ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ ৩ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

ই-কমার্সে প্রতারিত ভোক্তার সুরক্ষায় উচ্চ পর্যায়ের কমিটি
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১, ৯:০৮ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 78

প্রতারণার বিস্তর অভিযোগে একপ্রকার বিপর্যস্ত দেশের ই-কমার্স খাতে বিভিন্ন ধরনের সংস্কার ও সমন্বয়ের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানগুলোকে তদারকির মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত ভোক্তাদের সুরক্ষায় উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করেছে সরকার। 

মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবকে সভাপতি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ১৫ সদস্যের এ কমিটি গঠন করে দিয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের উর্দ্ধতন এক কর্মকর্তা বুধবার বলেন, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে তদারকি ও পরীবিক্ষণের আওতায় আনা এবং সাম্প্রতিক কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের অনৈতিক ব্যবসার ফলে যেসব ভোক্তা প্রতারিত হয়েছেন, তাদের অধিকার সুরক্ষার বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করাই হবে এ কমিটির প্রধান কাজ। বিদ্যমান আইনের সংস্কার ও বিদ্যমান সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে ই-কমার্সের রেগুলেটরি ঘাটতি দূর করা যায় কিনা তারা সেটা ভাববেন।

এদিকে ই-কমার্স ব্যবসা নিয়মের মধ্যে আনতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকেও একটি বহুপক্ষীয় কমিটি তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। শুরুতে নতুন আইন প্রণয়ন ও নতুন একটি কর্তৃপক্ষ গঠনের প্রস্তাব কয়েকজন মন্ত্রীর পক্ষ থেকে আসলেও এখন সেই পথ থেকে সরে এসেছে মন্ত্রণালয়। 

জানা যায়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবকে সভাপতি করে গঠিত কমিটিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, আইসিটি বিভাগ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক, পুলিশ হেড কোয়াটার্স, প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তর, জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা, পুলিশের বিশেষ শাখা (এসবি), বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্ট ইউনিট, এনবিআর, ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টার, অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি ও কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর প্রতিনিধি এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগের যুগ্ম সচিবরা থাকবেন। মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য বিভাগের প্রতিনিধিরা যুগ্মসচিব পদমর্যাদার হবেন এবং কমিটির অন্যান্য সদস্যরাও সমমর্যাদার হবেন।

এই কমিটি মূলত ই-কমার্স সংশ্লিষ্ট  মন্ত্রণালয়/বিভাগ/অধিদফতর /দফতর ও সংস্থাগুলোকে একই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসা এবং তাদের মাঝে অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানিগুলোকে রেজিস্ট্রেশন ও লাইসেন্সের আওতায় আনা। সাম্প্রতিক সময়ে অভিযোগ ওঠা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক লেনদেনের তথ্য এবং মালিকানাধীন সম্পদের বিবরণ, ব্যাংক হিসাবের স্থিতির হালনাগদ তথ্য যোগাড় করা। গ্রাহকের খোয়া যাওয়া অর্থের পুনরুদ্ধার করার পদ্ধতি নির্ধারণ। ক্ষতিগ্রস্ত ভোক্তাদের স্বার্থ সুরক্ষার বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর সব ধরনের আর্থিক লেনদেন তদারকির আওতায় আনা। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোকে ভ্যাট-ট্যাক্সের আওতায় আনার কাজ করবে।


আরও সংবাদ   বিষয়:  ই-কমার্স   বাণিজ্য মন্ত্রণালয়  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]