ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ই-পেপার রোববার ৫ ডিসেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

অলিম্পিক নাকি ‘চীনের গণহত্যার খেলা’
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ২০ অক্টোবর, ২০২১, ৩:৪১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 57

মঙ্গলবার ২০২২-এর শীতকালীন অলিম্পিক মশাল তুলে দেওয়ার কথা চীনের হাতে। তবে তার আগেই মানবাধিকার কর্মীরা আন্তর্জাতিক সরকার, পৃষ্ঠপোষক ও ক্রীড়াবিদদের এ আয়োজন বয়কটের ডাক দিয়েছেন। তাদের দাবি, এটা চীনের ‘গণহত্যা’ খেলা। 

সোমবার গ্রিসের দক্ষিণাঞ্চলে অলিম্পিকের মশাল প্রজ্বালন অনুষ্ঠানেও প্রতিবাদ জানান অ্যাক্টিভিস্টরা। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ, চীনে অলিম্পিক আয়োজন অনুমতির মাধ্যমে তারা সেখানকার মানবাধিকার লঙ্ঘনকে প্রশ্রয় দিচ্ছে।

আন্তর্জাতিক তিব্বত নেটওয়ার্কের নির্বাহী পরিচালক ম্যান্ডি ম্যাকেওন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমাদের আবার আইওসির ভণ্ডামির সাক্ষী হতে হচ্ছে। তারা এমন একটি সরকারকে অলিম্পিক মশাল তুলে দিচ্ছে যারা অলিম্পিকের কোনো আদর্শই ধারণ করে না। মনে হচ্ছে যেন আমরা কোনো বিপরীত বাস্তবতায় বাস করছি।

চীনের শিনশিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের ওপর নিপীড়নের অভিযোগ রয়েছে বেইজিংয়ের। এ ছাড়া হংকংয়ের ওপর আগ্রাসন এবং তিব্বত ও তাইওয়ানের বিরুদ্ধেও তাদের দমননীতি রয়েছে। কিন্তু আইওসি এসব আমলে নেয়নি বলে অভিযোগ অ্যক্টিভিস্টদের। এর আগে ২০০৮ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকও আয়োজন করেছিল চীন। 

সোমবার প্রাচীন স্টেডিয়াম অলিম্পিয়ায় এক বক্তব্যে আইওসি প্রেসিডেন্ট থমাস বাজ বলেন, আধুনিক গেমসে অবশ্যই রাজনৈতিক নিরপেক্ষতা বজায় থাকা জরুরি। 

তবে মঙ্গলবার অধিকারকর্মীরা বলেন, ২০০৮ সালের পর থেকে চীনে মানবাধিকার পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। তাদের দাবি, সে বছর আয়োজিত অলিম্পিকের পর তারা আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। করোনা মহামারির কারণে মশাল হস্তান্তর অনুষ্ঠানের কোনো দর্শনার্থী প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। ১৮৯৬ সালে এথেন্সের প্রাচীন এই স্টেডিয়ামে প্রথম আধুনিক গেমস শুরু হয়। সোমবার সেখানে জোর করে প্রবেশের দায়ে তিনজন অ্যাক্টিভিস্টকে আটক করা হয়। তারা সেখানে ব্যানার নিয়ে প্রতিবাদ করছিলেন। যেখানে লেখা, ‘কোনো গণহত্যা গেমস চলবে না।’ একজনের হাতে তিব্বতের পতাকাও ছিল। 

বাকি চারজনকে স্টেডিয়ামের বাইরে থেকে আটক করা হয়। এর আগে রোববার এথেন্স থেকে আটক করা হয় দুইজনকে। পরে অবশ্য সাতজনকেই ছেড়ে দেওয়া হয়। 

আগামী ৪ থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি বেইজিংয়ে গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে।

/এমএইচ/




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]