ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

ভারত-পাকিস্তান মহাদ্বৈরথ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:১২ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 88

বিশ্বকাপ মানেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে পাকিস্তানের অসহায় আত্মসমর্পণ। ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি কোনো বিশ্বকাপেই ভারতকে একবারও হারাতে পারেনি ক্রিকেটের চির আনপ্রেডিক্টবল দলটি। এর মধ্যে ওয়ানডে বিশ্বকাপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে সাত ম্যাচের সবই হারের লজ্জায় ডুবেছে পাকিস্তান। আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাঁচ মোকাবিলায় হার সবই। এমনি অবস্থায় রোববার দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে এক নম্বর গ্রুপে মহাদ্বৈরথে নামছে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

বিশ্বকাপে দুদলের একপেশে ম্যাচ দেখতে দেখতে ক্লান্ত ক্রিকেটপ্রেমীরা। তারপরও কি এই ম্যাচের আকর্ষণ কমছে? উত্তর অবশ্যই না। কেননা দলটি পাকিস্তান! অসম্ভবকে সম্ভব করার সুদীর্ঘ ঐতিহ্য এই দলটিকে দিয়েছে বিশিষ্টতা। ধরা যাক ২০১৭ সালের সর্বশেষ চ্যািম্পয়ন্স ট্রফির কথাই। মিনি বিশ্বকাপখ্যাত এই আসরে গ্রুপপর্বে পাকিস্তানকে ১২৪ রানে হারায় ভারত। রুদ্ধশ্বাস জয়ের মধ্য দিয়ে ফাইনালে উঠে আসে পাকিস্তান। শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হয় ভারতের। এরপর যা ঘটল সেটাই পাকিস্তান! ফাইনালে ভারতকে ১৮০ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা জিতল পাকিস্তান। বলা বাহুল্য, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতের বিপক্ষে এটা পাকিস্তানের প্রথম জয়।

সব কথার এক কথা, প্রতিপক্ষ যখন পাকিস্তান তখন পরিসংখ্যান, রেকর্ড, উপাত্ত এসব অর্থহীন। দুর্বলতম দলের বিপক্ষেও হারতে পারে বাজেভাবে। আবার বিশ্ব সেরা দলকেও মাটিতে নামিয়ে আনতে পারে নিমেষে। পাকিস্তানের ম্যাচ মানে এমনিতেই বাড়তি উত্তাপ আর উত্তেজনার। আর প্রতিপক্ষ যদি পাকিস্তান হয়, তবে এই উত্তাপ পায় অতি উচ্চমাত্রা। ক্রিকেটের সবচেয়ে আকর্ষণের বিজ্ঞাপনও এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াই। দুদশের রাজনৈতিক বৈরিতা, উত্তেজনার পারদ বাড়িয়ে দেয় বহুগুণ। 

ক্রিকেটের এই আকর্ষণের বিজ্ঞাপন (ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ) এখন অনেকটায় ফ্যাকাসে। তবে আকাশে উড়তে থাকা বিরাট কোহলির ভারতকে যদি একবার টেনে মাটিতে নামাতে পারে, তবে বাবর আজমের পাকিস্তান যে নতুনভাবে জেগে উঠবে, তা বলাই বাহুল্য। বিশ্বকাপের দামামা বেজে ওঠার পর থেকেই এই ম্যাচকে ঘিরে কথার যুদ্ধে মেতে উঠেছে দুদেশের সাবেকরা। একজন ইট ছুড়ছেন তো অন্য শিবির থেকে ছোড়া হচ্ছে পাথর। 

তবে মাঠের লড়াইয়ের আগে কোহলি ও বাবর দুজন ভীষণ সাবধানী। পাহাড় চুপ থাকে কিন্তু যখন ফাটে তখন হয় আগ্নেয়গিরি। দুই কান্ডারির এমন নিরুত্তাপ আচরণ যে বড় ঝড়েরই পূর্বাভাস, সেটা বুঝতে প্রয়োজন পড়ে না বিশেষজ্ঞ হওয়ার। ভারত অধিনায়ক কোহলির কথায়, ‘আমাদের রেকর্ড এবং অতীত পারফরম্যান্স এগুলো নিয়ে ভাবছি না। নির্দিষ্ট দিনটি কতটা কার্যকর করতে পারব, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।’ অধিনায়ক বাবরের ভাষায়, ‘এই দুদলের ম্যাচ সবসময় উত্তেজনাপূর্ণ হয়। দলের সবাই বিশ্বকাপে খেলতে মুখিয়ে আছে। আমরা মনে করছি রোববার আমাদের গুরুত্বপূর্ণ একটি ম্যাচ আছে।’

/এমএইচ/




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]