ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ ৪ মাঘ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

তিস্তাগর্ভে সুন্দরগঞ্জের ৭০০ পরিবারের আশ্রয়স্থল, ভাঙন অব্যাহত
সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) সংবাদদাতা
প্রকাশ: সোমবার, ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৪:৪৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 127

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চর মাদারীপাড়া থেকে কারেন্টবাজার ও চন্ডিপুর ইউনিয়নের উজান বোচাগাড়ি গ্রামের তিস্তা ব্রীজ পয়েন্ট নামের স্থানে তিস্তা নদীর তীব্র ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত তিস্তাগর্ভে বিলীন হয়েছে ৭০০ পরিবারের বসতভিটা। ভাঙন অব্যাহত থাকায় নদীর বামতীর ও ডানতীরের বাঁধসহ বিস্তীর্ণ এলাকার বাস্তভিটা, আবাদি জমি, পুকুর, রাস্তা-ঘাট, মসজিদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সব কিছুই হুমকির মুখে পড়েছে।

জানা গেছে, গত ৩ সপ্তাহে এসব পরিবারের বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। নদীভাঙন কবলিত মানুষজন ২ তীরের বেড়িবাঁধসহ কুড়িগ্রামের চিলমারী, থানাহাট ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্নস্থানে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। ভাঙন অব্যাহত থাকায় হুমকির মুখে পড়েছে নদীর দু’পাড়ের বেড়িবাঁধ, জনবসতিপূর্ণ পাড়া-গ্রাম, ফসলি জমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদসহ বিভিন্ন রাস্তা ঘাট।

এ ব্যাপারে চন্ডিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ফুল মিয়া জানান, চন্ডিপুর ইউনিয়নের উজান বোচাগাড়ি মৌজায় অবস্থিত নির্মাণাধীন তিস্তাসেতু এলাকার যেসব পরিবারের বসতভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে, সেগুলোর তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। একই সঙ্গে যেসব মানুষের বসতভিটা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান হুমকির মুখে পড়েছে সেগুলোর তালিকাও প্রস্তুত করা হচ্ছে।

হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাফিউল ইসলাম সরকার জিমি জানান, হরিপুর ইউনিয়নের ৬ শতাধিক পরিবারের বাস্তুভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। তিস্তানদীর তীব্র ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে বিস্তীর্ণ এলাকার বসতভিটা, আবাদি জমি, রাস্তাঘাট, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও হাট-বাজার।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ওয়ালিফ মণ্ডল জানান, নদী ভাঙন কবলিত ৩৪২ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার দেয়া হয়েছে। এসব খাবারের মধ্যে ছিল চাল ১০ কেজি, তেল ১ লিটার, লবণ ১ কেজি, চিনি ১ কেজি, চিড়া ৪ কেজি, নুডুলস ৫০০ গ্রাম করে। ভাঙন অব্যাহত থাকায় নদী ভাঙন কবলিত পরিবারের সংখ্যা বৃদ্ধি হচ্ছে। তাই সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানদ্বয়ের কাছ থেকে তালিকা চাওয়া হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তালিকা পেলেই ঊর্ধ্বতন দপ্তরে চাহিদা পাঠানো হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]