ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ ৩ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

হাতের নাগালে ভ্রমণের হাতছানি
রাইয়ান এইচ সরকার
প্রকাশ: রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:০১ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 60

সময়টা শরৎকাল তাই বিভিন্ন জায়গায় পানির সৌন্দর্য যেমন রয়েছে, তেমনি আবহাওয়াও বেশ সুন্দর। এই সময় আকাশে-বাতাসে, ফুলে ফুলে ও গাছে গাছে বিভিন্ন ধরনের সৌন্দর্য খেলা করে। সুন্দর এই সময়ে যারা যেখানেই থাকুন না কেন সেই জেলার আশপাশের বিভিন্ন জেলায় কিন্তু আপনারা ঘুরে আসতেই পারেন। তবে তার আগে কম খরচে ঘুরে আসতে পারবেন এমন কয়েকটি দর্শনীয় স্থানের খোঁজ জেনে নিন। 

চন্দ্রনাথ পাহাড়
ঢাকা শহর থেকে প্রায় ৪-৫ ঘণ্টা দূরে এই রোমাঞ্চকর অনুভূতি দেবে সীতাকুণ্ডের চন্দ্রনাথ পাহাড়। এর চূড়ায় আছে দুটি শিব মন্দির। ১২০০ ফুট উঁচুতে চন্দ্রনাথের চূড়া। চারদিকে নীরব-নিস্তব্ধ। অ্যাডভেঞ্চারপ্রিয় মানুষদের জন্য উপযুক্ত এই পাহাড়। মাঝেমধ্যে শুনতে পাবেন চেনা-অচেনা পাখির ডাক। দেখতে পাবেন ঝরনাও। সীতাকুণ্ডের সর্বোচ্চ উঁচু পাহাড় চন্দ্রনাথে দাঁড়িয়ে আপনি দেখতে পাবেন একদিকে সমুদ্র, অন্যদিকে পাহাড়ের নির্জনতা।
যেভাবে যাবেন এবং খরচ
চন্দ্রনাথ পাহাড়ের পাশাপাশি খৈয়াছড়া ঝরনা, গুলিয়াখালি সমুদ্র সৈকতও ঘুরতে পারবেন ২০০০ টাকার মধ্যে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের ট্রেনে ও বাসে যাওয়া যায়। বাসে খরচ পড়বে ৪৮০ এবং ট্রেনে ৩৪৫ টাকা থেকে শুরু। এ পর্যায় একটি তথ্য জেনে রাখুনÑ আন্তঃনগর ট্রেন সীতাকুণ্ড স্টেশনে থামে না। তাই রাতের চট্টগ্রাম মেইল ট্রেনটাই সবচেয়ে উপযোগী ট্রেনে ভ্রমণের ক্ষেত্রে। সীতাকুণ্ড শহরে বেশকিছু হোটেল আছে বিশ্রামের জন্য। রুম ভেদে ভাড়া পড়বে ৬০০ থেকে ১২০০ টাকা।

নিঝুম দ্বীপ
বঙ্গোপসাগরের কোলে উত্তর ও পশ্চিমে মেঘনার শাখা নদী, আর দক্ষিণ এবং পূর্বে সৈকত ও সমুদ্র বালুচরবেষ্টিত ছোট্ট সবুজ ভূখণ্ড নিঝুম দ্বীপ। জনপ্রতি ২৫০০ টাকায় ঘুরে আসতে পারবেন এখানে। অগণিত শ^াসমূলে ভরা এই দ্বীপ। জোয়ার-ভাটার এই দ্বীপে এক পাশ ঢেকে আছে সাদা বালুতে, আর অন্য পাশে সৈকত। এখানে নেই পর্যটনের চাকচিক্য, রঙ বেরঙের বাতির ঝলক কিংবা যান্ত্রিক কোনো বাহনের বিকট শব্দ। নিঝুমÑ সত্যিই নিঝুম ও নিশ্চুপ। এ যেন প্রকৃতির একটি আলাদা সত্তা। যা আর কোথাও নেই। নিঝুম দ্বীপের পাশাপাশি এখানে কমলার দ্বীপ, চৌধুরী খাল ও কবিরাজের চর, চোয়াখালি ও চোয়াখালি সি-বিচ ম্যানগ্রোভ বন, দমার চর ইত্যাদি দেখতে পারবেন।
যেভাবে যাবেন এবং খরচ
ঢাকা থেকে নিঝুম দ্বীপ দুভাবে যাওয়া যায়। সদরঘাট থেকে লঞ্চে করে এবং ট্রেন বা বাসে নোয়াখালী হয়ে। প্রতিদিন মোটামুটি সকাল দুপুর ও সন্ধ্যায় সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে নোয়াখালীর সোনাপুরের দিকে বাস ছেড়ে যায়। ট্রেনে যেতে পারেন নোয়াখালীর মাইজদি পর্যন্ত। বাস ভাড়া ৪০০ টাকা এবং ট্রেনে ২৩০ টাকা থেকে শুরু। 
থাকা ও খাওয়া
নিঝুম দ্বীপে নামার সঙ্গে মোটরসাইকেল চালক আপনাকে ঘিরে ধরবে। তারা আপনাদের হোটেল পর্যন্ত নিয়ে যাবে। জনপ্রতি খরচ পড়বে ৫০ টাকা। সেখানে বিচের পাশের বাজারে ছোট ছোট কয়েকটি হোটেল পাবেন। রুম ভেদে খরচ পড়বে ১৫০০ থেকে ৩০০০ টাকা। এক রুমে অনায়েসে চার-পাঁচজন থাকা যাবে। খাবার দাবার বলতে সামুদ্রিক মাছ, মাংস, মোটা চালের ভাত, রুটি সবই পাবেন, তবে প্রি-অর্ডার করে রাখা ভালো। খরচও সাধ্যের মধ্যে।

হিমালয়ের কাঞ্চনজঙ্ঘা
পঞ্চগড় জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে দেখা যায় সকালের সোনালি রোদে চকচক করতে থাকা স্বপ্নের কাঞ্চনজঙ্ঘা। তবে তেঁতুলিয়া থেকে এই দৃশ্য আরও কাছ থেকে দেখা যায়। শরৎকালে এই দৃশ্য দেখার জন্য উপযুক্ত সময়। পঞ্চগড়ের ভিতরগড় প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট এখানে দেখার মতো একটি জায়গা। ঘুরে আসতে পারেন বাংলাবান্দা জিরো পয়েন্ট থেকেও। আর তেঁতুলিয়া বাজারে সেই বিখ্যাত তেঁতুল গাছও দেখতে পারবেন। তেঁতুল গাছের গোড়ায় বানানো চা ও মিষ্টি খেতে যেন ভুলে যাবেন না।
যেভাবে যাবেন এবং খরচ
ঢাকা থেকে তেঁতুলিয়ায় সরাসরি চলাচল করে হানিফ, শ্যামলি ও বাবুল বাস। ভাড়া পড়বে ৬৫০ থেকে ৭৫০ টাকা। তেঁতুলিয়ায় নেমে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর, চা বাগান বা আশপাশের এলাকায় ঘোরাঘুরির জন্য অটো ভাড়া করবেন। সময় অনুযায়ী এখানে খরচ বেশি-কম হবে। তবে ১০০০ টাকার মতো ধরে রাখতে পারেন। এ ছাড়া ট্রেনে চড়ে পৌঁছাতে পারেন পঞ্চগড়। শোভন চেয়ারে খরচ পড়বে ৫০০ টাকা। স্টেশন নেমে বাজার পর্যন্ত রিকশা নিয়ে সেখান থেকে বাসে করে যাওয়া যাবে তেঁতুলিয়া। খরচ হবে জনপ্রতি ৫০ টাকা।
থাকা ও খাওয়া
তেঁতুলিয়ায় মহানন্দা নদী তীরের ডাকবাংলোতে থাকার জন্য তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। দুই বেডের প্রতি কক্ষের ভাড়া পড়বে ৪০০ টাকা। এ ছাড়া পঞ্চগড়ে থাকার জন্য মধ্যম মানের বেশ কিছু হোটেল আছে। আর তেঁতুলিয়া বাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় কম খরচে ভালো মানের খাবার পাবেন। 

শ্রীমঙ্গল
ঢাকা থেকে ট্রেন বা বাসে মাত্র চার ঘণ্টায় পৌঁছানো যায় চায়ের দেশ শ্রীমঙ্গলে। ৩০০০ থেকে ৩৫০০ টাকায় চাইলে ৩ রাত দুই দিনের গ্রুপ ট্যুর দেওয়া সম্ভব। সেখানে জনপ্রিয় দর্শনীয় স্থানের মধ্যে রয়েছে মাধবপুর লেক, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, বাইক্কার বিল, হামহাম জলপ্রপাত ইত্যাদি। যেগুলো আপনার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ঘুরে দেখতে পারবেন। 
যেভাবে যাবেন এবং খরচ
সায়েদাবাদ থেকে সারা দিনই বাস পাওয়া যায়। খরচ পড়বে ৪৫০ টাকা। শ্রীমঙ্গল শহরের আশপাশে বিভিন্ন হোটেল বা কটেজ পাওয়া যাবে। রুমভেদে খরচ পড়বে ১২০০ থেকে ২০০০ টাকা। থাকার স্থানের আশপাশে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]