ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ই-পেপার  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে সরব তারকারা
আনন্দ সময় প্রতিবেদক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১, ১১:৪৭ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 111

দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলা ও হিংসার দাবানল ছড়িয়ে গেছে। একের পর এক অগ্নিসংযোগ ও প্রতিমা ভাঙচুরের মতো ঘটনা ঘটছে। সবশেষে রংপুরের পীরগঞ্জের তিনটি গ্রামে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। ভয়াবহ সহিংসতার ঘটনায় শোবিজ অঙ্গনের তারকারাও ব্যথিত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই এই ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন।

জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখেন, গত কয়েকদিন ধরে এক বিশ্রী অনুভূতির মধ্যে বসবাস করছি। গ্লানি, দুঃখ, ক্ষোভ সব কিছু মিলেমিশে একাকার। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে যেন কালো একটা পর্দা পড়ে গেল। বঙ্গবন্ধুর ধর্মনিরপেক্ষ সোনার বাংলাকে ধর্মের ধুয়াধারীরা কলুষিত করতে উদগ্রীব।

রংপুরের ঘটনা নিয়ে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী লেখেন, ‘রংপুর নয়, পুড়ছে স্বদেশ, পুড়ছে মাতৃভূমি/ আজ পুড়ছে অসহায় কেউ, কাল পুড়বে তুমি। সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নিয়ে অভিনেত্রী জয়া আহসান ফেসবুকে কালো ব্যাজ শেয়ার করেছেন। রংপুরের ঘটনায় অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন নবারুণ ভট্টাচার্যের কবিতার লাইন দিয়ে। ‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ না/ এই জল্লাদের উল্লাসমঞ্চ আমার দেশ না/ এই বিস্তীর্ণ শ্মশান আমার দেশ না/ এই রক্তস্নাত কসাইখানা আমার দেশ না।’

নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী সহিংসতার পেছনে যারা জড়িতে তাদের দ্রুত বিচারের আওতার দাবি জানিয়ে লেখেন, ঘটনা যা যা ঘটেছে সেটা ঠিকঠাক তদন্ত করে সবার সামনে তুলে ধরা। দ্রুততার সঙ্গে এই হামলার ঘটনাগুলোর সঙ্গে যারা যারা জড়িত তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা। আগামীতে যেন এরকম কিছু না ঘটে তার জন্য যা যা ব্যবস্থা নেওয়ার সেটা নেওয়া।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট এবং পূজামণ্ডপে পরিকল্পিত হামলা ও হত্যার প্রতিবাদে নাট্যজন নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু প্রতিবাদে বেশ সরব। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ সমাবেশে ছুটে যাচ্ছেন তিনি।

মানবতাকে গুরুত্ব দিয়ে ঘৃণার বিস্তার রোধ করতে বলেছেন রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। লিখেছেন, ঘৃণার ব্যবসা বন্ধ হোক। সবার ওপরে মানুষ, মানবতা সত্য হোক। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সুন্দর জীবনের জন্য একটা শান্তিপূর্ণ পথিবী গড়া আমাদের দায়িত্ব।

নির্মাতা শিহাব শাহীন কিছুটা হতাশার স্বরে লেখেন, বাড়িঘরে আগুন দিয়ে নারী-শিশু হত্যার চেষ্টাকারী এসব ধর্মান্ধ জানোয়ারের কঠিনতম শাস্তি চাই। অবশ্য আমার চাওয়াতে কী আসে-যায়! এরাই হয়তো কদিন পর বড় বড় নমিনেশন পাবে। কিংবা নমিনেশন কিনবে।

নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী সবাইকে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। তিনি লেখেন, এই দেশটাই কি আমার দেশ? যাকে আমি ধারণ করি! ভালোবাসি! গর্ববোধ করি! সবাইকে একসঙ্গে রুখে দাঁড়াতে হবে।

শৈশবের বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করে কণ্ঠশিল্পী, অভিনেত্রী ও নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওন লেখেন, আজ এ কোন বাংলাদেশে আছি আমরা! কী শিখাচ্ছি আমাদের সন্তানদের! কোন বাংলাদেশ দিয়ে যাচ্ছি পরবর্তী প্রজন্মের হাতে!

সম্প্রীতির কথা স্মরণ করে অভিনেতা সিয়াম আহমেদ লেখেন, ২০২১ সালে এসে আমরা কী প্রমাণ করতে চাইছি? আমরা তো এমন দেখিনি! আমাদের সাম্প্রদায়িকতা তো এমন না! আমার দেশ জ্বলছে, আমাদের দেশ জ্বলছে।

অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতিও ফেসবুকের কাভার ফটোতে কালো পোস্টার দিয়েছেন। সঙ্গীতশিল্পী রাহুল আনন্দও রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে। তিনি লেখেন, রংপুর নয় বাহে- পুড়ছে মাতৃভূমি; রুখে দাঁড়াও! আজ পুড়ছে অসহায় জন/ কাল, তুমি না হয় আমি! সংঘাত-রক্তপাতের ঘটনা নিয়ে অভিনেতা বাপ্পি চৌধুরী লিখেছেন, অথচ আমাদের রক্তের রঙ একই। সহিংসতার পুনরাবৃত্তি নিয়ে অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাসের জিজ্ঞাসা, ‘রংপুর... তারপর?’

বাংলাদেশের শিল্পীদের পাশাপাশি কলকাতার শিল্পীরা বাংলাদেশের নির্যাতিত মানুষদের নিয়ে কথা বলছেন। কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ধর্মের ভিত্তিতে যুদ্ধ, ভেদাভেদের চেষ্টা চলতে থাকে। মানুষ যুদ্ধ চায়, শান্তি চায় না। এটা খুবই দুঃখের।

/জেডও/


আরও সংবাদ   বিষয়:  সাম্প্রদায়িক হামলা   প্রতিবাদ  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]