালীন ৩৩ জন কৃষকের মৃত্যু ঘটেছে। ভাতিন্ডা জেলায় পাঞ্জাব সরকার মোট ১৬৫ কোটি টাকা সাহায্য করেছে মৃত কৃষক পরিবারগুলিকে। এই দুটি জেলা ছাড়াও পাঞ্জাবের একাধিক জেলায় কৃষক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলেও অমরিন্দর সরকারের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

যার মধ্যে উল্লেখযোগ্যভাবে পাঞ্জাবের মোগায় মৃত্যু হয়েছে ২৭ জন কৃষকের, পাতিয়ালায় ২৫ জন, বারনালয় ১৭ জন, মানসায় ১৫ জন, মুকভাসার সাহিবে ১৪ জন, লুধিয়ানায় ১৩ জন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া ফাজিলকা জেলায় ৭ জন, ফিরোজপুরে ৬ জন এবং গুরুদাসপুরে ৫ জন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। অমৃতসর, নাওয়ান শহরে ৪ জন করে এবং মোহালি, তরন-তারনে যথাক্রমে ৩ জন ও ২ জন কৃষকের মৃত্যু ঘটেছে। জলন্ধর ও কপুরতলাতেও ১ জন করে কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে গত ১ বছর ধরে দেশজুড়ে কৃষক আন্দোলন চলছে। রাজধানী দিল্লির সিংঘু সীমান্তে চলছে কৃষকদের বিক্ষোভ অবস্থান। ঝড়, জল, করোনা সংক্রমণ উপেক্ষা করেই এই আন্দোলন জারি রেখেছেন কৃষকরা।

কেন্দ্রের মোদি সরকার বারবার দাবি জানিয়েছে, কৃষক আন্দোলনের জেরে কোনো কৃষকের মৃত্যু ঘটেনি। সেখানে দাঁড়িয়ে পাঞ্জাব সরকারের এই রিপোর্ট যে মোদি সরকারের অস্বস্তি বাড়ানোর জন্য যথেষ্ট- তা বলাই বাহুল্য।

/জেডও/


আরও সংবাদ   বিষয়:  পাঞ্জাব   পাঞ্জাব সরকার  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]