ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ ৩ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

মিমের সচেতনতা
গাজী আনিস
প্রকাশ: বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১, ১১:৩২ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 92

এ প্রজন্মের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। ফিটনেস নিয়ে বেশ সচেতন তিনি। পূজা উপলক্ষে অনেকেই যখন খাওয়া-দাওয়া নিয়ে মেতে ওঠেন, ঠিক তখনই ডায়েট করছেন মিম। গরমের এই সময় পূজার পোশাক কিংবা মেকআপ নিয়েও বাড়তি সতর্কতা মেনে চলছেন তিনি। সময়ের আলোর পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো পূজায় মিমের স্বাস্থ্য সচেতনতা।

খাওয়াদাওয়া
পূজার সময় লুচি, ঘণ্ট, পূজার প্রসাদ খেতে ভালোবাসি। আর খাওয়াদাওয়া নির্ভর করে বাসার রান্নার ওপর। সাধারণত অষ্টমী, নবমী ও দশমীর দিন প্রসাদ খাই।

ডায়েট
সকালের খাবারের তালিকায় আছে রুটি, ডিম। দুপুরের খাবারের তালিকায় আছে চিকেন, ভেজিটেবল। আর রাতে মাছ ও সবজি খাই।

রান্না
পূজায় বাসায় থাকলে ডেজারট আইটেম রান্না করি। নাড়ু তৈরি করা হয়। এ ছাড়া বাড়ির সদস্যদের রান্নায় সাহায্য করি।

পোশাক
কামিজ, কুর্তি পরি। দশমীর দিনে শাড়ি পরি। তবে সুতির পোশাক বেশি পরা হয়। সাধারণত চলাচলে আরামদায়ক হবে এমন পোশাক বাছাই করি। আর এই সময়ের আবহাওয়ার জন্য সুতি পোশাক উপযুক্ত। তবে অন্য সময় ব্র্যান্ড-নন ব্র্যান্ড সব ধরনের পোশাক পরি। এবার পূজায় আমি বেশি গিফট পেয়েছি। সেগুলো পরছি। পূজায় পোশাকের মধ্যে পছন্দ রেড টোনের পোশাকগুলো।

সাজ
আমার পূজার সাজ সাধারণ হয়। ভারী মেকআপ করি না। চুলে প্রাকৃতিক লুক থাকে। মেকআপ হালকা হয়, যাকে বলে নো মেকআপ লুক।

জুতা
খুবই সাধারণ জুতা পরি। সাধারণত পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে জুতা পরা হয়।  

ঘোরাঘুরি
পূজায় খুব বেশি বাইরে যাওয়া হয় না। ঢাকায় মায়ের সঙ্গেই বেশি সময় পার করি। না হলে রাজশাহীতে মামা বাড়িতে সময় কাটাই। মন্দিরে গেলে ঠাকুর দেখি। বাইরে গেলে সাধারণত ভিড় হয় তাই বেশি যাই না।

ফিটনেস নিয়ে পরামর্শ
সবারই খাওয়া-দাওয়া নিয়ন্ত্রণ করা উচিত। মাঝেমধ্যে এক বেলা হয়তো বেশি খাবেন। তবে এখন থেকে স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণ করলে ভবিষ্যতের জন্য ভালো।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]