ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

করোনার টিকা গ্রহণে ইসলাম কী বলে
আব্দুল্লাহ মুকতাদির
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১, ১২:৪৯ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 65

মহামারি পৃথিবীতে নতুন কোনো বিষয় নয়। ইসলামের অন্যতম খলিফা হজরত ওমর (রা.)-এর শাসনামলে এক ভয়াবহ মহামারির প্রাদুর্ভাব ঘটেছিল। তিনি সিরিয়া যাওয়ার উদ্দেশে বের হন। এরপর তিনি ‘সারগ’ নামক স্থানে পৌঁছলে তার কাছে সংবাদ এলো যে সিরিয়া এলাকায় মহামারি দেখা দিয়েছে। 

তখন আবদুর রহমান ইবনে আউফ (রা.) তাকে অবহিত করলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যখন তোমরা কোনো স্থানে এর প্রাদুর্ভাবের কথা শোনো, তখন সে এলাকায় প্রবেশ করো না; আর যখন এর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়, আর তোমরা সেখানে বিদ্যমান থাকো, তা হলে সেখান থেকে পলায়ন করার উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যেয়ো না।’ (বুখারি শরিফ, হাদিস : ৫৩১৯)

তবে মহামারিতে মুমিনের মনোবল সতেজ থাকা জরুরি। এ সময় একান্ত করণীয় হলো, ধৈর্যধারণের মাধ্যমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া। যথাসম্ভব উপায়-উপকরণ গ্রহণ করা। কেননা মহামারি আজাব হিসেবে পৃথিবীতে আসে; কিন্তু তা ঈমানদারের জন্য রহমতে পরিণত হয়। আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে প্লেগ রোগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। আল্লাহর নবী (সা.) তাকে অবহিত করেন, এটি হচ্ছে এক ধরনের আজাব। 

আল্লাহ যার ওপর তা পাঠাতে ইচ্ছা করেন, পাঠান। কিন্তু আল্লাহ এটিকে মুমিনদের জন্য রহমত বানিয়ে দেন। অতএব প্লেগ রোগে কোনো বান্দা যদি ধৈর্য ধারণ করে এবং এই বিশ্বাস নিয়ে আপন শহরে অবস্থান করতে থাকে যে আল্লাহ তার জন্য যা নির্ধারণ করে রেখেছেন তা ছাড়া কোনো বিপদ তার ওপর আসবে না; তা হলে সেই বান্দার জন্য শহীদ ব্যক্তির সওয়াবের সমান সওয়াব। (বুখারি শরিফ, হাদিস : ৫৩২৩)।

আল্লাহ বিভিন্ন রোগ যেমন সৃষ্টি করেছেন, তার প্রতিষেধকও সৃষ্টি করেছেন। মানুষ কখনও কখনও তাঁর দয়ায় সেই প্রতিষেধক জানতে পারে, আবার কখনও কখনও জানতে পারে না। হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, রাসুল (সা.) বলেছেন, আল্লাহ এমন কোনো রোগ সৃষ্টি করেননি, যার নিরাময়ের উপকরণ তিনি সৃষ্টি করেননি। (বুখারি : ৫৬৭৮)। একমাত্র আল্লাহই রোগ-ব্যাধি থেকে আরোগ্য দান করেন। এ কথার ওপর ঈমান না রাখলে সে মুমিন থাকবে না। তবে এর মানে এই নয় যে, কেউ রোগাক্রান্ত হলে চিকিৎসা গ্রহণ করা যাবে না। বরং রাসুল (সা.) উম্মতকে অসুস্থ হলে অবশ্যই চিকিৎসা গ্রহণের তাগিদ দিয়েছেন। 

রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘আল্লাহ তায়ালাই রোগ ও ওষুধ সৃষ্টি করেছেন এবং প্রত্যেক রোগের চিকিৎসাও তিনি সৃষ্টি করেছেন। অতএব তোমরা চিকিৎসা গ্রহণ করো।’ (আবু দাউদ : ৩৮৬৪)। কোনো রোগ আপন শক্তিতে মানুষকে আক্রান্ত কিংবা হত্যা করার শক্তি রাখে না, এটাও সত্য। তাই বলে কোনো এলাকায় রোগ-ব্যাধি দেখা দিলে সেখানে অসতর্ক অবস্থায় চলাফেরার অনুমতিও ইসলাম দেয়নি। আল্লাহর রহমতে ইতোমধ্যে কোভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন বা টিকা আবিষ্কৃত হয়েছে। বিশ্বের আলেম-ওলামা এই টিকা গ্রহণে সম্মতি ও উৎসাহব্যঞ্জক পরামর্শ দিয়েছেন। তাই সুন্নত হিসেবে সবারই করোনা টিকা গ্রহণ করা উত্তম




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]