ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ ৪ মাঘ ১৪২৮
ই-পেপার মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

শতবর্ষের আলোয় আলোকিত ঢাবিতে উৎসবের প্রস্তুতি
মানজুর হোছাইন মাহি
প্রকাশ: সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১, ১০:২৮ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 154

শতবর্ষ পূরণ করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উৎসবের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। গত ১ জুলাই ২০২১-এ শতবর্ষ পূর্ণ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। শতবর্ষ উদযাপনে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিলেও করোনা মহামারির কারণে কোনো কর্মসূচিই বাস্তবায়ন করতে পারেনি। এতে দীর্ঘ হতে থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শতবর্ষ উদযাপনের অপেক্ষা। নভেম্বরে উদযাপনের কথা থাকলেও সেটি পিছিয়ে শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালনের জন্য ডিসেম্বর মাসে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

শিক্ষার্থীদের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আগামী ১ ডিসেম্বর উদযাপন হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান। তৈরি করা হচ্ছে শতবর্ষ উদযাপনের মঞ্চ, সাজানো হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো এলাকা।

রোববার সরেজমিন বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান পালনের জন্য মূল মঞ্চ তৈরির কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলেছে। এ ছাড়া টিএসসি, কলা ভবনের সামনে বটতলা ও মুহসীন হল মাঠে তিনটি আলাদা মঞ্চ তৈরি করা হচ্ছে বড় পর্দায় শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান দেখানোর জন্য। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল, কলা ভবন, ভিসি চত্বর, স্মৃতি চিরন্তন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাব ভবন, টিএসসি চত্বর এবং সামাজিক বিজ্ঞান ভবনসহ পুরো ক্যাম্পাস ও ফুলার রোডসহ আশপাশের বিভিন্ন সড়ক লাল, সবুজ ও নীল রঙের বাতির আলোয় সাজানো হয়েছে। এ ছাড়া ‘শতবর্ষের আলোয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ নামে বক্স ও বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকার্ড রঙিন আলো ছড়াচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাজুড়ে।
 
রীতিমতো উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে ঢাবি ক্যাম্পাসে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছাড়াও ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী কিংবা ক্যাম্পাসের রাস্তায় যাতায়াতকারী সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করছে বর্ণিল এ আলোকসজ্জা। শিক্ষার্থীসহ অনেকেই সুন্দর মুহূর্তগুলোর সাক্ষী হওয়ার জন্য ছবি তুলে ছড়িয়ে দিচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাকালীন বিভাগ ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী হাবীব উল্যাহ শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আমাদের ক্যাম্পাস বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়েছে। আমরা প্রত্যেক শিক্ষার্থীই এই অনুষ্ঠান নিয়ে বেশ উৎসুক ছিলাম। অবশেষে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ উপস্থিত হওয়ার দরুন ‘শতবর্ষের আলোয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ প্রতিপাদ্যে সমগ্র ক্যাম্পাস আলোকিত হয়েছে। আমরা প্রত্যেকেই খুবই আনন্দিত যে, শতবর্ষ উৎযাপনে শামিল হতে পেরেছি। শতবর্ষের আলোয় প্রেয়সীতুল্য ক্যাম্পাস সবসময় উজ্জীবিত থাকুক এটাই কামনা করি।

শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী দৈনিক সময়ের আলোকে বলেন, শতবর্ষ উদযাপন আমাদের সবার কাছে একটা আনন্দের ব্যাপার। শতবর্ষ উদযাপনে আমরা কোনো কমতি রাখব না। সবাই এটি সফলভাবে উদযাপন করতে কাজ করছে। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা সাজানোর কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে সব কাজ সম্পন্ন হবে। 
শতবর্ষ উদযাপন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব ও উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল দৈনিক সময়ের আলোকে বলেন, রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভার্চুয়ালি ১ ডিসেম্বরের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। রাষ্ট্রপতির সশরীরে উপস্থিত থাকার ইচ্ছা ছিল, তবে করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি হচ্ছে না। ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হবে। ১২ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে খ্যাতিমান শিল্পীদের ‘কনসার্ট’ পরিবেশনের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের সমাপ্তি হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে আগামী ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর এবং ১২ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে আলোচনা ও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। ১ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থাকবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ভুটানের প্রধানমন্ত্রী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই লোটে শেরিং ভার্চুয়ালি শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ ও ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শতবর্ষের তথ্যচিত্র প্রদর্শন ও শতবর্ষের থিম সং পরিবেশন করা হবে।
 
এ ছাড়া রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে প্রকাশিত গ্রন্থসমূহ, ফটোগ্রাফি অ্যালবাম ও ওয়েবসাইট উদ্বোধন করবেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]