ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১ আশ্বিন ১৪২৮
ই-পেপার রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

বিশ্বকাপের পর আসছে পাকিস্তান
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৪:১১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 53

সংযুক্ত আরব আমিরাত আর ওমানে বসতে যাচ্ছে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ১৭ অক্টোবর শুরু হয়ে আইসিসির এই মেগা ইভেন্টটি শেষ হবে ১৪ নভেম্বর। অংশগ্রহণকারী দলগুলো এখন আসরটিকে ঘিরে নিজেদের চূড়ান্ত পরিকল্পনা সাজাচ্ছে। ব্যতিক্রম নয় টিম বাংলাদেশও। তবে তাদের পরিকল্পনার পরিধি অন্যদের তুলনায় একটু বড়, বিশ্বকাপ শেষ হতে না হতেই যে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন টি-টোয়েন্টি আর দুই টেস্টের সিরিজ রয়েছে। মঙ্গলবার ওই সিরিজের সূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সূচি অনুযায়ী মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ১৯ নভেম্বর প্রথম টি-টোয়েন্টি দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মাঠে গড়াবে সিরিজ। একই ভেন্যুতে সিরিজের পরবর্তী দুই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২০ আর ২২ নভেম্বর। সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু ২৬ নভেম্বর, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। লম্বা সময় পর হোম সিরিজের ম্যাচ হচ্ছে ঢাকার বাইরে। করোনা বিরতি শেষে চলতি বছরের জানুয়ারিতে যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছিল টাইগাররা, সেই সিরিজের একটি টেস্ট আর একটি ওয়ানডে হয়েছিল চট্টগ্রামে। এরপর নিজ আঙিনায় শ্রীলঙ্কা, অস্ট্রেলিয়া আর নিউজিল্যান্ডকে আতিথ্য দিয়েছে বাংলাদেশ, তবে তাদের বিপক্ষে সবগুলো ম্যাচই হয়েছে মিরপুরে।

বিসিবি চাইলেও করোনাকালে অতিথিদের আপত্তির কারণে ঢাকার বাইরে ম্যাচ নিয়ে যেতে পারেনি। পাকিস্তান সিরিজের প্রথম টেস্ট দিয়ে সেই আক্ষেপ ঘুচতে চলেছে। সিরিজের দ্বিতীয় এবং শেষ টেস্ট হবে মিরপুরে, ৪ থেকে ৮ ডিসেম্বর। দুটো টেস্টই ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় চক্রের অন্তর্ভুক্ত। প্রথম চক্রে যারপরনাই ব্যর্থ বাংলাদেশ এই সিরিজ দিয়েই দ্বিতীয় চক্রে যাত্রা শুরু করবে। পাকিস্তান অবশ্য গত মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজ দিয়ে ইতোমধ্যে মিশন শুরু করে ফেলেছে। বাংলাদেশে বাবর আজমের দল আসবে সেই মিশনে নিজেদের আরও খানিকটা এগিয়ে নিয়ে যেতে। বাংলাদেশ সেখানে বড় বাধা হবে, এটা যেমন বলার অপেক্ষা রাখে না, তেমনি টি-টোয়েন্টি সিরিজে দারুণ কিছু করে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি ঘটাতে চাইবে স্বাগতিকরা, বলার অপেক্ষা রাখে না সেটাও।

কিন্তু সিরিজটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়েই দাঁড়াচ্ছে বাংলাদেশ আর পাকিস্তানের সামনে। দুই দলের কোনো একটি যদি ১৪ নভেম্বর এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে নাম লেখায়, সেক্ষেত্রে পাঁচ দিনের ব্যবধানে ফের মাঠে নামার প্রস্তুতি নিতে হবে তাদের। অনেকের চোখেই বিশ^কাপের অন্যতম ফেভারিট পাকিস্তান। কেউ কেউ আবার বাংলাদেশকে রাখছেন সেমিফাইনালের দৌড়ে। সব মিলে সামনে ফিটনেসের চূড়ান্ত পরীক্ষাই দিতে হবে টাইগারদের। এমনিতেই একের পর এক দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলে ক্লান্ত তারা, আপাতত আছে বিশ্রামে। তবে তা খুব বেশি দীর্ঘ হচ্ছে না। বিশ^কাপের প্রস্তুতিতে চোখ রেখে ৩ কিংবা ৪ নভেম্বর ওমানে পাড়ি জমাবে তারা। সেখান থেকে ফিরে এসে পাকিস্তান সিরিজ, এরপর নিউজিল্যান্ড আর দক্ষিণ আফ্রিকা সফর রয়েছে। 

সেসব নিয়ে জোর আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ। মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন সংস্থার প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘পাকিস্তান সিরিজ বিশ^কাপের পরপরই।... এরপর আমাদের নিউজিল্যান্ড সফর আছে। দক্ষিণ আফ্রিকা বোর্ডের সঙ্গেও আলোচনা চলছে। খুব ঠাসা সূচি।’ পাকিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজের জৈব-সুরক্ষা বলয় কেমন হবে, সেটাও জানিয়ে রাখলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী, ‘(অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সিরিজে) আমরা যে বেঞ্চমার্ক ঠিক করেছি, সে অনুযায়ীই আমাদের প্রটোকল আর জৈব-সুরক্ষা বলয় হবে। আমরা যে গাইডলাইন সফরকারী দলকে সরবরাহ করব, সেটাই বাস্তবায়ন করব।’

/এমএইচ/




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]